এবার মা ও নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন ‘মানবতার মা’ দিনা


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৫:৫২ পিএম, ১৮ মে ২০২০, সোমবার
এবার মা ও নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন ‘মানবতার মা’ দিনা

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। সহজে কেউ কারো সহযোগিতায় এগিয়ে আসছেন না। ঠিক সেসময় একের পর এক মা ও নবজাতকের সহযোগিতায় এগিয়ে আসছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর আয়শা আক্তার দিনা। আর তার এই সহযোগিতায় ইতোমধ্যে তিনি ‘মানবতার মা’ রূপে ভূষিত হয়েছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় ১৭ মে রোববার বিকেলে এক অসহায় মা ও নবজাতকের সহযোগিতায় এগিয়ে আসছেন কাউন্সিলর আয়শা আক্তার দিনা। স্বামী তার স্ত্রী ও সন্তানের মায়া ভুলে ফেলে রেখে চলে গেলেও কাউন্সিলর দিনা মা ও নবজাতকের মায়া ত্যাগ করতে পারেননি। লকডাউন চলাকালিন সময়ে তিনি নিজ কাঁধে তুলে নিয়েছেন মা ও নবজাতকের সকল দায়িত্ব।

আয়শা আক্তার দিনা জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের দক্ষিণ কদমতলী নয়াপাড়া আশেক আলীর ভাড়াটিয়া বাচ্চা গর্ভে আসার ৩ থেকে ৪ মাসের মাথায় স্বামী তার স্ত্রীকে একা ফেলে চলে যায়। ওই এলাকার পাশেই অবস্থিত একটি গার্মেন্টসে মহিলা ও তার স্বামী চাকরী করত। স্বামী চলে যাওয়ার পর মহিলাটি একাই গর্ভের সন্তান নিয়ে চাকরী করে আসছিল। কিন্তু ডেলিভারির সময় ঘনিয়ে আসলে মহিলা চাকরী ছেড়ে দেয়।

এদিকে করোনার জন্য লকডাউনও চলে আসে। ফলে ওই মহিলাটির মা বা কোন আত্বীয় তার কাছে আসতে পারেনি। এমতাবস্থায় বিগত আট দিন পূর্বে একদিন গভীর রাতে মহিলাটির প্রসব ব্যাথা শুরু হলে পাশের মহিলারা স্থানীয় এক দাই কে ডেকে এনে নারীটির ডেলিভারি সম্পন্ন করে এবং একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।

কিন্তু বর্তমানে নব্য জন্ম শিশুটি মায়ের বুকের দুধ তেমন পায়না আর ঘরেও নারীটির কোন খাবার নেই। এই সংবাদ পেয়ে আমি সাথে সাথে মায়ের জন্য খাবার ও শিশুটির জন্য দুধ নিয়ে যাই। সেই সাথে লকডাউন চলাকালীন মহিলাটির আত্বীয় না আসা পর্যন্ত তাদের প্রয়োজনীয় খাবার ঔষধ যা লাগে সব পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেছি।

প্রসঙ্গত এর আগেও কাউন্সিলর আয়শা আক্তার দিনার সহযোগিতায় পৃথিবীর আলোর মুখ আরও কয়েকজন শিশু। সেই সাথে প্রসূতি মায়েরও সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন তিনি। চলমান লকডাউনের কারণে আর্থিক সমস্যা ও চিকিৎসার অভাব মিটিয়েছেন আয়শা আক্তার দিনা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর