ফ্রি চিকিৎসা সেবায় উচ্ছ্বাসিত রোগীরা

৪ ভাদ্র ১৪২৫, রবিবার ১৯ আগস্ট ২০১৮ , ৫:২০ অপরাহ্ণ

ফ্রি চিকিৎসা সেবায় উচ্ছ্বাসিত রোগীরা


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৩৯ পিএম, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০২:৩৯ পিএম, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার


ফ্রি চিকিৎসা সেবায় উচ্ছ্বাসিত রোগীরা

নারায়ণগঞ্জে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে কলকাতার স্বনামধন্য কোঠারী হাসপাতালের চিকিৎসকেরা সেবা দিতে এসে মানব কল্যাণে নিজেদের নিযোজিত করতে পেরে খুবই আনন্দিত। অন্যদিকে ফ্রি চিকিৎসা গ্রহণ করতে আসা রোগীরা বেশ উচ্ছ্বাসিত ছিল। তবে বেশির ভাগ রোগীরা এরুপ আয়োজনকে ইতিবাচক দিক হিসেবে উল্লেখ করে বেশ আনন্দ প্রকাশ করছেন। তবে এসব আয়োজন এককালীন না করে বারবার করার জন্য বিশেষ অনুরোধ করে বলেছেন, এসব ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্পেইন বার বার করলে গরীব অসহায় মানুষদের আর চিকিৎসা সেবা নিতে কোন দুর্ভোগ পোহাতে হবেনা। এছাড়া এই সেবা নিতে জেলার সীমানা পেরিয়ে সুদূর ঢাকা থেকে রোগীরা ভিড় করছে।

২৫ এপ্রিল বুধবার সকালে সেন্ট্রাল ঘাট সংলগ্ন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে দুই দিন ব্যাপী ফ্রি চিকিৎসা সেবার প্রথম দিনে রোগীদের মাঝে উচ্ছ্বাস দেখা যায়। বৃহস্পতিবার ২৬ এপ্রিল দুপুরে এ সেবার কার্যক্রম শেষ হবে বলে জানাগেছে।

গোদনাইল এলাকার রানী বেগম (৫৮) নামের রোগী বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন যাবত হাটুর জয়েন্ট ও কোমরের ব্যাথা অনুভব করেছি। এখন ফ্রি চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছি। ডাক্তার কিছু পরীক্ষা ও ওষুধ দিয়েছে। এই ফ্রি চিকিৎসা সেবা পেয়ে আমরা খুবই খুশি। এসব সেবা পেলে মানুষ খুবই উপকৃত হবে। এ জন্য এমপি সেলিম ওসমানকে ধন্যবাদ।’

এদিকে মাহমুদা সিদ্দিকী বলেন, আমার হাতের তালু মুঠ করতে পারিনা। শুনেছি এখানে ভারতীয় উন্নতমানের চিকিৎস এসেছে। তারা ফ্রি তে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে তাই এসেছি। তবে এরকম ফ্রি সেবা বারবার আয়োজন করা উচিত। এর আয়োজনকারীদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। মানব কল্যাণে কাজ করলে এমনিতে মন থেকে দোয়া আসবে সেটা বলা লাগবেনা।

নারায়ণগঞ্জ জেলার সীমানা পেরিয়ে সুদূর রাজধানীর মিরপুর থেকে রোগীরা ফ্রি তে উন্নতমানের চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছেন নাহিদা বেগম। নাহিদা বেগমের গেস্ট্রোলজি বিভাগের ব্রোনকাইটিস রোগে হয়েছে বলে জানাগেছে। তাই তিনি ঢাকা মিরপুর থেকে এখানে এসেছেন।

এদিকে ফ্রি তে চিকিৎসা সেবা দিতে পেরে চিকিৎসকরাও খুবই আতœতৃপ্তি পেয়েছেন বলে জানাগেছে। তাই তারা বারবার ফ্রি তে চিকিৎসা সেবা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আর চিকিৎসা সেবার মধ্য দিয়ে মানব কল্যাণ করতে চান।

এছাড়া বৃদ্ধা মোমেনা বেগম চিকিৎসা সেবা নিতে এসে তার আক্ষেপের কথা জানিয়ে বললেন, ‘অনেক দিন ধরে পেটের ভিড়তে কি যেন একটা হয়েছে। তাই খুব ব্যাথা করে কিন্তু টাকার অভাবে চিকিৎসা নিতে পারছিনা। আজকে ফ্রি সেবার কথা জানতে পেরে এখানে ছুড়ে এসেছি। যারা এই ফ্রি সেবার ব্যবস্থা করেছেন তাদেরকে দোয়া দেয়া ছাড়া আর কিছু করার নাই। আর ভাল কাজ করলে মন থেকে দোয়া পাওয়া যায়। শুনেছি, এমপি সেলিম ওসমান এই আয়োজন করেছেন। সৃষ্টিকর্তা তাকে আরো বড় করুক, তিনি যেন সব সময় এভাবেই দেশ ও দশের জন্য সেবা করতে পারে। আর যে সবার ভাল করে তার ভাল আল্লাহ করে।’

দ্ইু দিনের ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিতে আসা ডা. জয়দেব সরকার বলেন, ‘ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিতে পেরে খুবই ভাল লাগছে। তবে ফ্রি সেবা দেয়াটা আমার কাছে নতুন কিছু না। এর আগেরও আমি ভারতের পশ্চিম বঙ্গে বহু ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিয়েছি। বরং রোগীদের কাছ থেকে ফি নিয়ে সেবা দেয়াটা  আমার কাছে প্রথমত একটু বেমানান মনে হয়েছে। তবে নিয়ম অনুযায়ী ফি নিয়ে সেবা দেয়াটা একটা সময় অভ্যাসের পরিণত হয়েছে। টাকা খরচ করে সেবা নেয়ার মত অনেকেরই সামর্থ থাকেনা। বিশেষ করে একটা শ্রেণির লোকদের পকেটে পয়সা না থাকার কারণে তারা বছরের পর বছর রোগ বহন করে জীবনযাপন করে থাকে। তবে এসব ফ্রি সেবার মত কার্যক্রম কোথাও চালু হলে ওই বিশেষ শ্রেণির লোকেরা সেবা নিতে আসে। তাই এসব ফ্রি চিকিৎসা সেবা শুধু দু-একদিন হলেই হবেনা। নিয়মিত সময় করে অথবা মাঝে মাঝে এসব ফ্রি চিকিৎসা সেবার আয়োজন করতে হবে। এই প্রথম বাংলাদেশে এসেছি ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিতে। তবে এসব আয়োজন বারবার হলে আমরা ফের আসবো।

ডা. বিপ্লব দেলুই বলেন, ‘ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিতে পারার মাঝে একটা আত্মতৃপ্তি আছে। এটা আসলে ভাষায় প্রকাশ করা যাবেনা। বাংলাদেশে এটা আমার প্রথম ফ্রি চিকিৎসা সেবা হলেও পশ্চিম বঙ্গে বহুবার ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিয়েছি। এমনকি আমি আমার ক্লিনিকে প্রত্যেক সপ্তাহে ১ দিন করে ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকি। তাই এটা আমার নিয়মিত অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। এই সেবা দেয়ার মধ্য দিয়ে মানুষের অনেক কাছে যাওয়া যায়। আর পেশাদারিত্ব ছেড়ে মানব সেবায় নিজেদের নিয়োজিত করা যায়।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ