rabbhaban

হকার নেতা রহিম মুন্সীসহ ৫ হকার আটক


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ১২:১৬ এএম, ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার
হকার নেতা রহিম মুন্সীসহ ৫ হকার আটক

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রধান বঙ্গবন্ধু সড়কে পণ্য নিয়ে বসার অভিযোগে হকার্স নেতা রহিম মুন্সীসহ ৫ জনকে আটক করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। সোমবার ২১ অক্টোবর রাতে শহরের চাষাঢ়া এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আসাদুজ্জামান জানান, পুলিশ সুপার মো: হারুন অর রশিদের নির্দেশে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রধান বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত হকারমুক্ত করা হয়। কিন্তু হকার নেতা রহিম মুন্সির নেতৃত্বে হকাররা প্রায়ই পুলিশের নির্দেশনা অমান্য করে ফুটপাতে চৌকি নিয়ে বসে পড়ছিল। তাদেরকে একাধিকবার সতর্ক করা হলেও তারা সেটা শোনেনি। যে কারণে সোমবার রাতে রহিম মুন্সিসহ ৫ জন হকারকে আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারী বিকেলে ফুটপাতে ফের হকার বসানো নিয়ে চাষাঢ়া এলাকায় এমপি শামীম ওসমান সমর্থক ও হকারদের সঙ্গে সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের মধ্যকার সৃষ্ট সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই সময় হকার নেতা রহিম মুন্সির নেতৃত্বে হকাররা বৃষ্টির মতো মেয়র আইভী ও তার সমর্থকদের প্রতি ইট নিক্ষেপ করতে থাকে। মেয়র আইভীকে তখন রক্ষা করতে মানবঢাল তৈরি করেন সমর্থক নেতাকর্মীরা। সংঘর্ষে সিটি মেয়র আইভী, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সেক্রেটারী শরীফউদ্দিন সবুজ, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের শহরের সভাপতি জুয়েল হোসেন, নিয়াজুল, হকার্স শ্রমিকলীগের নেতা পলাশ, রাশেদুল, সবুজসহ উভয়পক্ষের অন্তত অর্ধশত আহত হয়। ১৮ জানুয়ারি বিকেলে মেয়র আইভীকে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আইভী সেখানে ৫ দিন চিকিৎসাধীন ছিলেন।

চলতি বছরের ১০ জানুয়ারী থেকে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মো: হারুন অর রশিদের নির্দেশে শহরের প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখলমুক্ত করতে ও অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদে অভিযান শুরু করে পুলিশ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর