১২ বৈশাখ ১৪২৫, বুধবার ২৫ এপ্রিল ২০১৮ , ১০:৩৪ অপরাহ্ণ

Kothareya1150x300

রাজনীতি ও কারাগার-৭

অনুষ্ঠানে ধরে বিস্ফোরক মামলায় আসামী : আলতাফ


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২০ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০২:২০ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৮ শুক্রবার


অনুষ্ঠানে ধরে বিস্ফোরক মামলায় আসামী : আলতাফ

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে রয়েছেন। তার মুক্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালন করছে দলটি। খালেদা জিয়ার সাজা হবার আগে প্রায় নিয়মিতই বিভিন্ন মামলায় বকশিবাজারে অস্থায়ী আদালতে তিনি হাজিরা দিতেন। তার হাজিরা ও রায়কে কেন্দ্র করে জড়ো হওয়া বিএনপি নেতাকর্মীদের ধরপাকড় করে পুলিশ। এতে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা গ্রেফতার হন।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি রুপগঞ্জে একটি অনুষ্ঠান থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন তারাব পৌর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আলতাফ হোসেন। পরে তাকে রুপগঞ্জ থানার একটি নাশকতা ও বিস্ফোরক মামলায় আসামী হিসেবে দেখিয়ে আদালতে পাঠায় পুলিশ। প্রায় ১ মাস কারাগারে থাকার পর ৭ মার্চ মুক্তি পান তিনি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জের ‘রাজনীতি ও কারাগার’ শীর্ষক ধারাবাহিক সাক্ষাৎকারের সপ্তম পর্বে থাকছে কারাগার ও রাজনীতি নিয়ে আলতাফ হোসেনের সাথে আলোচনার কিছু চুম্বক অংশ।

প্রশ্ন : আপনি গ্রেফতার হলেন কবে এবং কিভাবে ?
আলতাফ হোসেন : ৭ ফেব্রুয়ারি আমাদের বাড়িতে একটি অনুষ্ঠান থাকার আমি বাড়িতেই ছিলাম। রাতে সাদা পোশাকে কিছু লোক আমাকে ধরে নিয়ে আসে কোন কারণ ছাড়াই।

প্রশ্ন : কোন মামলাতে গ্রেপ্তার হলেন?
আলতাফ হোসেন : কোন মামলায় গ্রেফতার হইনি বরং আমাকে ধরে এনে বিশেষ ক্ষমতা আইনে করা রূপগঞ্জ থানায় একটি বিস্ফোরক মামলায় আসামী বানানো হয়েছে। অনুষ্ঠান থেকে ধরে এনে আমাকে আসামি বানানো হয়।

প্রশ্ন : কারাগার থেকে বের হয়ে নিস্ক্রিয় মনে হচ্ছে আপনাকে, কারণ কি?
আলতাফ হোসেন : এখনো দল থেকে তেমন কোন সক্রিয় কর্মসূচী আসেনি এবং আমাদের দিক নির্দেশনা দেয়া হয়নি। নিস্ক্রিয় নয়, কর্মসূচী ও ডাক আসলেই রাজপথে দেখা যাবে আমাকে।

প্রশ্ন : কারাগারের দিনগুলি কেমন ছিল?
আলতাফ হোসেন : কারাগারের দিনগুলো কষ্টের ছিল কিন্তু সেখানে রাজনৈতিক অনেক কিছু শিখেছি। দলের অনেক সিনিয়র নেতারা সেখানে ছিলেন তাদের কাছ থেকেও অনেক কিছু শিখেছি। তবে কারাগার তো কারাগারই, সেখানে বিএনপি নেতাকর্মীরা সুখে নেই।

প্রশ্ন : রাজনীতি নিয়ে আপাতত ও আগামী পরিকল্পনা কি?
আলতাফ হোসেন : পরিকল্পনা যখনি ডাক আসবে আন্দোলনের মাঠে সক্রিয় হওয়া এবং আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করাই এখন একমাত্র লক্ষ্য।

প্রশ্ন : রাজপথে কি দেখা পাওয়া যাবে আপনার ও আপনাদের সহকর্মীদের?
আলতাফ হোসেন : অবশ্যই দেখা যাবে। রাজপথে বিগত সময়ে ছিলাম, রাজপথই আমাদের ঠিকানা। রাজপথেই আমরা থাকবো।

প্রশ্ন : নারায়ণগঞ্জে তো খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কোন মিছিলও হয়নি, কারণ কি বলে মনে করছেন?
আলতাফ হোসেন : দলীয় কিছু কোন্দলের কারণে নারায়ণগঞ্জে মিছিল হয়নি বলেই আমার মনে হয়,। তবে সকল কোন্দল নিরসন হয়ে খুব দ্রুতই রাজপথে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের দেখা পাওয়া যাবে বলে প্রত্যাশা করি।

প্রশ্ন : বিরোধী দলের রাজনীতিতে কারাগারে যেতেই হয়, আবারো যদি কারাগারে যেতে হয় সেক্ষেত্রে দলের হয়ে, দলের জন্য, দলের পক্ষে কাজ করবেন তো নাকি নিস্ক্রিয়ই থাকবেন?
আলতাফ হোসেন :  কারাগারে যাবার জন্য আমি সব সময় প্রস্তুত। এত বছরেও নির্যাতিত হয়ে আমরা এই দলের সাথেই ছিলাম আছি থাকবো। কারাগারে যেতে হলে যাবো, বিএনপির সাথেই থাকবো।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সাক্ষাৎকার -এর সর্বশেষ