rabbhaban

ডিবির বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে অর্জন ম্লান


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:২৮ পিএম, ৩০ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার
ডিবির বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে অর্জন ম্লান

গত কয়েকবছরে বেশ কয়েকবার আলোচনায় এসেছে ডিবির কর্মকান্ড। ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় কিংবা মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকির পাশাপাশি নিরপরাধ মানুষকে জিম্মি করে চাঁদা আদায়ের বেশ কিছু অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে। গোপনে কর্মকান্ড পরিচালনা ও জনসাধারণের আড়ালে কাজ করার সুবিধা নিয়ে এই বাহিনীর বেশ কিছু সদস্য ক্ষমতার অপব্যবহার করে পুরো গোয়েন্দা সংস্থার উপর কালিমা লেপন করেছে।

সম্প্রতি প্রবীর ঘোষ হত্যাকান্ড ও স্বপন সাহা গুমের ঘটনা ক্লু-লেস থাকার পরেও তা দ্রুত সময়ে রহস্য উদঘাটন করে যখন সারাদেশে নারায়ণগঞ্জ ডিবি প্রশংসায় মুখরিত ছিল। এমন অবস্থায় ফাস্টফুডে খাওয়ার মত তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দোকানীর সাথে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ায় আবারো সমালোচনার মুখে পড়েছে ডিবির ভূমিকা। এর পর মামলাও দায়ের করা হয়েছে ২টি যা উত্তাপ বাড়িয়েছে দ্বিগুণ। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে ক্লোজড হয়েছেন ডিবির ৮ কর্মকর্তা।

বেশ কিছু অর্জন থাকলে ডিবি টিমের শৃঙ্খলার অভাবে বার বার সমালোচিত হতে হচ্ছে তাদের। সর্বশেষ শহরের খানপুর চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসী পার্কের সামনে যুবলীগ নেতা জালাল উদ্দিনের মালিকাধীন ‘মাই লাইফ ক্যাফে’ ফাস্টফুডে খাবার খেয়ে বিল না দিতে চাওয়ার মতো তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসী সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এসময় পাঁচ ডিবি সদস্যসহ অন্তত ১০ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনা তদন্তে ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নূরে আলমকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ইতোমধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ডিবির দুটি মামলা হলেও ব্যবসায়ীদের পক্ষে থানায় কোন মামলা নেওয়া হয়নি।

এর আগে ডিবির বেপরোয়া আচরণের শিকার হন নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ী। বিমানবন্দর থেকে চোখ বেঁধে তুলে এনে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে আদায় করা হয় বিপুল পরিমান টাকা। এ ঘটনা গনমাধ্যমে প্রকাশ করা হলে প্রত্যাহার করা হয় ডিবির ওসি মাহাবুবুর রহমান ও পরিদর্শক মাজহারুল ইসলামকে।

গত ২ জুন ফতুল্লার ভোলাইলে গরুর খামার ব্যবসায়ী জামালকে ধরে নিয়ে আসে পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন। সেদিন রাতেই জামালের ছোট ভাই আমানের কাছে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে ৫লাখ টাকা মুক্তিপণ চায় পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন। কিন্তু টাকা না দিয়ে এলাকার প্রভাবশালীদের নিয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে গিয়াস উদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে জামালকে ডাকাতি মামলায় আসামী করে আদালতে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় আদালতে মামলাও দায়ের করে জামালের ছোট ভাই আমান।

১৩ আগস্ট জাল টাকার মামলার আসামীকে ছেড়ে দিতে ৭০ হাজার টাকা ঘুষ নেয় ডিবি। এরপরে আসামীকে মামলায় আদালতে প্রেরণ করলে তার স্ত্রী ডিবির গাড়ির সাথে ওড়না পেঁচিয়ে ঘুষের টাকা ফেরত দেয়ার দাবি জানায়। পরে বাধ্য হয়ে টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হয়।

৫ অক্টোবর ডিবির ৩ জন এসআই মজিবুর রহমান, মনির হোসেন ও রবি চরণ চৌহানের নেতৃত্বে একটি টিম সিদ্ধিরগঞ্জে অভিযান চালায়। এসময় ১ হাজার ৫ শত পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেও ২ লাখ টাকার বিনিময় মাত্র ৩৫ পিছ ইয়াবাসহ দুই জনকে গ্রেফতার দেখানোর অভিযোগ উঠে।

১৩ অক্টোবর শীর্ষ মাদক বিক্রেতা মনিরুজ্জামান শাহীন ওরফে বন্দুক শাহীন ডিবির সঙ্গে ক্রসফায়ারে মারা যাওয়ায় ডিবির শৃঙ্খলা ফেরানোর দাবি ধামাচাপা পড়ে যায়।

নতুন করে ২৬ আগস্ট ফাস্টফুডে খাবারের বিল দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে আবারো আলোচনার জন্মদিয়েছে ডিবি। তবে নতুন এসপি আনিসুর রহমানের ঘোষণা অনুযায়ী কোন পুলিশ সদস্য অপকর্মের সাথে জড়িত থাকলে তাকে ছাড় না দেয়ার হুঁশিয়ারি বাস্তব রুপ দেখায় আশাবাদী নারায়ণগঞ্জের সাধারণ জনগন। অচিরেই পুরো জেলার পুলিশ সংস্থাকে শৃঙ্খলায় এনে অপকর্ম মুক্ত করবে এমনটাই আশা করছেন জেলার সর্বস্থরের জনসাধারণ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর