নির্বাচন নিয়ে যা বললেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতারা

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০৬ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৮ রবিবার



নির্বাচন নিয়ে যা বললেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতারা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি। এমনটাই ঘোষণা দিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় ঐক্যজোট। দুটি অংশেই প্রধান দল হিসেবে রয়েছে বিএনপি। এদিকে বিএনপির নির্বাচনী ঘোষণায় নড়েচড়ে বসেছে দলের নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ও জেলা মহানগর বিএনপি এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। দ্রুত লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের প্রত্যাশা করে মাঠে নির্বাচনী নামার প্রস্তুতিও রয়েছে তাদের।

১২ নভেম্বর সোমবার থেকে দলীয় মনোনয়ন বিক্রি শুরু করবে দলটি। দলের নয়াপল্টন কার্যালয় থেকে ৫ হাজার টাকা ও অফেরতযোগ্য ২৫ হাজার টাকা দিয়ে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ফর্ম কিনতে পারবেন।

নির্বাচন নিয়ে কথা হয় নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী বিভিন্ন হেভিওয়েট প্রার্থী ও দলের জেলা মহানগরের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে। আলাপকালে নিজেদের অবস্থান ও নির্বাচন নিয়ে নেতারা তুলে ধরেন তাদের অবস্থান।

সকলের কাছেই প্রশ্ন ছিল বর্তমান মামলা, গ্রেফতার অভিযান, নেতাকর্মীদের আত্মগোপনে থাকা ও প্রতিটি আসনে আওয়ামীলীগের অবাদ প্রচারণা সভা সমাবেশের মধ্যেই নির্বাচনের যাবার ঘোষণা দিয়েছে দল, এমন অবস্থায় নির্বাচনের পরিবেশ ও এলাকায় পরিবেশ বুঝে নেতাকর্মীরা কি নির্বাচনের মাঠে কাজ করতে পারবে কিনা?

নির্বাচনে মনোনয়নের ব্যাপারে নেতারা কতটা প্রত্যাশী এবং নির্বাচনের কেন্দ্রে শেষ পর্যন্ত দলের নেতাকর্মীরা অবস্থান করতে পারবে কিনা? নেতারাও নিজেদের মত করে প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।

দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি রুপগঞ্জের অন্যতম নেতা তৈমুর আলম খন্দকার নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘‘এদেশে জুলুম অত্যাচার নির্যাতন যা করেছে তা আওয়ামীলীগ করেছে। জণগনের কাছে তাদের কোন গ্রহণযোগ্যতা নেই। তারা নির্বাচন নিয়ে রুপগঞ্জে খুনাখুনিও করেছে। আমাদের দলের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ। আমরা আমাদের নেত্রীকে মুক্ত করতে এই নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি এবং আমরা শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবো। আমি মনোনয়ন নিয়ে দৌড়ঝাপে নেই, দল যেভাবে করবে সেভাবেই আমি আছি।’’

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের প্রভাবশালী নেতা ও দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য দিপু ভূইয়া নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘নির্বাচনের জন্য এখনো যে সময় রয়েছে তাতেই যদি নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ থাকে তাহলে আমাদের পক্ষে কোন সমস্যা হবেনা। মানুষ আমাদের পক্ষে রয়েছে। ইতোমধ্যে প্রচার প্রচারণা নির্বাচনী সভা সমাবেশ আওয়ামীলীগ করলেও আমাদের এ সময়ে কোন সমস্যা হবেনা আশা করছি। দলের জন্য কাজ করার করেছি আর করবো। দল যদি আমাকে যোগ্য মনে করে তাহলে দিবে। দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনের শেষ সময় পর্যন্ত মাঠে থাকতে বদ্ধ পরিকর।’

দলের কেন্দ্রীয় সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও আড়াইহাজারের প্রভাবশালী নেতা নজরুল ইসলাম আজাদ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আড়াইহাজারের অবস্থা খুবই খারাপ। সেখানে একচ্ছত্র সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে রেখেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য। এ ছাড়া পুলিশের গায়েবি মামলা ও গ্রেফতার অভিযানে আড়াইহাজারে বাড়িতেও থাকতে পারছেন না বিএনপির নেতাকর্মীরা। তবে নির্বাচনে যাবার সিদ্ধান্তে নেতাকর্মীরা চাঙ্গা রয়েছে। সকল প্রতিকূলতার মধ্যেও দলের নেতাকর্মীরা শেষ সময় পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকবে।’

আজাদ বলেন, ‘দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী কারণ বিগত দিনে আমি রাজপথের নেতাকর্মীদের পাশে থেকেছি, তাদেরকে সব ধরনের সহায়তা করেছি কিন্তু কেউ ছিলনা এসময় মাঠে। দলের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে আমরা প্রস্তুত কারণ এই নির্বাচন আমাদের নেত্রীর মুক্তির আন্দোলনের অংশ হিসেবেই।’

সোনারগাঁ বিএনপি নেতা ও সাবেক যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ওয়ালিউর রহমান আপেল নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমরা আলোচনা করে একটা পর্যায়ে পৌছাচ্ছি। আমাদের নেতাকর্মীরা এলাকায় থাকতে পারেনা এই অবস্থায় তো নির্বাচনের লেভেল প্লেইং ফিল্ড নেই। এভাবে নির্বাচনের জন্য আসলে কাজ করা মুশকিল তবে আমরা প্রস্তুত। নির্বাচনে নামলে আমাদেরকে এবার জনগনই বৈতরণী পার করে দেবে। আমি মনোনয়ন পাই কিংবা না পাই দলের জন্য আমি কাজ করতে প্রস্তুত।’

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সোনারগাঁ বিএনপির অন্যতম নেতা এটিএম কামাল নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, প্রথম আমরা নিজেদের রক্ষা করবো। জেলমুক্ত কারামুক্ত করা নেতাকর্মীদের। মামলা লড়তে সহযোগিতা করা এবং নেতাকর্মীদের কিভাবে নিরাপদ রাখা যায় তা চিন্তা করছি। আমাদের আগামীর কর্মসুচী নিয়েও আমরা ভাবছি এবং নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা সব কিছু পালন করবো। আন্দোলন ও নির্বাচন একসাথে চলবে।

কামাল আরো বলেন, ‘গায়েবি মামলায় যারা জর্জরিত তাদের আইনি সহায়তার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা আমাদের চলছে। পরিস্থিতি বুঝেই আমরা আমাদের করণীয় আমরা সময় সময় অবস্থা বুঝে পরিবর্তন করবো। সোনারগাঁয়ে আমি মনোনয়নের জন্য আমি দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করছি। আমি সোনারগাঁয়ের উন্নয়নের জন্য সব সময় সোনারগাঁবাসীর পাশে আছি ছিলাম। নির্বাচন এর একটা অংশ কিন্তু আমার ভালোবাসার স্থান সোনারগাঁ। কাজ করেছি করছি, এখন দল মূল্যায়ন করবে প্রত্যাশা করি। আমি একসাথে মহানগর বিএনপির দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সোনারগাঁবাসীর সুখে দুখে দুর্যোগে সব সময় পাশে থেকে আসছি। আগামীতেও নির্বাচনের সময় আমার দুই দায়িত্ব একসাথে পালন করতে সমস্যা হবেনা। আমাকে মনোনয়ন দেয়া না হলে নারায়ণগঞ্জবাসী কষ্ট পাবে।’

কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির সহ সভাপতি সোনারগাঁ বিএনপির প্রভাবশালী নেতা আজহারুল ইসলাম মান্নান নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমাদের যেসব মামলা রয়েছে সেগুলি উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়েছি। সোনারগাঁয়ের সকল নেতাকর্মীদের মামলা থেকে আমরা জামিনের ব্যবস্থা করেছি বাকি যেগুলি আছে সেগুলোও জামিন হয়ে যাবে। নির্বাচনের জন্য আমরা প্রস্তুত এবং যেকোন অবস্থায় সোনারগাঁয়ে নির্বাচনের মাঠে থাকবে নেতাকর্মীরা।’

তিনি আরো বলেন, ‘নির্বাচনে মনোনয়নের ব্যাপারে আমরা শতভাগ প্রত্যাশী। আমরা কাজ করেছি মামলা খেয়েছি নির্যাতিত। সোনারগাঁবাসীকে আর মামলা হামলার ভয় দেখিয়ে লাভ নেই। আমরা আর মামলা হামলাকে ভয় পাইনা।’

মহানগর যুবদলের সভাপতি ও সদর বন্দর আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘‘বিএনপি নির্বাচনে গেলেও সরকার চায়না বিএনপি নির্বাচন করুক। তারা চায় বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে আসুক এবং আবারো তারা একতরফা নির্বাচন করুক। নির্বাচনে মনোনয়নের ব্যাপারে আমি প্রত্যাশী। দল যাকে মনোনয়ন দিবে তার হয়েই আমরা কাজ করবো এবং নির্বাচনের শেষ সময় পর্যন্ত মাঠে থাকবো।’’

তিনি আরো বলেন, ‘মহানগর যুবদলের পক্ষ থেকেও দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনে নিজেদের সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত। দলের প্রার্থীদের জয়ের জন্য সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী ভোটগ্রহণ করা হবে ২৩ ডিসেম্বর। সংসদ নির্বাচনের মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ সময় ১৯ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২২ নভেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৯ নভেম্বর। আর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২৩ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ৩০ নভেম্বর।


বিভাগ : সাক্ষাৎকার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

এই বিভাগের আরও