থমথমে বন্দরের রসুলবাগ, ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে খাবার


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০২০, শনিবার
থমথমে বন্দরের রসুলবাগ, ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে খাবার

নারায়ণগঞ্জের বন্দরের রসুলবাগ এলাকা লকডাউনের তৃতীয় দিন ছিল ৪ এপ্রিল শনিবার। সেখানে এখনো থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। করোনা আক্রান্ত হয়ে নিহত নারীর পরিবারের ৭সদস্য সহ ঘরবন্দী হয়ে আছেন একশ পরিবার। তাদের কাউকে বাইরে বের হতে দেয়া হচ্ছেনা। সেখানে এক ভুতুরে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার সরেজমিন রসুলবাগ গিয়ে এ চিত্র দেখতে পাওয়া যায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরবরাহ করা হচ্ছে খাবার ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী।

শনিবার বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুক্লা সরকারের নেতৃত্বে সেখানে পৌঁছে দেয়া হয় খাবার ও ওষুধ পত্র। এদিকে ওই নারীর লাশ দেখতে যাওয়ায় বন্দরের মদনগঞ্জের এমএন ঘোষাল রোডের একটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখেন এলাকাবাসী।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া নারীর সংস্পর্শে থাকায় এক চিকিৎসক ও নার্সসহ এ পর্যন্ত ৪০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। এক ওয়ার্ডবয়কে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে ওই নারীর গোসল কার্য সম্পাদন করায় সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলি এলাকার মনিরুন্নেছা ওরফে মমি ও তার পরিবারের ৬ সদস্যসহ তার বাড়ির ৮ ভাড়াটিয়া পরিবারের ১৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুল্কা সরকার বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরামর্শে এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) নির্দেশনা অনুযায়ী রসূলবাগ এলাকাকে লকডাউন করা হয়েছে। ওই নারীর বাড়িসহ আশপাশের একশ’ পরিবারকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত খাবার, ওষুধ ও পানি সরবরাহ করা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর