৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বুধবার ২১ নভেম্বর ২০১৮ , ১২:৩৪ অপরাহ্ণ

rabbhaban

গীতা প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের মধ্যে তৃতীয় নারায়ণগঞ্জের তিথি


|| নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০২ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬ শনিবার


গীতা প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের মধ্যে তৃতীয় নারায়ণগঞ্জের তিথি

হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান ধর্মগ্রন্থ গীতা চ্যাম্পিয়ানশীপে বাংলাদেশের মধ্যে তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন নারায়ণগঞ্জের তিথি রানী মণ্ডল।
 
শুক্রবার বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগনাথ হলে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনা মৃত সংঘ (ইসকন) এর ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সারা দেশের কিশোর কিশোরীদের অংশগ্রহণে ওই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ওই সময় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পুরস্কার সরূপ মেডেল ও ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।
 
তিথি রানী মন্ডল নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা পশ্চিম মাসদাইর বাড়ৈভোগ এলাকার বাবা প্রদীপ মণ্ডল ও মা পূর্ণলক্ষ্মী মণ্ডলের মেয়ে এবং নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত মণ্ডলের ভাতিজি। দুই বোনের মধ্যে তিথি ছোট। এছাড়াও তিথি নারায়ণগঞ্জ কলেজের বিবিএ (পার্স) কোর্সের ব্যবসা শিক্ষা শাখার দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। এর আগে তিথি নারায়ণগঞ্জ মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি ও ফতুল্লা হাজী উজির আলী স্কুল থেকে এসএসসি পাশ করেন।

তিথি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করতে পারি নাই যে আমি প্রথম তিনজনের একজনের স্থান পাবো। তবে নাম ঘোষনার পর মনটা আনন্দে ভরে যায়। এখন পবিত্র গীতা থেকে অর্জিত জ্ঞান সকলের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চাই। ছোট বড় সকলকের মধ্যে গীতার পবিত্র বাণী বলতে ও শিখাতে চাই। গীতা মানুষকে ভালো ও সুন্দর পথে নিয়ে আসে। প্রতিদিন গীতা মাঠে মন ও দেহ দুই পবিত্র ও সুন্দর হয়। গীতা পাঠ করলে ভাগবানকে উপলব্দি করা যায়। এর সঙ্গে মানুষকে ভালো জ্ঞান দান করা যায়।’

তিথি জানান, ‘জানুয়ারি মাস থেকেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। প্রথম বাছাই পর্বে ১৩ তম ও দ্বিতীয় বাছাইয়ে চতুর্থ হন। তবে ফাইনালে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। ওই ফাইনালে তৃতীয় স্থানের সম্মান বাবা মায়ের নিয়ে সঙ্গে নিয়ে আনতে পারায় আনন্দিত ও গর্বিত।’

তিথি বাবা প্রদীপ মণ্ডল ও কাকা রঞ্জিত মণ্ডল জানান, ‘মেয়ের এ অর্জন তাদেরকে গর্বিত করেছেন। এজন্য নারায়ণগবাসীর আর্শিবাদ প্রার্থনা করেন। এছাড়াও তিথির আগামী দিনের ভবিষ্যতের জন্য মঙ্গল কামনা করেন।’

প্রসঙ্গত আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনা মৃত সংঘ (ইসকন) ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বাংলাদেশের ৬৪ জেলার স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দু সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীদের থেকে বাছাই করে ঢাকায় চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। যার মধ্যে নারায়ণগঞ্জ থেকে অংশগ্রহণ করেন ২৬ জন প্রতিযোগি। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ থেকে আরো দুইজন প্রতিযোগি ৩০ ও ৩১তম স্থান অধিকার করেন। অংশগ্রহণকারীদের মানব জীবনে গীতা শিক্ষার গুরুত্ব, গীতার বিষয় বস্তু সম্পর্কে লিখিত ১০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece