অনাহারীর পাশে চা দোকানদার, উপহার দিলেন ইউএনও


ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৩৪ পিএম, ২৫ এপ্রিল ২০২০, শনিবার
অনাহারীর পাশে চা দোকানদার, উপহার দিলেন ইউএনও

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এক চায়ের দোকানদার নিজের অল্প সামর্থ্য দিয়ে অনাহারী ২০টি পরিবারে মাঝে গোপনে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। সেই সংবাদ প্রকাশিত হবার পর এটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিকের নজরে আসে। পরে তিনি নিজে সেই দোকানদারকে খুঁজে বের করে তাকে ইফতার সামগ্রী ও খাদ্য সামগ্রী উপহার হিসেবে দিয়ে আসেন।

শনিবার (২৫ এপ্রিল) বিকেলে সদর উপজেলার ফতুল্লার পশ্চিম সস্তাপুরে সেই চা দোকানী শহীদুল ইসলাম ও তার পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী পৌছে দেন ইউএনও নাহিদা বারিক।

শহীদুল ইসলাম কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার গুনাইনগাছ দক্ষিণ পাড়া গ্রামের জয়নাল মিয়ার পুত্র। বর্তমানে সে ফতুল্লার মধ্য সস্তাপুরস্থ শাজাহান মিয়ার ভাড়াটিয়া।

ইউএনও নাহিদা বারিক জানান, আমি সংবাদে দেখতে পেয়েছি একজন চা বিক্রেতা তার প্রতিবেশী অনাহারীদের খাবার দিয়ে এগিয়ে এসেছেন। এতে আমি দ্রুত তার খবর নিয়ে তাকে কিছু উপহার সামগ্রী দিয়ে আসি এবং আগামীতে তাদের খাদ্য সামগ্রী শেষ হয়ে গেলে এবং যেকোন সমস্যায় সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করতে জানিয়ে এসেছি।

এদিকে শহীদুলের পরিবার এই উপহার সামগ্রী পেয়ে খুশি হয়েছেন এবং ইউএনও এর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও সংবাদ মাধ্যমের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। পাশাপাশি সাংবাদিকদের ও ইউএনওকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

শহীদুলের এই মহৎ কাজের ব্যাপারে তার সাথে আলাপকালে সে জানায়, আমি অত্যন্ত গরীব। চা দোকানটাই আমার আয়ের উৎস। লক ডাউনের কারণে আমার উপার্জন প্রায় বন্ধ, আমি অভাবের মধ্যেই বড় হয়েছি। অভাব ও অনাহার কাকে বলে আমি জানি। স্ত্রী ও ৯ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধি একমাত্র ছেলে রেজাউলকে নিয়ে আমার একটা ছোট্ট সংসার রয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে আগামী ১৫দিন পর আমার চুলা জ্বলবে কিনা সন্দেহ। তবুও আশেপাশের অনাহারী মানুষের জন্য বিবেকের তাড়নায় আমি এ উদ্যোগ গ্রহণ করি। আমাকে আল্লাহ্ দেখবেন। আর আজই ইউএনও মহোদয় আমার এখানে এসেছেন খাবার সামগ্রী নিয়ে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর