১০ বৈশাখ ১৪২৫, মঙ্গলবার ২৪ এপ্রিল ২০১৮ , ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

Kothareya1150x300

কারাগার ভয় ছাত্রদল পায়না, রাজপথেই ফয়সালা : শাহেদ


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৩ পিএম, ৬ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০২:৪৩ পিএম, ৬ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার


কারাগার ভয় ছাত্রদল পায়না, রাজপথেই ফয়সালা : শাহেদ

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে রয়েছেন। তার মুক্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালন করছে দলটি। খালেদা জিয়ার সাজা হবার আগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি তিনি নারায়ণগঞ্জের উপর দিয়ে সিলেট যান। তার সফর ও রায়কে কেন্দ্র করে গত ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে নারায়ণগঞ্জে ধরপাকড় শুরু করে পুলিশ। এতে দলের প্রায় অর্ধ শতাধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার হন।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জে একটি বিল থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক শাহেদ আহমেদ। পরে তাকে রুপগঞ্জ থানার একটি নাশকতা ও বিস্ফোরক মামলাসহ একাধিক মামলায় আসামী হিসেবে দেখিয়ে আদালতে পাঠায় পুলিশ। ৫৪ মাস কারাগারে থাকার পর ৫ এপ্রিল সকালে কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান তিনি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জের ‘রাজনীতি ও কারাগার’ শীর্ষক ধারাবাহিক সাক্ষাৎকারের অষ্টম পর্বে থাকছে কারাগার ও রাজনীতি নিয়ে শাহেদ আহমেদের সাথে আলোচনার কিছু চুম্বক অংশ।

প্রশ্ন : আপনি গ্রেফতার হলেন কবে এবং কিভাবে ?
শাহেদ আহমেদ : আমি গত ১০ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জে আমার গ্রামের বাড়িতে যাই একটি ব্যক্তিগত কাজে। সেখান থেকে কোন কারণ ছাড়াই রাতে পুলিশ আমাকে ধরে নিয়ে আসে। পরে বিভিন্ন নাশকতা ও বিস্ফোরক মামলায় আমাকে আসামী করা হয় অথচ আমি এসব ব্যাপারে কিছুই জানি না।

প্রশ্ন : কোন মামলাতে গ্রেপ্তার হলেন?
শাহেদ আহমেদ : রূপগঞ্জে একটি মিছিল থেকে নাশকতার চেষ্টা ও সেখানে বিস্ফোরক দ্রব্য ককটেল উদ্ধারসহ বিভিন্ন ঘটনার উল্লেখ করে সাজানো একটি মামলায় আমাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূলত ছাত্রদলের রাজনীতি করার কারণেই এই গ্রেফতার এখানে মামলা কোন বিষয় না।

প্রশ্ন : কারাগার থেকে বের হয়ে নিস্ক্রিয় মনে হচ্ছে আপনাকে, কারণ কি?
শাহেদ আহমেদ : দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলাম। কিছুটা ক্লান্ত, কিছুটা অসুস্থ। আজই মাত্র বের হলাম। সুস্থ হই, একটু বিশ্রাম নেই। সক্রিয় অবশ্যই হবো, নিস্ক্রিয় থাকার কোন কারণ নেই।

প্রশ্ন : কারাগারের দিনগুলি কেমন ছিল?
শাহেদ আহমেদ : কারাগারের দিনগুলি ছিল খুবই দুর্বিষহ। তবে যেখানে আমাদের নেত্রী কারাগারে আছেন সেখানে আমাদের কোন কষ্ট হয়নি। তবে আমরা তো রাজবন্দি কোন সন্ত্রাসী নয় তবুও আমাদেরকে রাখা হয়েছে মাদক ব্যবসায়ী, খুনীদের সাথে। এটিই সবচেয়ে কষ্টকর ছিল।

প্রশ্ন : রাজনীতি নিয়ে আপাতত ও আগামী পরিকল্পনা কি?
শাহেদ আহমেদ : পরিকল্পনা একটিই আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে একটি অবাদ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের ৯০ ভাগ জনসমর্থনের দল বিএনপিকে ক্ষমতায় এনে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জাতিকে উপহার দেয়া।

প্রশ্ন : রাজপথে কি দেখা পাওয়া যাবে আপনার ও আপনাদের সহকর্মীদের?
শাহেদ আহমেদ : অবশ্যই দেখা যাবে। রাজপথে বিগত সময়ে ছিলাম, রাজপথই আমাদের ঠিকানা। রাজপথেই আমরা থাকবো। যারা রাজপথে না থেকে ঘরে বসে থাকবে তাদেরও মুক্তি হবেনা, আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে এই স্বৈরাচারী সরকারের হাত থেকে মুক্তি একমাত্র পথ হচ্ছে রাজপথ।

প্রশ্ন : নারায়ণগঞ্জে তো খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কোন মিছিলও হয়নি, কারণ কি বলে মনে করছেন?
শাহেদ আহমেদ : মুক্তির মিছিল হবে, ছাত্রদলের নেতাকর্মীরাই মিছিল করবে। কে থাকলো কে থাকলোনা সেটি দেখার বিষয় না। ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা জীবন থাকতে রাজপথ ছেড়ে যাবেনা। আন্দোলনের মাধ্যমেই জনগনের সকল দাবি আদায়ে ছাত্রদল রাজপথে থাকবে।

প্রশ্ন : বিরোধী দলের রাজনীতিতে কারাগারে যেতেই হয়, আবারো যদি কারাগারে যেতে হয় সেক্ষেত্রে দলের হয়ে, দলের জন্য, দলের পক্ষে কাজ করবেন তো নাকি নিস্ক্রিয়ই থাকবেন?
শাহেদ আহমেদ : কারাগারে যাবার জন্য আমি সব সময় প্রস্তুত। এত বছরেও নির্যাতিত হয়ে আমরা এই দলের সাথেই ছিলাম আছি থাকবো। কারাগারে যেতে হলে যাবো, ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা কারাগারকে ভয় পায়না। সরকার কারাগারে রেখে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মনোবল আরো চাঙ্গা করছে। নেতাকর্মীরা এখন আরো ঐক্যবদ্ধ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সাক্ষাৎকার -এর সর্বশেষ