rabbhaban

ফতুল্লায় বিক্ষোভের পর শ্রমিকদের দাবী মানলো প্যানটেক্স,২জন বরখাস্ত


ফতুল্লা করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৫:১০ পিএম, ২০ আগস্ট ২০১৮, সোমবার
ফতুল্লায় বিক্ষোভের পর শ্রমিকদের দাবী মানলো প্যানটেক্স,২জন বরখাস্ত ভাঙচুর করা একটি ট্রাক

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার বিসিকে ছুটি বাড়ানোর দাবীতে আন্দোলনরত শ্রমিকদের অবরোধ ও ভাঙচুরের পর মেনে নিয়েছে প্যানটেক্স কারখানার মালিক পক্ষ। গার্মেন্ট মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএ এর সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমানের মধ্যস্ততায় ওই দাবী মেনে নেওয়ার পর শ্রমিকেরা তাদের বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে।

২০ আগস্ট সোমবার দুপুরে শ্রমিকেরা ওই বিক্ষোভ দেখায়। এর আগে রোববার রাতেও শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করেছিল।

শ্রমিকেরা জানান, বিসিকের ২নং গলিতে প্যানটেক্স গার্মেন্টে ১৭শ শ্রমিক রয়েছে। ঈদে ১১দিনের ছুটির জন্য দীর্ঘদিন ধরে নিয়মিত ডিউটির পাশাপাশি ৪ ঘণ্টা করে ওভার টাইম করানো হয়েছে তাদেরকে দিয়ে। শ্রমিকদের এ পরিশ্রমে মালিক পক্ষ সন্তুষ্ট। কিন্তু ছুটির সময় হওয়ায় মালিক পক্ষ শ্রমিকদের ১১দিনের ছুটি মানেছিল না। মালিক পক্ষ শ্রমিকদের ৭ দিনের ছুটি দিতে চেয়েছে।

এনিয়ে রোববার ১৯ আগস্ট রাতে মালিক পক্ষের লোকজন শ্রমিকদের উপর চড়াও হয় এবং ৩ জন শ্রমিককে মারধর করে। এরপর গার্মেন্টের সকল শ্রমিক ঐক্যবদ্ধ হয়ে গার্মেন্টের ভিতরে ও বাইরে বিক্ষোভ করতে থাকে। এক পর্যায়ে গার্মেন্টের অদূরে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে শ্রমিকেরা। প্রায় আধা ঘণ্টা সড়ক অবরোধের পর পুলিশ গিয়ে সোমবার সকালে সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সড়ক থেকে শ্রমিকদের উঠিয়ে দেয়।

সোমবার সকালে আবারও শ্রমিকেরা বিক্ষোভ শুরু করে। পরে বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমান ১১ দিনের ছুটি মঞ্জুরের বিষয়টি মালিক পক্ষকে দিয়ে নিশ্চিত করার পর শ্রমিকেরা বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে নেয়।

সেলিম ওসমান জানান, শ্রমিকদের দাবী ১১ দিন ছুটি মেনে নেওয়া হয়েছে। ১ সেপ্টেম্বর কারখানা খুলবে। মালিকপক্ষ বিকেএমইএ এর প্রেরিত চিঠিতে উল্লেখিত নিয়ম মানেনি বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। শ্রমিক অসন্তোষের বিষয়টি বিকেএমইএ এর দায়িত্বরতরা সঠিকভাবে পালনে ব্যর্থ হওয়ায় দুইজন কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, প্যানটেক্স গার্মেন্ট কর্তৃপক্ষকে সাবধান করে দেওয়া হয়েছে। কারখানাটি আরো দক্ষতার সাথে পরিচালনা করতে বলা হয়েছে। অতিতে প্যানটেক্সের কারণে বিসিক উত্তপ্ত হয়েছিল ও লাশ পড়ে ছিল। ভবিষ্যতে এমন ঘটনা ঘটলে প্রয়োজনী আইন মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করে স্থায়ীভাবে কারখানা বন্ধ করে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, শ্রমিকেরা ছুটি চেয়েছিল ১১ দিন আর মালিক ছুটি দিবে ৭ দিন। এনিয়ে শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করে। পরে এমপি ও বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমানের পক্ষে থেকে মালিক শ্রমিকদের সমঝোতার মাধ্যমে দাবি মেনে নেয়া হলে শ্রমিকেরা অবরোধ প্রত্যাহার করে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
rabbhaban
আজকের সবখবর