৭ শ্রাবণ ১৪২৫, সোমবার ২৩ জুলাই ২০১৮ , ৪:১০ পূর্বাহ্ণ

শামীম ওসমান বা আইভীর উপর ভর করে রাজনীতি করি না : তৈমূর


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০১:৫৪ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ০৭:৫৪ এএম, ২২ জানুয়ারি ২০১৮ সোমবার


শামীম ওসমান বা আইভীর উপর ভর করে রাজনীতি করি না : তৈমূর

গত ১৬ জানুয়ারী মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জে হকার ইস্যুতে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন ও মারামারির ঘটনায় পুলিশ কেন মামলা করেনি সে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার। তিনি বলেছেন, পুলিশ মামলা না করে বিতর্কিত হয়েছে।

২১ জানুয়ারী রোববার রাতে বেসরকারী টিভি চ্যানেল যমুনা টিভির ‘২৪ ঘণ্টা’ শীর্ষক টক শো অনুষ্ঠানে তৈমূর আলম খন্দকার এসব কথা বলেন। ওই অনুষ্ঠানে সঙ্গে আলোচক হিসেবে ছিলেন আওয়ামী লীগের এমপি শামীম ওসমান ও সিনিয়র সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমান।

তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, এমপি সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে যে চিঠি দিয়েছে তার জবাব একজন সিও দিয়ে সেটা ছিল উস্কানির শামিল। তাছাড়া আইভী শামীম ওসমানের ছেলের বিয়েতে ২৫ কোটি টাকা নিয়ে কথাবার্তাও অদায়িত্বশীল। অপরদিকে শামীম ওসমানও হকার ইস্যুতে পুলিশকে নির্দেশ দিতে পারে না। সেটাও ছিল উস্কানি। এসব কথা থেকে সূত্রপাত।

তিনি আরো বলেন, শামীম ওসমানের কিছু হলেই বিএনপির উপর দোষ চাপায়। এর আগে ১৬ জুন বোমা হামলার পর আমাদের আসামী করা হয়েছে। আমাকে গুলি করা হয়েছে চেম্বার ভাঙচুর হামলা করা হয়েছে।

তৈমূর বলেন, আমি বিএনপি না করলে শামীম ওসমান ও আইভীকে চেষ্টা করতাম দুইজনকে বসাতে। কারণ তারা জুনিয়র। আর আমি নারায়ণগঞ্জে শামীম ওসমান বা আইভীর উপর ভর করে রাজনীতি করি না।

আইভী প্রসঙ্গে বলেন, বিগত পৌরসভা আমলে যখন আইভীর বিরুদ্ধে অনাস্থা দেয় ১০জন কাউন্সিলর তখন আমি তার পাশে ছিলাম। আর গত ১৬ জানুয়ারী আমার ভাই কিংবা বিএনপির কোন নেতা অস্ত্র হাতে নেয়নি ও হামলাতেও ছিল না।

যা বললেন শামীম ওসমান
নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার ইস্যুতে সৃষ্ট সংঘর্ষের ঘটনায় অস্ত্র বের করে নিয়াজুল ইসলামের বিন্দু পরিমাণ দোষ পেলে পদত্যাগ করবেন ঘোষণা দিয়েছেন এমপি শামীম ওসমান। তিনি আবারও বলেছেন, নিয়াজুলকে সেদিন হত্যার উদ্দেশ্যেই পেটানো হয়েছিল।

২১ জানুয়ারী রোববার রাতে বেসরকারী টিভি চ্যানেল যমুনা টিভির ‘২৪ ঘণ্টা’ শীর্ষক টক শো অনুষ্ঠানে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন। ওই অনুষ্ঠানে সঙ্গে আলোচক হিসেবে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার ও সিনিয়র সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমান।

শামীম ওসমান বলেন, আমাদের দেশের ৮৫ ভাগ মানুষ নিম্নবিত্ত। তাদের শীতের কাপড় কেনার ভরসার স্থল হলো ফুটপাত। কোন ধরনের নোটিশ ছাড়াই ফুটপাত থেকে হকারদের তুলে দেওয়া হয়েছে। তখন হকাররা আমার কাছে আসলে আমি বলেছিলাম আমার কিছু করার নাই। এটা সিটি করপোরেশন দেখবে। কিন্তু পরে সিটি করপোরেশনকে এমপি সেলিম ওসমান ডিও লেটার দিয়েছে যার জবাব এসেছে একজন কর্মচারীর কাছ থেকে। এতে সবাই ক্ষুব্ধ হয়েছে।

আইভী সম্পর্কে বলেন, আইভী আমার বোন যদিও সে আমাকে নিয়ে আমার পরিবারকে নিয়ে অনেক কথা বলে। কিন্তু গত নির্বাচনে সবকিছু মাটি দিয়ে তাকে জয়ী করিয়েছি। তার জন্য কাজ করেছি। কারণ আইভী সে আমার দলের প্রার্থী ছিল।

তিনি আরো বলেন, শামীম ওসমান বলেন, বিয়ে সাদি এগুলো সামাজিকতা। আমার একমাত্র ছেলে যিনি আইভীকে ফুফু বলে ডাকে তার বিয়ের দাওয়াত দিতে আমি অনেকের বাড়িতে যেতে পারি নাই। কিন্তু আমি আইভীর বাসায় গিয়েছিলাম তাকে ও তাঁর মাকে দাওয়াত দিতে। এক ঘণ্টা বাসার নিচে অপেক্ষার পরেও কেউ নিচে নেমে আসেনি। এক ভাই এসে কার্ড নিয়ে গেছে। বিয়েতে আসেনি যাননি এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। সে এখনো আমার বিরুদ্ধে কথা বলে।

শামীম ওসমান বলেন, এই আইভীর আইভীর উত্থানে তৈমূর ভাই ও বিএনপির অবদান আছে। প্রথমবার যখন পৌরসভার সময়ে এনেছে। দ্বিতীয় নির্বাচনে তৈমূর ভাইকে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর তৃতীয়বার আমরা আইভীকে জিতিয়েছি।

১৬ জানুয়ারীর ঘটনা প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, নিয়াজুলের অনেক ঘটনা মিডিয়াতে আসে নাই। বার বার নিয়াজুলকে শামীম ওসমানের লোক বলা হলো। নিয়াজুল হলো নজরুল ইসলাম সুইটের ছোট ভাই। বিগত বিএনপি সরকারের আমলে কারাগারে থাকা সুইটকে বাইরে এনে হত্যা করা হয়েছে। তার অপরাধ ছিল সুইট আওয়ামী লীগ করে ও বিএনপির সময়ে তাদের নেত্রীকে কালো পতাকা প্রদর্শন করেছিল। সেই সুইটের ভাই নারায়ণগঞ্জ ক্লাবে যাওয়ার সময়ে মিছিলের কারণে গাড়ি থেকে নেমে একা একা হেঁটে আসার সময়ে মিছিল থেকে তিনবার মাটিতে ফেলে ১০ মিনিট ধরে পেটানো হয়। চতুর্থবার বাধ্য হয়ে নিয়াজুল লাইসেন্স করা পিস্তল বের করে।

আইভী প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি জানি আইভী হাসপাতালে সিসিইউতে ভর্তি। তার হাইপারটেনশন। তাই তাকে দেখতে যাই না। তবে তার খোঁজ খবর আমি নিয়মিত নিচ্ছি।’

(প্রসঙ্গত দীর্ঘ প্রায় ৫০ মিনিটের টক শো হতে উল্লেখযোগ্য কিছু বক্তব্যকে প্রাধান্য দিয়ে সংবাদটি করা। এক লাইনের সঙ্গে পরের লাইনের মিল কখনো কখনো নাও থাকতে পারে। সে কারণে পুরো বক্তব্য শুনতে নিচে ভিডিওটি দেখুন।)

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সাক্ষাৎকার -এর সর্বশেষ