নারায়ণগঞ্জ সিটির হাসপাতাল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সেমিনার


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:২৬ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
নারায়ণগঞ্জ সিটির হাসপাতাল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সেমিনার

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় থাকা হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালকদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ও প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের যৌথ আয়োজনে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের ডিআইডস্থ ফুড ফ্যান্টাসি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত সেমিনারের সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রধান কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামূল হক।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ৩০০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবু জাহের, পরিবেশ অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জ জেলার উপ রিচালক মো. সাঈদ আনোয়ার, নাসিক ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিৎ বরণ বিশ্বাস, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের কো-অর্ডিনেটর মাঝহারুল ইসলাম, ম্যানেজার (এইচআর অ্যান্ড এডমিন) মনোয়ারা নওশীন, ফিল্ড ম্যানেজার মোহাম্মদ ফাইজুর রহমান, মো. সাইদুল ইসলাম সহ নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আওতায় বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগোনস্টিক সেন্টারের পরিচালকবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই ভিডিও প্রদর্শনীর মাধ্যমে প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম সকলের মাঝে তুলে ধরা হয়।

এসময় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রধান কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামূল হক বলেন, আমাদের অভিভাবক মাননীয় মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নেতৃত্বে আমরা নারায়ণগঞ্জকে একটি জায়গায় নেওয়ার জন্য কাজ করছি। আমরা সরকারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করছি। এর একটি হচ্ছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আমাদের দেশে কোন সিটি কর্পোরেশন বলতে পারবে না বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় একটি মানদন্ড দাড় করাতে পেরেছে। কারণ আমরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মাত্র উন্নত দেশের দিকে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, শুধু প্রিজমের সাথে একটি চুক্তি করলেই হবে না। বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সকলের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে হবে। একটি মনিটরিং টিম আমাদের হাসপাতাল, ক্লিনিক সহ প্রিজমের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করতে পারে। আমি আশা করি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আওতায় সরকারি চারটি হাসপাতাল আছে এছাড়া আরও যত বেসরকারি ক্লিনিক আছে সবগুলো শর্তরোপের মধ্য দিয়ে সেগুলোও প্রিজমের চুক্তিতে চলে আসবে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাছে ৩৩ শতাংশ জায়গা প্রিজম চেয়েছে। আমরা উপযুক্ত জায়গা পেলেই দিয়ে দিব।

পরিবেশ অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জ জেলার উপপরিচালক সাঈদ আনোয়ার বলেন, নারায়ণগঞ্জের অনেক বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিক ছাড়পত্রের জন্য আবেদন করে। কিন্তু তাঁরা সঠিক ভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার প্রতিবেদন তুলে ধরতে পারে না। যে কারণে অধিকাংশ ফাইল ঢাকায় আটকে থাকে। আমরা তাঁদেরকে দিতে পারি না। আর হাসপাতাল ক্লিনিক হচ্ছে রেড ক্যাটগরির মানে অতি দূষণ করে এমন প্রতিষ্ঠান। আপনারা যদি প্রিজমের সাথে চুক্তি করেন তাহলে চুক্তির কাগজ দিলেই আপনাদেরকে ছাড়পত্র দিতে সহজ হবে।

প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের কো-অর্ডিনেটর কো-অর্ডিনেটর মাজহারুল ইসলাম বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে ১১মাস খুব বেশি সময় না। এই স্বল্প সময়ের মধ্যে বন্দর এলাকায় ১২টার মত ক্লিনিক বাদ দিয়ে সব ক্লিনিকের সাথে চুক্তি হয়ে গেছে। আশা করছি বন্দরের ক্লিনিকগুলোর সাথেও চুক্তি হয়ে যাবে। নারায়ণগঞ্জের সাথে আমাদের চুক্তি হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে ৩৩শতাংশ জায়ড়া প্রয়োজন। যদি জায়গাটা দেওয়া হয় তাহলে অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের মত নারায়ণগঞ্জেও প্লান্ট তৈরী করতে পারব।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর