rabbhaban

বিএমএ নির্বাচনের এক বছরেও হয়নি কার্যালয়, চিকিৎসা সেবায় নাই ভূমিকা


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:১১ পিএম, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার
বিএমএ নির্বাচনের এক বছরেও হয়নি কার্যালয়, চিকিৎসা সেবায় নাই ভূমিকা

দীর্ঘ ২৫ বছর পর ডাক্তারদের সংগঠন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) নারায়ণগঞ্জ জেলার নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের চিকিৎসকরা ভোটের মাধ্যমে তাদের নেতা নির্বাচিত করেছিলেন। ওই নির্বাচনে ২৩ সদস্যের পূর্ণ প্যানেলে জয়ী হয়েছেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) মনোনীত ইকবাল বাহার ও দেবাশীষ সাহার নেতৃত্বে প্যানেল। তবে এক বছরেও হয়নি বিএমএ’র কোন কার্যালয়। শুধু রমজান মাসে ইফতার পার্টি আয়োজন ছাড়া আর কোন কার্যক্রমে দেখা মেলেনি চিকিৎসকদের এই সংগঠনের। অথচ নির্বাচনের পরে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে চিকিৎসা সেবায় কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সংগঠনটির নেতারা।

জানা গেছে, ভোট হয়েছিলো ১৯৯৩ সালে। দুই যুগে বহুবার নির্বাচন হলেও ভোট প্রদানের কোন সুযোগ ছিল না। ২০১৮ সালের ৬ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত বিএমএ নারায়ণগঞ্জ শাখার নির্বাচনে দীর্ঘ ২৫ বছর পর ডাক্তাররা ভোট দেয়ার সুযোগ পান। প্রার্থীরা সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। ওই নির্বাচনে ২৩ সদস্যের পূর্ণ প্যানেলে জয়ী হন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) মনোনীত চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার ও দেবাশীষ সাহার নেতৃত্বে প্যানেল।

২৩জনের প্যানেলের বিপরীতে সভাপতি ছাড়া প্যানেল করে সহ সভাপতি আতিকুজ্জামান সোহেল ও সেক্রেটারী নিজাম আলীর নেতৃত্বে। সভাপতি হিসেবে ডা. শাহনেওয়াজের ওই প্যানেল থেকে নির্বাচন করার কথা থাকলেও তিনি পরবর্তীতে স্বতন্ত্র নির্বাচনে অংশ নেন।

তবে স্বতন্ত্র থাকা ডা. শাহনেওয়াজ অন্তরালে এ প্যানেলের অধিভুক্ত ছিলেন। ওই নির্বাচনে ইকবাল বাহার ও দেবাশীষ সাহার নেতৃত্বাধীন প্যানেল বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলেন। সহ সভাপতি পদে বিধান চন্দ্র পোদ্দার, গোলাম মোস্তফা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দোহা সঞ্চয়, কোষাধ্যক্ষ শেখ ফরহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক কুমার তানসেন, দফতর সম্পাদক ইউসুফ সরকার, প্রচার ও জনসংযোগ সম্পাদক কামরুল আশরাফ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক অমিত সরকার, সংস্কৃতি ও আপ্যয়ন বিষয়ক সম্পাদক আমিনুর রহমান, গ্রন্থাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক জহিরুল হক, পদে জাহাঙ্গীর আলম , জিএম ফরিদ, অনিরুদ্ধ ভট্টাচার্য, এবিএম জহিরুল কাদের ভূইয়া, তানভীর আহমেদ চৌধুরী, আমির হোসেন, তনয় কুমার সাহা, মতিয়ার রহমান, আবু শাহেদ শুভ ও মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিন জয়ী হয়েছেন।

এদিকে নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে হলেও ভোট গণনার সময়ে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তুমুল হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ডাক্তাদের একটি পক্ষ অন্য পক্ষের লোকজনকে মারধর করে। ভোট কেন্দ্রের চেয়ারও ছুড়ে মারে একে অপরের দিকে। এতে কয়েকজন আহতও হয়। সংঘর্ষের ঘটনার ভিডিও চিত্র ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়ে।

নির্বাচন কমিশনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণার পরে ৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে শহরের ২নং রেলগেটস্থ জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যালয়ের সামনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ শেষে ফতুল্লার উইসডমে নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর ও বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) নারায়ণগঞ্জ জেলার নবনির্বাচিতরা। এসময় নবনির্বাচিতরা নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর ও বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

শুভেচ্ছা বিনিময়কালে সেলিম ওসমান তাদেরকে নারী স্বাস্থ্য উন্নয়নে কাজ করার আহবান জানিয়ে বলেন, নারায়ণগঞ্জ শিল্পঘন এলাকা হিসেবে তৈরী পোশাক শিল্পে নারী শ্রমিকদের আধিক্য বেশী। অনেক নারী শ্রমিক নিজেদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন নয়। এজন্য তিনি চিকিৎসকদের নারী স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা আহবান জানান। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের চিকিৎসকরা যাতে মাঝেমধ্যে জেলার বিভিন্ন স্থানে মেডিকেল ক্যাম্প করতে পারেন এজন্য একটি বাসের ব্যবস্থা করবেন বলেও আশ্বাস দেন সেলিম ওসমান। এছাড়া বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) নারায়ণগঞ্জ জেলার নবনির্বাচিত ২৩ সদস্যের পরিষদকে আরো বড় করে ৩০০ জনের কমিটি করা যায় কিনা সে বিষয়ে আলোচনা করেন সেলিম ওসমান। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালকে ৫০০ শয্যায় উন্নীত করাসহ চিকিৎসাখাতে তার বিভিন্ন পরিকল্পনার নিয়েও আলোচনা করেন সেলিম ওসমান। 

বিএমএ’র নির্বাচনের পরে গত এক বছরে শুধুমাত্র পবিত্র রমজান মাসে ইফতার মাহফিল করতে দেখা গিয়েছিল বিএমএ’র নেতৃবৃন্দকে। বিএমএ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার মধ্যে বিরোধ রয়েই গেছে। শুধু বিএমএ নিয়েই নয় স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কমিটি নিয়েও বিরোধ রয়ে গেছে। কারণ বিএমএ ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ নারায়ণগঞ্জ শাখা মূলত মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ। দীর্ঘদিন বিএমএ নারায়ণগঞ্জ শাখার সভাপতি ছিলেন ডা. শাহনেওয়াজ। তার ভবনের একটি কক্ষকে বিএমএ’র সম্মেলন কক্ষ হিসেবে ব্যবহৃত হতো। তবে গত এক বছরেও বিএমএ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার কোন কার্যালয় প্রতিষ্ঠিত করতে পারেনি নির্বাচিত কমিটি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর