rabbhaban

রোজার পরে পূজা : নজির স্থাপনে এসপি হারুন


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৪:০২ পিএম, ০৬ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার
রোজার পরে পূজা : নজির স্থাপনে এসপি হারুন

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ। পুলিশ সুপার হিসেবে তিনি নারায়ণগঞ্জে যোগদানের পর থেকেই একের পর এক ঘটনায় আলোড়ন সৃষ্টি করে যাচ্ছেন তিনি। পুলিশ প্রশাসন সচরাচর অপরাধ দমনমূলক কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও সরাসরি সামাজিক কার্যক্রমে তাদের তেমন একটা ভূমিকা রাখার সুযোগ থাকে না। তবে এবারের নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ সেই ধারাবাহিকতা ভেঙ্গে অপরাধ দমনের পাশাপাশি সামাজিক কাজেও অবদান রাখছেন। ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল উৎসবেই অসহায় মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসছেন তিনি। আর তার এসকল কর্মকান্ডে নারায়ণগঞ্জে অনন্য নজির স্থাপন করে যাচ্ছেন পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ।

জানা যায়,  ৫ অক্টোবর দুপুরে চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে হিন্দু ধার্মালম্বী সহায় সম্বলহীন মানুষের মাঝে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। যা নারায়ণগঞ্জে এই প্রথম। যদিও পুলিশ প্রশাসনের বস্ত্র বিতরণ করা বড় কোনো ঘটনা নয়। তবে এই বস্ত্র বিতরণের মধ্য দিয়ে তাদের প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে সহায় সম্বলহীন মানুষের সহযোগিতায় বিত্তশালীদের এগিয়ে আসা।

ওই বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বস্ত্র বিতরণ করা নারায়ণগঞ্জ পুলিশ প্রশাসনের একটি চমৎকার উদ্যোগ। এবারই প্রথম পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে দূর্গাপূজা উপলক্ষ্যে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। একই সাথে খ্রিষ্টানদের বড় দিনের উৎসবেও পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ কেক সহ উপহার সামগ্রী পাঠিয়েছিলেন। যদিও তুলনামূলকভাবে এগুলো বেশি কিছু না। তবে এটার ম্যাসেজ কিন্তু অনেক ভারী।

একই সাথে নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার বলেন, এবারই প্রথম হিন্দু ধর্মালম্বীদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। যা অন্য কোন সময় হয়ে উঠেনি। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। তিনি সকলের নজর কেড়ে নিয়েছেন।

এদিকে গত ৪ অক্টোবর একটি বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের উপস্থিতিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি সংকর সাহা বলেছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ একজন ব্যতিক্রম পুলিশ সুপার। নারায়ণগঞ্জে এর আগে যারা দায়িত্ব পালন করেছিলেন তারাও ভাল ছিলেন। তবে ভালোর মধ্যে কিছু ব্যতিক্রম থাকে। পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের কোন তুলনা হয় না।

এর আগে গত ১ জুন এবারই প্রথম নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের উদ্যোগে চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে অসহায় গরীব ও দুঃস্থদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছিল। ঈদ বস্ত্র বিতরণ করতে গিয়ে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেছিলেন, ব্যবসায়ীরা যদি এগিয়ে আসেন তাহলে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ যারা গরিব কষ্ট করে দিনযাপন করে তাদের জন্য কষ্টের লাঘব হবে। আমরা এই কারণে গরীব মানুষের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করছি। আমরা মনে করি আমাদের পুলিশ সবসময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে আবার পাশাপাপশি যারা গরিব তাদের পক্ষে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করবে। প্রতি বছরই আমরা গরীব মানুষের পাশে দাঁড়াই। শীতের সময় শীতবস্ত্র বিতরণ করি। ঈদ উপলক্ষে যাদের কাপড় নেই তাদের মাঝে কাপড় বিতরণ করছি। হয়তো আমরা সবাইকে দিতে পারবো না। তারপরেও আমরা চেষ্টা করছি গরীব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।

হিন্দু ধর্মালম্বীদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করতে এসে এসপি হারুন বলেন, নারায়ণগঞ্জে কতদিন থাকি জানি না। তবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রত্যেকবারই মনে হয় সামনে কোন পূজা বা উৎসব পর্যন্ত থেকে যেতে পারলে ভাল হতো। প্রত্যেক উৎসব কেন্দ্রে করে সকলের সাথে কথা বলা যায়। এটা অনেক আনন্দের।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের এসকল ভূমিকায় তিনি নারায়ণগঞ্জে অনন্য নজির স্থাপন করে যাচ্ছেন। নারায়ণগঞ্জবাসী হারুন অর রশিদের মতোই একজন পুলিশ সুপার চান। দেশের প্রত্যেক জেলায় হারুনের মতো এসপি হলে অপরাধীদের সংখ্যা অনেক কমে যাবে এবং একই সামাজিক কর্মকান্ডও বৃদ্ধি পাবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর