নিরাপদ দূরত্ব মানছেন না নারায়ণগঞ্জের লঞ্চ যাত্রীরা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:০৫ পিএম, ০১ জুন ২০২০, সোমবার
নিরাপদ দূরত্ব মানছেন না নারায়ণগঞ্জের লঞ্চ যাত্রীরা

করোনাভাইরাস সংকটের কারণে দীর্ঘ ২ মাস ৭ দিন পরে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় লঞ্চ টার্মিনাল থেকে যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী বহনের নির্দেশনা থাকলেও লঞ্চের ভিতরে স্বাস্থ্য অনেক যাত্রীরাই তা মানছেন না।

১ জুন (সোমবার) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় লঞ্চ টার্মিনালে সরেজমিনে দেখা যায়, হাত ধোয়া এবং জীবানুনাশকের ব্যবস্থা রয়েছে। তবে যাত্রীদের মধ্যে কেউ কেউ হাত ধুয়ে লঞ্চে উঠলেও অনেকেই হাত না ধুয়ে লঞ্চে উঠছেন। এম ভি নডিয়া নামের লঞ্চে দেখা যায়, যাত্রীরা নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখছেন না। লঞ্চের ফ্লোরে চাদর বিছিয়ে গা ঘেঁষে বসছেন যাত্রীরা। তাদের মধ্যে অনেকেই আবার মাস্ক ব্যাবহার করছেন না।

এক যাত্রী নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘জরুরি প্রয়োজনে এই সময়েও অনেককে যাতায়াত করতেই হবে। তবে সবাইকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দেখা যায়না। আর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে লঞ্চে উঠলেও তারা নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখছে না। এ বিষয়ে লঞ্চ কর্তৃপক্ষকে আরও গুরুত্ব দিতে হবে।’ তবে বাসের ন্যায় লঞ্চে ভাড়া না বাড়ায় স্বস্তি প্রকাশ করছে যাত্রীরা।

এ প্রসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের নৌ-নিট্রাফিক বিভাগের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) বাবু লাল বৈদ্য নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘এম ভি নডিয়া যে রুটে চলাচল করে সে রুটে একটি মাত্র লঞ্চ। ফলে সে লঞ্চে যাত্রীদের চাপ একটু বেশিই থাকে। আর লঞ্চে যাত্রীরা উঠে পরার পর যাত্রীদের নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব হয়না। নিজের সুরক্ষায় তাদের নিজেদেরকেও সচেতন থাকতে হবে। তাছাড়া আমরা লঞ্চ টার্মিনালে জীবানুনাশক ট্যানেল স্থাপন করছি। এটি স্থাপন সম্পন্ন হলে সকল যাত্রীদের সহজেই নিজেদের জীবানুমুক্ত করতে পারবেন এবং করতে বাধ্য থাকবেন।’

প্রসঙ্গত করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে চলাচলকারী সব ধরনের যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল ২৪ মার্চ বেলা ১২ টা থেকে বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। ২৪ মার্চ (মঙ্গলবার) বিআইডব্লিউটিএ এর জনসংযোগ কর্মকর্তা মোবারক হোসেন মজুমদারের স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ থেকে ৭টি রুটে ৭০টি লঞ্চ চলাচল করতো। নারায়ণগঞ্জ থেকে মুন্সিগঞ্জ রুটে প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা ৬-৭ টা পর্যন্ত ২০ মিনিট পর পর লঞ্চ ছেড়ে যায়। এই রুটে ২৫টি লঞ্চ চলাচল করতো। নারায়ণগঞ্জ থেকে চাঁদপুর রুটে ১৫টি, মতলব-মাছুয়াখালী রুটে ১৯টি, হোমনা-রামচন্দ্রপুর ১টি, ওয়াবদা, সুরেশ্বর-নরিয়া (শরিয়তপুর) কয়েকটি লঞ্চ চলাচল করতো। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জে ৩টি রুটে লঞ্চ চলাচল চালু হয়েছে। রুটগুলো হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ থেকে মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ থেকে চাঁদপুর এবং নারায়ণগঞ্জ থেকে মতলব-মাছুয়াখালী।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর