দুই হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য সড়কে : উদ্বিগ্ন নাসিক কাউন্সিলর


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৫৩ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার
দুই হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য সড়কে : উদ্বিগ্ন নাসিক কাউন্সিলর

নারায়ণগঞ্জের বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মেডিকেল বর্জ্য এখন নিয়মিত স্বাস্থ্য সম্মত ভাবে নিয়ে যাচ্ছে বেসরকারি এনজিও সংস্থা প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন। তবে নারায়ণগঞ্জের প্রধান দুইটি সরকারি হাসপাতাল খানপুর ৩০০শয্যা ও ১০০ শয্যা জেনারেল তথা ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য এখনো ফেলা হচ্ছে খোলা জায়গায়। আর সেই মেডিকেল বর্জ্য সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা পরিষ্কার করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিৎ বরণ বিশ্বাস।

সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় থাকা হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালকদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ও প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের যৌথ আয়োজনে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সেমিনারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

এসময় অসিত বরণ বিশ্বাস বলেন, নারায়ণগঞ্জের দুইটি হাসপাতালের একটিতেও মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই। মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব যে তাঁদের এটা তাঁরা মানতেই চায় না। তাঁরা শুধু একটাই কথা বলে যে এই দায়িত্ব নাকি সিটি কর্পোরেশনের।

তিনি বলেন, ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের সামনে অস্থায়ী ময়লা ফেলার জায়গায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মেডিকেল বর্জ্য ফেলে। সুই, সিরিঞ্জ, স্যালাইন ব্যাগ, রক্তের ব্যাগ সহ সব ধরনের মেডিকেল বর্জ্য সেখানে পাওয়া যায়। আর এগুলো সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীদের অপসারণ করতে হয়। একই অবস্থা শহরের ৩০০শয্যা বিশিষ্ট খানপুর হাসপাতালেও। সেখানেও খোলা ভাবে ময়লা আবর্জনা ফেলা হয়।

তিনি আরো বলেন, এই বর্জ্যগুলো যখন নাসিকের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা নিয়ে যায় তখন যদি সুইয়ের খোঁচায় জীবাণু ছড়ায় আর সে চলে যায়। তাহলে আমরা জানতেও পারবো না সে কেনো চলে গেলো। সরকারি দুই হাসপাতালের উচিৎ অতি দ্রুত প্রিজমের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়া।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর