৩ আশ্বিন ১৪২৫, বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৬:১১ পূর্বাহ্ণ

মেডিস্টারের ভুল চিকিৎসায় আলোর মুখ দেখেনি নবজাতক


বন্দর করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:৫৬ পিএম, ৬ জুলাই ২০১৮ শুক্রবার


মেডিস্টারের ভুল চিকিৎসায় আলোর মুখ দেখেনি নবজাতক

বন্দরের মদনগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা মো: সুমন পুত্র সন্তানের খবরে আনন্দে ভাসছিলেন। প্রায় ৫-৬ বছর ধরে তার কোন সন্তান হচ্ছিল না। বহুদিন পর তিনি একজন পুত্র সন্তানের বাবা হতে যাচ্ছেন। স্বভাবতই তিনি খুশিতে বিভোর ছিলেন। কিন্তু তার সেই আনন্দ মুহূর্তের মধ্যেই মাটি করে দিল হাসপাতালের ডাক্তার।

শহরের মেডিস্টার জেনারেল হসপিটালের ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় আলোর মুখ দেখতে পারেনি নবজাতক। ৬ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় এই ঘটনা ঘটে।

মো: সুমন জানান, আমাদের সংসারে অনেকদিন ধরেই কোনো নতুন অতিথি আসছিল না। অবশেষে আল্লাহর রহমতে আমার স্ত্রী সুমি (২৮) গর্ভবতী হয়। ফলে বহুদিন পরে সন্তানের বাবা হওয়ার খবরে খুবই আনন্দে ছিলাম। মেডিস্টার জেনারেল হসপিটালের ডাক্তার জাকিয়া পারভীন লিপি নিয়মিত তত্ত্বাবধানে ছিল আমার স্ত্রী সুমি।

শুক্রবার সকাল থেকেই স্ত্রী সুমি সন্তানের তেমন সাড়া পাচ্ছিলেন না। তাই দুপুরের দিকে আমাদের নিয়মিত ডাক্তার জাকিয়া পারভীন লিপির কাছে আসি। কিন্তু সে হাসপাতালে ছিল না। আমরা অনেক্ষণ অপেক্ষার পরেও হাসপাতালের অন্যান্য ডাক্তাররাও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। অবশেষে জাকিয়া পারভীন লিপির ফোনের মাধ্যমে দুই নার্সকে ইনজেকশন দেয়ার নির্দেশ দেয়।

ওই ইনজেকশন দেয়ার পরপরই বাচ্চা একেবারেই সাড়া দেয়া বন্ধ করে দেয়। তারপরেও হাসপাতালের নার্সরা বলছিল বাচ্চা ঠিক আছে, কোন সমস্যা নেই। কিন্তু আমাদের সন্দেহ হওয়ায় আল্ট্রা¯েœা করায়। আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্টে বাচ্চার সবকিছুই নো রেসপন্স আসে। শুধুমাত্র হাসপাতালের ডাক্তারদের ভুল ইনজেকশন আর অবহেলার কারণেই আমার সন্তান আলোর মুখ দেখতে পারেনি।

তিনি বলেন, ‘আমি অবশ্যই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তারদের বিরুদ্ধে মামলা করবো। এই ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

ঘটনার পর হাসপাতালের লোকজন পালিয়ে যায়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

স্বাস্থ্য -এর সর্বশেষ