ব্যবসায়ীদের খাতা নিয়ে টানাটানি করবেন না : সেলিম ওসমান


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৫:২০ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার
ব্যবসায়ীদের খাতা নিয়ে টানাটানি করবেন না : সেলিম ওসমান

শুধু টিন করলেই হবেনা ঠিক মত ট্যাক্স প্রদান এবং নিয়মিত আয়কর রিটার্ন জমা দিতে সকলের প্রতি অনুরোধ রেখেছেন ব্যবসায়ী নেতা ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। সেই সাথে ব্যবসায়ীদের খাতা পত্র টানাটানি না করে তাদেরকে উদ্ধুদ্ধ করে কর প্রদানে আগ্রহী করতে কর কর্মকর্তাদের প্রতি অনুরোধ রেখেছেন তিনি। প্রয়োজনে নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের সাথে আলোচনা সভা করার পরমার্শ দিয়েছেন তিনি।

বুধবার ১৩ নভেম্বর দুপুর ১২টায় নারায়ণগঞ্জে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রুটে অবস্থিত আমন্ত্রন কনভেনশন সেন্টারে করমেলা ২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠান বুঝিয়ে দিচ্ছে ট্যাক্স দিলে সম্মান পাওয়া যায়। আল্লাহ আমাদের একটা সুযোগ দিয়েছেন আমাদের টাকা ও গহনের আড়াই পার্সেন্ট যাকাত দিলে যেমন ফরজ আদায় হয়। ঠিক তেমনি আপনার আয়ের ট্যাক্স প্রদান করলে দেশের উন্নয়নে অংশ নেওয়া হয়, সম্মান পাওয়া যায়। তবে এ বিষয়ে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

সেলিম ওসমান আরো বলেন, শুধু টিন থাকলেই হবেনা ঠিক মত ট্যাক্স প্রদান করতে হবে। নিয়মিত আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হবে। ক্ষুদ্র্র ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ধ্বংস না করে তাদেরকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। আয়কর মেলা শুরু দিকে এই নারায়ণগঞ্জে আমরা প্রায় ৫ হাজার মানুষ জড়ো হয়ে তৎকালীন অর্থমন্ত্রীর কাছে নারায়ণগঞ্জে ট্যাক্স অফিস স্থাপনের দাবী করেছিলাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের সেই দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জে ট্যাক্স অফিস দিয়েছেন। কিন্তু আজ শুনে কষ্ট লাগছে যে নারায়ণগঞ্জে একটি জমির অভাবে ট্যাক্স অফিসের ভবন হচ্ছেনা। এটা হতে পারেনা। আপনারা আমার কাছে প্রস্তাবনা দেন প্রয়োজনে আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে দাবী রাখবো। আর এমন মেলা ছোট পরিসরে না করে আরো বিশাল আকারে আয়োজনের অনুরোধ রাখবো। প্রয়োজনে আপনারা নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ীদের কাছে সহযোগীতা চাইবেন। নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ীরা আপনাদের শতভাগ সহযোগীতা করবে। এখানে আমাদের ৪৩টি ব্যবসায়ী সংগঠন রয়েছে এর মধ্যে ৯টি জাতীয় ভিত্তিক সংগঠন সবাই আপনাদের সহযোগীতা করবেন। আর আমরা নারায়ণগঞ্জের যে পরিবার ট্যাক্স প্রদান করে থাকি সেই পরিমান কাঙ্খিত সুবিধা আমরা পাচ্ছিনা। আমি সকল ব্যবসায়ীদের কাছে অনুরোধ রাখবো আপনারা আপনাদের ট্যাক্সটা নারায়ণগঞ্জ অফিসে প্রদান করবেন এবং সরকারের কাছে দাবী থাকবে আমাদের প্রদান করা ট্যাক্সের সুবিধা পুরোটাই যেন আমরা নারায়ণগঞ্জের মানুষ ভোগ করতে পারি।

এ বছর নারায়ণগঞ্জের মহিলা করদাতাদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন এমপি সেলিম ওসমানের সহধর্মিনী মিসেস নাসরিন ওসমান আর তরুণ করদাতাদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ করদাতার পুরস্কার পেয়েছেন তাঁর ভাতিজা অয়ন ওসমান।

বক্তব্যের শুরুতে তিনি ভাতিজা অয়ন ওসমানকে মঞ্চে ডেকে তুলে পাশে দাঁড় করান। এ সময় তিনি বলেন নারায়ণগঞ্জের তরুণ সমাজ যাতে করে উদ্বুদ্ধ হয় অয়নকে দেখে যেন তারাও ট্যাক্স প্রদানে আগ্রহী হয়। আমি নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতিকে অনুরোধ করবো যাতে করে নারায়ণগঞ্জের তরুণ সমাজ করপ্রদান আগ্রহী হয় সেজন্য অয়ন ওসমানকে চেম্বারে একটি জায়গা করে দিবেন যেখান থেকে সে তরুনদের উদ্ধুদ্ধ করতে পারবে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা আজকের অনুষ্ঠানটির কথা সবার কাছে তুলে ধরবেন। শুধু একটি মেলা হয়েছে আর কে কে উপস্থিত ছিলেন সেটা না করে যাতে এই মেলার উদ্দেশ্য এবং এর সুবিধা ও উপকারীতা প্রতি ঘরে ঘরে পৌছায় এমন করে প্রতিবেদন প্রকাশ করবেন। প্রয়োজন আয়কর কর্মকর্তার সাথে কথা বলে উনার সাক্ষাতকার নিয়ে এই মেলার উদ্দেশ্য এবং দেশের উন্নয়নের ভূমিকা বিস্তারিত তুলে ধরতে আমি নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিকদের প্রতি বিনীতি অনুরোধ রাখলাম।

তিনি আরো বলেন, নারায়ণগঞ্জে একটি ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু যেহেতু সেখানে আইনজীবীরা যেতে চাচ্ছেন না তাই আমি সেই ভবনে ওয়ানষ্টপ সার্ভিস চালু করার জন্য আবেদন করে ছিলাম। যেখানে গেলে নারায়ণগঞ্জের মানুষ কর, ট্যাক্স, বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল, গ্যাস বিল সহ যাবতীয় যত প্রয়োজনী সুবিধা রয়েছে সব একটি জায়গা পেতে পারে। এই বিষয়টি ভালভাবে তুলে ধরতে হবে।

জেলার শ্রেষ্ঠ মহিলা করদাতার পুরস্কার পাওয়া মিসেস নাসরিন ওসমান তাঁর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, আমি গত কয়েক বছর ধরে শ্রেষ্ঠ করদাতার সম্মাননা পাচ্ছি এটা অবশ্যই আমার জন্য আনন্দের। কিন্তু এর থেকে আমি বেশি গর্বিত যে আমি যে কর দিয়েছি সেটা দেশের উন্নয়নে কাজে লাগবে। দেশের উন্নয়নের অংশীদার হতে পেরে আমি নিজেকে গর্বিত মনে করছি। যে সকল নারীরা ব্যবসা পরিচালনা করেন আমি তাদের সহ সকলের কাছে অনুরোধ রাখবো আপনারা আপনাদের আয়টা লুকিয়ে রাখবেন না। আপনারা সঠিক ভাবে কর প্রদান করবেন। তাহলে দেখবেন দেশ অনেক এগিয়ে যাবে আপনারা নিজেরাই সম্মানিত হবে। আমি নারী-পুরুষ সকল ব্যবসায়ীদের জন্য আল্লাহ কাছে দোয়া প্রার্থনা করি উনারা যেন ভাল ভাবে নিজেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে পারেন। সঠিক ভাবে কর প্রদান করতে পারেন।

আরো উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সাবেক নারী সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) রেহেনা আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদি ইমরান সিদ্দিক, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর