rabbhaban

সাবদী বিনোদন পার্কে শিক্ষার্থীদের পাওয়া যায়


বন্দর করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:২২ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
সাবদী বিনোদন পার্কে শিক্ষার্থীদের পাওয়া যায়

বন্দর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী সালিমা হোসেন শান্তা বলেছেন, আপনাদের ছেলে মেয়েরা স্কুল ও কলেজের ড্রেস পড়ে কোথায় যাচ্ছে? খবর নিন ওরা কি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাচ্ছে না অন্যত্র কোথাও? ১৫ থেকে ২০দিন আগে বন্দর উপজেলার ইউএনও নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে সাবদী বিনোদনের পার্ক থেকে চুলে রঙ লাগানো ছেলেদের সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ড্রেস পরিহিত মেয়েদের হাতে নাতে পাওয়া গেছে। তাদের কাছ বিভিন্ন আপত্তিজনক মোবাইলে ভিডিও পাওয়া গেছে। তাই এখন খোঁজ নিন ছেলে মেয়েরা স্কুল কলেজের নামে কোথায় কি করেন।

মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর বিকাল ৪টায় মদনগঞ্জ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের কমিউনিটি সেন্টারে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড নিতাইগঞ্জ শাখার পল্লী উন্নয়ন প্রকল্পের আয়োজনে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ঢাকা ইস্ট জোনের হেড অব জোন মোহাম্মদ উল্লাহ, বিশেষ অতিথি বন্দর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী সালিমা হোসেন শান্তা, নাসিক ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফয়সাল মো. সাগর ও সমাজসেবক জয়নাল আবেদীন সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রায় ১২শ অধিক গাছের চারা বিতরণ করেছেন। এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। পরে ৪টি স্পটে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী উদ্বোধনের মাধ্যমের সকলের মধ্যে গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ঢাকা ইষ্ট জোনের হেড অব জোন মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ প্রথম করদাতা। প্রতিটি ব্যাংকের কাজে ১৫ শতাংশ ভ্যাট দেয় হয়। এই ব্যাংকের লোনের মাধ্যমে দেশের অসংখ্য বহুতল ভবন হয়েছে। ব্যাংকের পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প হচ্ছে দেশের দারিদ্র্য থেকে মুক্ত রাখা। এই ব্যাংক ২৪ বছর যাবৎ মানুষদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প সদস্য হতে স্বাক্ষর দিতে হয় গ্রাহকদের। শিক্ষা থেকে নিরিক্ষ মুক্ত করে গ্রাহক হয়ে ব্যাংকের বিভিন্ন সেবা নিচ্ছে। ব্যাংকের অর্থায়নে প্রশিক্ষণ নিয়ে গ্রাহকরা কৃষি সহ বিভিন্ন কাজ মুরগী মাছ জুতা তলি বানাচ্ছে। ব্যাংক থেকে সারা বছর ব্যাপী কাজ করছে মহিলারা। দেশের দারিদ্র মহিলাদের এগিয়ে আনা হচ্ছে, তার কাছে টাকা থাকতে হবে। স্বামী এখন স্ত্রীদের মূল্যায়ণ করছে, কারণ ব্যাংকের মাধ্যমে মহিলা আর্থিক স্বাভলম্বি হচ্ছে। এই বছর সারা দেশে ১২ লাখ গাছ লাগানো হচ্ছে। এ পর্যন্ত প্রায় ১কোটি চারা বিতরণ করেছি, রক্ষণাবেক্ষণ না করলে আমাদের স্বার্থকতা থাকবে না। গাছ লাগিয়ে অর্থ উপাজন ও ছেলে মেয়েদের বিয়েতে কাজে লাগান।

নাসিক ১৯নং কাউন্সিলর ফয়সাল মোঃ সাগর বলেন, গাছ মানুষদের অক্সিজেন দেয়। সেই গাছ এখন বিনামূল্যে জনগণের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে। ইসলামী ব্যাংকের সকলকে ধন্যবাদ জানায়, তারা বিনামূল্যে গাছ বিতরণ করছেন। গাছ লাগান জীবন বাচাঁন স্লোগানে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে সকলের দায়িত্ব।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর