নারায়ণগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টেনে ২১৩, প্রবাসীর সংখ্যা কমছে

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:১৯ পিএম, ২৮ মার্চ ২০২০ শনিবার

নারায়ণগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টেনে ২১৩, প্রবাসীর সংখ্যা কমছে

নারায়ণগঞ্জে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিনের সংখ্যা দিন দিন কমে আসছে। তবে এখন স্থানীয়রা নতুন করে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকছেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন মুহাম্মদ ইমতিয়াজ।

২৮ মার্চ শনিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে করোনা পরিস্থিতি সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক (উপসচিব) শাকিল আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা তাহেরা ববি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ সেলিম রেজা, জেলা তথ্য কর্মকর্তা সিরাজদৌল্লাহ খান প্রমুখ।

ডা. মুহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলায় কোভিক-১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩জন। যার মধ্যে দুইজন সুস্থ্য হয়ে বাসায় ফিরেছেন। আর অন্যজনও সুস্থ্য আছেন। তবে এখনো পর্যন্ত মৃত্যু নেই। এছাড়া আর কোন লোকও আক্রান্ত নেই। বাড়িতে মোট কোয়ারেন্টাইন ২১৩ জন যেখানে নতুন যুক্ত হয়েছে ১৫জন। তবে হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে ৪২ জনের। আর গত ১ মার্চ থেকে আজ পর্যন্ত েিবদশ থেকে মোট এসেছে ৫ হাজার ৯৬৮ জন। ঠিকানা ও অবস্থান চিহ্নিত বিদেশ প্রত্যাগত ব্যক্তি মোট ২৮০ জন।

তিনি বলেন, ‘ যারা ১ থেকে ১৪ তারিখ পর্যন্ত দেশে এসেছেন এমন ব্যক্তিদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। তাছাড়া এখন আর কেউ বিদেশ থেকে আসছেন না। সেহেতু এখন প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিনের সংখ্যা দিন দিন কমে আসবে। তবে এখন স্থানীয়রা হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সংখ্যা বাড়তে পারে। তবে সেটাও সংখ্যায় কম।’

মুহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, সরকারি চিকিৎসা কেন্দ্র ৬টি, কোভিক-১৯ চিকিৎসায় প্রস্তুততকৃত বেড ৩০টি, ডাক্তারের সংখ্যা ৯০জন, নার্সের সংখ্যা ১৭৩জন। অ্যাম্বুলেন্সের সংখ্যা ৬টি। বেসরকারী চিকিৎসা কেন্দ্র ৭২টি, কোভিড-১৯ চিকিৎসায় প্রস্তুতকৃত বেড ৭২টি, ডাক্তারের সংখ্যা ১০০জন, নার্সের সংখ্যা ১৮০জন। ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই) মজুদ আছে ২৪০, বিতরণ করা হয়েছে ৩৪৮।


বিভাগ : স্বাস্থ্য


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও