সিদ্ধিরগঞ্জপুলে অসহনীয় যানজট


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:০৫ পিএম, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার
সিদ্ধিরগঞ্জপুলে অসহনীয় যানজট

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১নং ওয়ার্ডের প্রবেশদ্বার সিদ্ধিরগঞ্জ পুল। এই পুল দিয়ে দৈনিক হাজার হাজার মানুষকে কর্মমুখী ও অফিসমুখী হতে হয়। ছুটি শেষে পুনরায় প্রবেশ করতে হয়। অবাধে নিষিদ্ধ ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা এলোমেলো চলাচল এবং রাস্তার দুই পাশের ভাসমান দোকান-পাট এলাকাটিতে সাধারণ মানুষের চলাফেরায় ব্যাঘাত সৃষ্টি করে আছে। যার নেপথ্যে রয়েছে গোলজার হোসেন ওরফে ভান্ডারী (পাগড়ীওয়ালা) এবং তার দুই পুত্র রাসেল ও সাইফুল।

সিদ্ধিরগঞ্জ পুলের উত্তরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। দক্ষিণে সিদ্ধিরগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, আদমজী ইপিজেড ও নারায়ণগঞ্জ শহরে যাওয়ার প্রধান রাস্তা। দিনের বেশি সময়ই সিদ্ধিরগঞ্জ পুল থেকে মিজমিজি টি.সি. রোডের অনেক দূর পর্যন্ত যানজট লেগেই থাকে। যার প্রধান কারণ হলো রাস্তার দুই পাশের অনেক স্থান জুড়ে থাকা ভাসমান দোকান-পাট। এছাড়া অপরিমিত অটোরিক্সা এলোপাতারি ভাবে রাস্তা দখল করে রাখাও অন্যতম আরেকটি কারণ। যার ফলে মানুষকে এই করোনাকালীন সময়ে গা ঘেষেই চলাফেরা করতে হয়ে। এতে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘিত হচ্ছে এবং করোনা আক্রান্তের ঝুঁকি বাড়ছে।

জানা যায়, ভাসমান দোকান-পাট বসানোর পেছনে কারো কারো আয়ের উৎস এবং প্রভাব রয়েছে। এর মধ্যে গোলজার হোসেন ওরফে ভান্ডারী (পাগড়ীওয়ালা) এবং তার দুই পুত্র রাসেল ও সাইফুলের ভূমিকা অন্যতম। পিতা-পুত্ররা মিলে এসব ভাসমান দোকান থেকে দৈনিক ভিত্তিতে চাঁদা উত্তোলন করছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

সাধারণ মানুষ যাতে অবাধে চলাচল করতে পারে সেজন্য স্থানীয় প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের হস্তক্ষেপ কামনা জনগণের।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর