ইয়াবার ৫০০ টাকা আত্মসাতে কিলিং মিশনে ৫ জন


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:০২ পিএম, ১৫ মার্চ ২০২০, রবিবার
ইয়াবার ৫০০ টাকা আত্মসাতে কিলিং মিশনে ৫ জন

নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগের হাকিম মার্কেট এলাকার একটি পরিত্যক্ত দোকানে যুবকের লাশ উদ্ধারের ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ওই ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত দুইজন আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছেন ৫০০ টাকা আত্মসাতের উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে ৫জন মিলে ওই যুবককে হত্যা করেছে।

নির্মম হত্যাকান্ডের শিকার যুবকের নাম হাসিব (২০)। সে ফতুল্লা মডেল থানার হোসাইনি নগর এলাকার কাদের মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া ইকবাল হোসেনের ছেলে।

গত ৮ মার্চ রাতে অজ্ঞাত লাশ হিসাবে শহরের দেওভোগ রাসেল পার্ক সংলগ্ন হাকিম মার্কেটের ২য় তলা একটি পরিত্যক্ত কক্ষ থেকে উদ্ধার করা হয়। ওই সময়ে পুলিশ জানান হাসিবকে লাশ উদ্ধারের ১০ থেকে ১২দিন আগেই হত্যা করা হয়েছিল।

পরে মামলার তদন্তের দায়িত্ব পালন করেন সদর মডেল থানার এসআই আব্দুস শফিউল আলম। তিনি নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, রোববার ভোরে শহরের পাইকপাড়া এলাকা থেকে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে শাওন (১৯) ফতুল্লা থানাধীন ফরাজিকান্দ এলাকার আমজাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুল মান্নানের ছেলে ও মো. বাবু (২০) একই থানার পাইকপাড় আলবারাকা এলাকার শুক্কুর আলীর ছেলে।

বিকেলে পৃথকভাবে ঘাতক শাওন নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ূন কবীরের আদালত ও ঘাতক মো. বাবু মোহাম্মদ কাউছার আলমের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করে।

এস আই শাফিউল আলম নিউজ নারায়ণগঞ্জকে আরো জানান, আদালতে ঘাতকেরা জানিয়েছে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে ইয়াবা ক্রয় করতে শাওন ও বাবু সহ ৫ জন মিলে ৫০০ টাকা দেয় হাসিবকে। পরে হাসিব ইয়াবা না দিয়ে টাকা আত্মসাৎ করে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ৫জন মিলে হত্যার পরিকল্পনা করে। হাসিবকে বাবুরাইলেরন একটি মেলা থেকে তুলে নিয়ে প্রথমে বাবুরাইল একটি মাঠে নিয়ে মারধর করে। পরে রাত ১২টার দিকে হাকিম মার্কেটের পরিত্যক্ত দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষে নিয়ে সবাই মিলে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে করে ডেকে রেখে যালিয়ে যায় তারা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর