অটোরিকশা চালকের করোনা সচেতনতা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০৯ পিএম, ২২ জুন ২০২০, সোমবার
অটোরিকশা চালকের করোনা সচেতনতা

‘করোনার সংক্রামণ রোধে সরকার, জেলা প্রশাসন, পুলিশ, সিটি করপোরেশন সবাই একত্রিত ভাবে কাজ করছেন। তবুও শুধু মাত্র মানুষের অসচেতনতার কারণে দিনের পর দিন বেড়ে চলছে আক্রান্তের সংখ্যা। কিছুতেই মানুষ সচেতন হচ্ছে না। যেমন ব্যবহার করছে না মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, গ্লাভস সহ সুরক্ষার নিয়মাবলী। কিন্তু সচেতন হলেই একমাত্র এ করোনা ভাইরাস থেকে নিজে ও নিজের পরিবারকে সুরক্ষা রক্ষা যায়। তবে এ সচেতন হওয়ার জন্য শিক্ষার নয় মানসিকতার প্রয়োজন এটাই প্রমাণ করেছেন একজন সাধারণ ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা চালক।

২২ জুন সোমবার দুপুরে শহরের খানপুর এলাকায় ৩০০ শয্যা হাসপাতালে একজন রোগীকে নিয়ে আসেন অটোরিকশা চালক নাছির মিয়া। তিনি শহরের শীতলক্ষ্যা নলুয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

সরেজমিনে দেখা যায়, ‘একজন রোগী ৩০০ শয্যা হাসপাতালের জরুরী ভাবে নামিয়ে দিয়ে বোতলে ভরা জীবাণুনাশক স্প্রে করছেন অটোরিকশায়। প্রথমে যাত্রীর সিটে স্পে করে পরে নিচের সিটেও স্প্রে করেন। পরবর্তীতে অটোরিকশার চারদিকে স্প্রে করেন। তাছাড়া মাস্ক ব্যবহার করছিলেন তিনি। নিজে হাতেও স্প্রে করে নেন।’

নাছির মিয়া বলেন, ‘জীবাণুমুক্ত স্প্রে করছি। একজন রোগী নিয়ে আসছি তিনি বলেছেন তার পেট ব্যথা। তবে কার কি আছে সেটা তো বলতে পারি না করোনা তো আর দেখা যায় না। তাই সুরক্ষার জন্য এটা স্প্রে করছি।’

তিনি বলেন, ‘করোনা শুরু হওয়ার পর থেকেই এ স্প্রে করা শুরু হয়। সুরক্ষার জন্য এ জীবানুনাশক স্প্রে করা হয়। তিনজন যাত্রীর বেশি নেয়া হয় না। আর সর্বক্ষনিক মাস্ক ব্যবহার করছি। যাত্রীদেরও মাস্ক ব্যবহারের জন্য বলছি।’

প্রসঙ্গত নারায়ণগঞ্জে শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত ২২ হাজার ৩৪৬জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যার মধ্যে ৪৭০০ জন করোনায় পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে আর এখনও পর্যন্ত ১০৭জন মারা গেছেন। সুস্থ হয়েছেন এখনও পর্যন্ত ২ হাজার ৪৭১ জন।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর