৪ আশ্বিন ১৪২৫, বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের কমিটি

যথার্থ মূল্যায়ন হয়নি : আবদুল কাদির


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:১৯ পিএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৭ সোমবার


যথার্থ মূল্যায়ন হয়নি : আবদুল কাদির

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতির পদ পেয়েছেন আবদুল কাদির যিনি জেলা যুবলীগের সভাপতি পদে আছেন। তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা। ২০০৯ সালের জানুয়ারীতে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে লড়ে হেরেছেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী নিজ দলেরই দুইজন ছিলেন। একজন আনোয়ার হোসেন যিনি এখন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। অপরজন আবু হাসনাত শহীদ বাদল যিনি জেলা যুবলীগের সভাপতি, পরে হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী। নির্বাচন এ দুইজন হারলেও দলে হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ পদে ঠাঁই। যদিও আবদুল কাদিরকে এর আগেই ২০১৫ সালের ৮ ডিসেম্বর ঘোষিত মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতেও সদস্য পদে রাখা হয়েছিল।

১৩ মাস পর নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ৭৪ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্র। রোববার ২৬ নভেম্বর ওই কমিটি অনুমোদনের খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর আবদুল হাইকে সভাপতি, সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে সহ সভাপতি এবং আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট জেলা আওয়ামীলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র।

জেলা কমিটিতে ৯ নাম্বার সহ সভাপতির পদ পাওয়া আবদুল কাদির নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘রাজনীতির জন্য নিজের জীবন বিসর্জন দিলাম। অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। কিন্তু জেলা কমিটিতে আমাকে যথার্থ মূল্যায়ন করা হয়নি এমন অভিযোগ আমাকে যারা ভালোবাসেন তাদের। আমিও কিছুটা মর্মাহত।’

কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান বাচ্চু, অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, আরজু রহমান ভুইয়া, মুক্তিযোদ্ধা খবির উদ্দীন, মুহাম্মদ সানাউল্লাহ, আবদুল কাদির, মোহাম্মদ সিকদার গোলাম রসূল, আধীনাথ বসূ, খাজা রহমত উল্লাহ (প্রয়াত)।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সাক্ষাৎকার -এর সর্বশেষ