নারায়ণগঞ্জে নার্সদের অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর অভিযোগ


সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০১:১০ এএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার
নারায়ণগঞ্জে নার্সদের অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে প্রো-এ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নার্সদের (সেবিকা) অবহেলায় এক নবজাতক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাইনবোর্ড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে অবস্থিত প্রো-এ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।

মৃত্যু হওয়া নবজাতক শিশুটির বয়স মাত্র ১২ দিন। সে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগর সোনামিয়া বাজার এলাকার বাসিন্দা ইসান খানের কন্যা সন্তান।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, যথাযথ নিয়মেই শিশুটির চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। অপারেশনের পূর্বেই শিশুটির জীবন সংকটাপন্ন ছিল। এ কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

শিশুটির বাবা ইসান খান জানান, গত ১২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাড়ায় কেয়ার হাসপাতালে তার স্ত্রী সিজার অপারেশনের মাধ্যমে কন্যা সন্তান প্রসব করেন। প্রসবের পর থেকেই শিশুটির খাদ্যনালীতে সমস্যা ছিল। তাই কেয়ারের চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী উন্নত চিকিৎসার জন্য ওইদিন সন্ধ্যায় সাইনবোর্ডের প্রো-এ্যাকটিভ হাসপাতালে শিশুটিকে ভর্তি করা হয়। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুটির নানা পরীক্ষা করে তার অবস্থা খুবই খারাপ ও আশংকাজনক বলে জানায়। শিশুটির অবস্থা খারাপ জেনেই পিতা হিসেবে শেষ চেষ্টাটুকু করার তাগিদে খাদ্যনালী অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ওই দিনই তার নবজাতক সন্তানের অপারেশন সফলভাবে শেষ হওয়ার পর অক্সিজেন দিয়ে সেখানকার আইসিইউতে রাখা হয়।

ক্ষোভ প্রকাশ করে শিশুটির বাবা বলেন, আজ দুপুরেও আমার বাবুর শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল। প্রতিদিনই এখানকার ডাক্তার তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর দিতেন। তবে দুপুরে বাসায় যাওয়ার পর সন্ধ্যায় ফোনে আমাকে ডেকে নিয়ে জানানো হয় আমার বাচ্চার অবস্থা খুবই খারাপ।

পরে হাসপাতালে গিয়ে দেখি আইসিওর কক্ষের সকল মেশিন বন্ধ এবং আমার বাচ্চার কোন পাল্স নেই। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় আমার শিশু সন্তান মারা গেছে।

তিনি ক্ষোভের সাথে জানান, প্রো-এ্যাকটিভ হাসপাতালটির চিকিৎসা সেবার মান খুবই খারাপ। নার্সদের আচরণ ভালো নয়। নার্সদের অবহেলার কারণে আমার শিশুটি মারা গেছে। আমি চাই আরা কোন বাবা যেন এ হাসপাতালে এসে তার সন্তানকে না হারায়। তিনি প্রসাসনের কাছে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ ন্যায়বিচার দাবি করেন।

শিশুটির মামা সাফায়েত জানায়, নার্সদের অবহেলার কারণেই আমাদের শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। তারা রোগীদের কোন গুরুত্বই দেয় না। এখানে সেবার মান শূন্য। তারা রোগীদেরকে ফুসলিয়ে ভর্তি করে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়।

এ ব্যাপারে হাসপাতালটির ব্যবস্থাপক সালাউদ্দিন ভুঁইয়া রোগীর পরিবারের এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা শতভাগ আন্তরিকভাবে সেবা দিতে চেষ্টা করেছি। যে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে তার অবস্থা এমনিতেই খুবই আশংকাজনক ছিল। অপারেশনের পূর্বে শিশুটির বাঁচার সম্ভাবনা ছিল খুবই ক্ষীণ।

তিনি আরো বলেন, অপারেশনের পূর্বে শিশুটির অভিভাবকের সাথে কথা হয়েছে। শিশুটির যে অবস্থা ছিল তাতে অপারেশন করলে বাঁচতেও পারে আবার মারাও যেতে পারে, সেটি তাদের জানানো হয়েছিল। সম্পূর্ণ আল্লাহর উপর ভরসা করেই আমরা তাদের কথার উপর নির্ভর করে অপারেশন করেছি। এখানে আমাদের কোন ভুল-ত্রুটি বা অবহেলা ছিল না।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর