চাষাঢ়ায় কেয়ার হাসপাতালে নবজাতকের মৃত্যু

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:৫৯ এএম, ৬ আগস্ট ২০২০ বৃহস্পতিবার

চাষাঢ়ায় কেয়ার হাসপাতালে নবজাতকের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জে কেয়ার জেনারেল হসপিটালে চিকিৎসা ব্যবস্থা ও চিকিৎসকের অবহেলায় গর্ভের নবজাতক মারা যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। হসপিটাল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়টিকে অস্বীকার করছে। অন্যদিকে চিকিৎসকের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

৫ জুলাই বুধবার বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় কেয়ার জেনারেল হাসপাতালে এই অঘটন ঘটেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ভুক্তভোগী রোগীর স্বজন সিফাত জানায়, আমার শ্যালিকা শামসুন নাহার সুমি (২৬) মেডিনোভার চিকিৎসক শারমীন সুলতানার কাছে চিকিৎসা নিয়ে আসছিল। ৫ আগস্ট সকালে ডেলিভারীর জন্য তিনি আমার শ্যালিকাকে কেয়ার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। তার কথা মত সকাল ১০ টার সময়ে সেখানে ভর্তি করি। তবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও সেই চিকিৎসক আসেনি। তিনি ফোনে ফোনে নার্স দিয়ে সেবা দিয়ে গেছেন। পরে রোগীর অবস্থার অবনতি দেখে তাকে দুপুর সাড়ে ৩ টায় পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখি গর্ভজাতক শিশু মারা গেছে। এখন সুমির অবস্থাও আশঙ্কাজনক। তাকে সিটি লাইফ হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে। এটা মূলত চিকিৎসকদের অবহেলার জন্য এই ঘটনা ঘটেছে।

কেয়ার জেনারেল হসপিটালের ম্যানেজার আবু বক্কর বলছেন, এই রোগি আমাদের হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তার গর্ভের বাচ্চা এখানে মারা যায়নি। এখানে তার কোন অপারেশন হয়নি। পরবর্তীতে রোগির স্বজনরা তড়িঘড়ি করে পপুলার ডায়াগনস্টিকে নিয়ে যায়। সেখানে নাকি তারা জানতে পেরেছে পেটের বাচ্চা মারা গেছে।

ফোনে ফোনে চিকিৎসা দেয়ার প্রশ্ন করায় তিনি বলেন, এখন অনেকে ফোনে ফোনে চিকিৎসা দিচ্ছে। তাছাড়া একজন সরকারী হাসপাতালের চিকিৎসক ইচ্ছে করলেই যে কোন সময় আসতে পারেনা।

এ ব্যাপারে চিকিৎসক শারমিন সুলতানার মোবাইলে ফোন দিলেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


বিভাগ : স্বাস্থ্য


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও