rabbhaban

ত্বকীর কবর ছুঁয়ে আইভী ও বাবা রাব্বির নোনা জল


সিটি করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০৮ পিএম, ০৬ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার
ত্বকীর কবর ছুঁয়ে আইভী ও বাবা রাব্বির নোনা জল

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীর মৃত্যুর পর জন্মদাতা বাবা রফিউর রাব্বির চোখের কোনের নোনা জল থাকলেও তিনি ছিলেন অনেক দৃঢ়চেতা। প্রিয় সন্তানকে হারিয়ে সেদিন থেকে শোকে মুহ্যমান রফিউর রাব্বিকে খুব একটা কাঁদতে দেখা যায়নি। তবে হত্যার ৫ বছরে মঙ্গলবার ৬ মার্চ তিনি আবারও চোখের নোনা জল ঝরিয়েছেন। তাও একেবারে নিঃশব্দে।

একই অবস্থা ছিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীরও। তিনিও ছিল বেশ বিমর্ষ।গোলাপ ফুলের পাপড়ী দিয়ে ত্বকীর কবরে নিজের হাত দিয়ে ছড়িয়ে দেন আইভী। এ দুইজন হত্যাকান্ডের পর থেকে বেশ সরব আছেন বিচারের দাবীতে। কিন্তু ৫ বছর অতিবাহিত হলেও বিচার তো দূরের কথা চার্জশীটও আদালতে দাখিল করা হয়নি।

সন্তানের কবরের সামনে সাহসী দৃঢ়চেতাদের সেই দৃশ্যে শোকার্ত পরিবেশে বিহবল ছিলেন অনেকে। মঙ্গলবার সকাল ৯ টায় বন্দর উপজেলার চৌধুরীবাড়ি এলাকায় অবস্থিত সিরাজশাহের মাজারে ত্বকীর কবর জিয়ারত ও ফাতেহা পাঠ করেন স্বজন ও সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্যরা। এসময় ত্বকীর কবরে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

পরে সেখানে ত্বকী রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়। পরে ফুল দেন বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) জেলার সমন্বয়ক নিখিল দাস, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল প্রমুখ।

ত্বকী কবরে ফুল দিয়ে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা ভবানী শংকর রায় বলেন, ‘যতদিন পর্যন্ত ত্বকী হত্যার বিচার না হবে ততদিন পর্যন্ত ত্বকী বিচারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাবো। সরকার চাইলে ৭খুনের মতো ত্বকী হত্যা মামলা বিচারও দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব।

প্রসঙ্গত ২০১৩ সালের ৬ মার্চ বিকেলে ত্বকী শহরের শায়েস্তাখান সড়কের বাসা থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি। পরে ৮ মার্চ সকালে চাড়ারগোপে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে তার মরদেহ পাওয়া যায়। ২০১৩ সালের ৭মার্চ (নিখোঁজের একদিন পর ও লাশ উদ্ধারের একদিন আগে) এ লেভেল পরীক্ষার রেজাল্টে পদার্থবিজ্ঞানে ৩০০ নম্বরের মধ্যে ২৯৭ পেয়েছিল যা সারাদেশে সর্বোচ্চ। কিন্তু এ হত্যাকান্ডের ৫ বছর অতিবাহিত হলেও এখনও পর্যন্ত এ মামলার অভিযোগ পত্র দেয়া হয়নি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর