পপুলার ডায়াগনস্টিকে প্রতারণা!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫২ পিএম, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ রবিবার

পপুলার ডায়াগনস্টিকে প্রতারণা!

নারায়ণগঞ্জ শহরের অন্যতম ডায়াগনস্টিক সেন্টার পপুলার। তবে বিভিন্ন সময় চিকিৎসা সেবা ও পরীক্ষা নিরীক্ষার মাঝে বেশ সমালোচিত হয়েছে। কখনও ডাক্তারের ভুল প্রেসক্রিপশন কিংবা কখনও ভুল রিপোর্টে রোগী হয়রানী অহরহ দেখা গেছে। এতকিছুর পর নতুন করে যুক্ত হয়েছে বিল পরিশোধের সময় গ্রাহকের সাথে প্রতারণার ঘটনা। সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অধরা মোহাম্মদ কুহু নামে এক গ্রাহক তার ঘটনা তুলে ধরেন।

লেখাটি তুলে ধরা হলো- ‘‘২ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টায় আমি urine and blood test এর রিপোর্ট নিতে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার নারায়ণগঞ্জ ব্রাঞ্চে যাই। ডিউ এমাউন্টের ডিসকাউন্ট দিয়ে আমার বিল আসে ৪৮২৫ টাকা। আমি কাউন্টারের লোককে ১০০০ টাকার ৫টি নোট গুনে দেই এবং ভাংতির জন্য অপেক্ষা করি। কাউন্টারের মানুষের পোশাক পরিহিত লোকটি যিনি টাকা সংগ্রহ করলেন তিনি সাথে সাথে ১০০০ টাকার একটি নোট দূরে সরিয়ে ৫০০ টাকার একটা নোট পরিবর্তন করে আমার থেকে আরও টাকা দাবি করলেন। তার মতামত অনুযায়ী আমি তাকে ৪৫০০ টাকা দিয়েছি। অথচ আমার কাছে ৫০০ টাকার কোনো নোটই ছিল না তখন। এছাড়া তিনি যে আমার দেয়া ১০০০ টাকার নোট পরিবর্তন করেছে সেটা সম্পূর্ণটাই আমি দেখেছি। একজন ম্যাজিশিয়ান যেমন ম্যাজিক করে ঠিক সেভাবেই তিনি এই কাজটি করেছেন। আমার থেকে টাকা দাবি করায় আমি অনেক প্রতিবাদ জানাই। একটা সময় অনেক তর্ক করার পর মানুষ জড়ো হয়ে পরে এবং আমি লোকটিকে সিসি ক্যামেরা চেক করার কথা বলতেই লোকটি ভয়ে পেয়ে যায় এবং স্বীকার করে। আমি প্রতিবাদ করায় সে বিষয়টি স্বীকার করে এবং আমি আমার বোনকে দিয়ে লিখিতো অভিযোগ দিয়ে আসি।’’

জানি আমার অভিযোগ পত্রটি ওই বক্স থেকে ডাস্টবিনে যাবে, কেউ পড়েও দেখবেনা। অভিযোগ পত্র এর জায়গায় যদি টাকা দিয়ে আসতাম তাহলেও হয়তো কাজে আসতো। আমার মতো কয়জন মানুষই বা প্রতিবাদ জানাতে পারে? মানুষ যখন অসুস্থ হয় তখন সব থেকে বেশি অসহায় থাকে। আমার মতো কত মানুষ আসে চিকিৎসা এর জন্য ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতে যাতে তাদের সঠিক রোগ ধরা সম্ভব হয়। অসহায় মানুষগুলো একটু ভালো থাকার জন্য কত চেষ্টা করে। অনেক গরিব মানুষ আছে যারা খুব কষ্ট করে টাকা যোগার করে আসে চিকিৎসা নিতে। সে দিকে এইরকম অসহায় মানুষ গুলোর সাথে এইভাবে অন্যায় করা হলে কি পদক্ষেপ নেয়া যায়?

আপনাদের অনুরোধ করছি এইসব ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিল যদি ৯৯ টাকাও আসে তাহলে ৯৯ টাকাই দিবেন। একটা টাকাও তাদের থেকে ভাংতি করে নিবেন না। তার এই ঘটনা প্রকাশের পর অনেকেই নিজেদের সাথে এমন ঘটনা ঘটার কথা স্বীকার করেন এবং সেই কর্মকর্তার শাস্তি দাবি করেন।


বিভাগ : স্বাস্থ্য


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও