রং রুটে যান চলাচলে বাড়ছে নৈরাজ্য


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:৫২ পিএম, ৩১ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার
রং রুটে যান চলাচলে বাড়ছে নৈরাজ্য

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রধান সড়কগুলোতে অহরহ উল্টো পথে যানবাহন চলাচলের দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। যেকারণে সড়ক দুর্ঘটনা থেকে শুরু করে যানজট দুর্ভোগের মত ভয়াবহ চিত্র দেখা যাচ্ছে। ট্রাফিক পুলিশের তৎপরতা আগের তুলনায় বাড়ছেও তাতেও কোন কাজ হচ্ছেনা।  সড়কের আইন লঙ্ঘন করে বেপরোয়া ও উলোপথে যান চলাচলের ফলে প্রতিনিয়ত অঘটন ঘটছে। এতে করে একদিকে লাশের মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। অন্যদিকে যনাজট ও জটলায় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে যাত্রীরা।

৩১ আগস্ট শুক্রবার দুপুরে শহরের সিরাজউদ্দৌলা সড়কে উল্টো পথে ভারী ও হালকা যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, শহরের সিরাজউদ্দৌলা সড়কের উল্টো পথ ধরে বন্ধু পরিবহনের একটি বাস চলাচল করতে দেখা যায়। এসময় আশেপাশে আরো কয়েকটি রিকশাও উল্টো পথে চলাচল করতে দেখা যায়। যেকারণে সড়কে জটলা সৃষ্টি হয়। এর ফলে যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। আবার অনেক গাড়ির চালক সঠিক পথে প্রবেশ করে বিপাকে পড়ে গেছেন। কেননা একটি বাস উল্টো পথে প্রবেশ করলে বিপরীত মুখি কোন যানবাহন প্রবেশ করলে চলাচলের তেমন কোন জায়গা থাকেনা। এতে করে যাত্রীদের পাশাপাশি অনেক গাড়ির চালককে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়।

জানাগেছে, সিরাজউদ্দৌলা সড়কের বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে সড়কের মাঝে ডিভাইডার স্থাপন করা হলেও কার্যত অর্থে কোন কাজেই আসেনি। কারণ একদিকে শহরের এসব সড়কগুলোতে চালকরা কেউ আইন মান্য করছেনা। আর ট্রাফিক পুলিশ সড়কের এসব অনিময় ঠেকাতে বরাবরের মত ব্যর্থ হচ্ছে। যেকারণে উল্টো পথে যান চলাচলে নানা রকম দুর্ভোগের চিত্র দেখা যাচ্ছে।

এর আগে গত ২৫ জুলাই নারায়ণগঞ্জে দায়িত্ব পালনের সময়ে উল্টোপথে চলা বেপরোয়া কাভার্ডভ্যানের চাপায় মারা গেছেন ট্রাফিক পুলিশের একজন এটিএসআই (এসিট্যান্ট টাউন সাব ইন্সপেক্টর) আবুল কালাম আজাদ। দুপুরে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের শিবু মার্কেট এলাকায় ওই দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ কাভার্ডভ্যানের চালক ও হেলপারকে আটক করেছে। নিহত আবুল কালাম আজাদ ফরিদপুর জেলার মধুখালি থানার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের মৃত আবদুল হাকিমের ছেলে।

এদিকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বারবার রং রুটে গাড়ি চলাচলের ক্ষেত্রে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন। কিন্তু তাতেও কোন ফলপ্রসু ফলাফল দেখা যাচ্ছেনা। তবে সম্প্রতি ছাত্র আন্দোলনের ফলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসে। এ সময় সারা দেশের মত নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রতিটি সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসে। আর তাতে শিক্ষার্থীরা প্রশংসার দাবিদার বটে। তবে ছাত্র আন্দোলনের শিক্ষার্থীরা বাড়ি ফিরে যেতেই সড়কের নৈরাজ্য ফের শুরু হয়ে যায়। এতো কিছুর পরে সড়কে নৈরাজ্যের ধারবাহিকতার ফলে প্রশাসনের ব্যর্থতার বিষয়টি এখন অনেকটা ওপেন সিক্রেটে পরিণত হয়েছে।

যাত্রীরা বলছেন, ‘ উল্টো পথে যান চলাচল এখন নিয়মে পরিণত হয়ে গেছে। এই দেশে নিয়ম অনিময় হয়ে যায় আর অনিময় নিয়মে পরিণত হচ্ছে। যেকারণে উল্টো পথে যান চলাচলের বিষয়টি অহরহ সড়কে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু প্রশাসন এর কোন ব্যবস্থা নিতে পারছেনা। অথচ একদিনে শিক্ষার্থীরা কিভাবে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনলো। এতে স্পষ্ট যে, পুলিশ প্রশাসন সড়কের নৈরাজ্য ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে।

নগরবাসী বলছেন, সিরাজউদ্দৌলা সড়কটি এমনিতে অনেক সরু। তার উপরে যদি উল্টো পথে যান চলাচল করে তাহলে দুর্ভোগের অন্ত থাকেনা। যদিও উল্টো পথে গাড়ি চলাচল এটা নতুন কিছু নয়। এসব ঘটনায় অহরহ দুর্ঘটনা ঘটছে। সেসব দুর্ঘটনা বড় ধরণের হলে আলোচনায় উঠে আসছে নতুবা আড়ালে চলে যাচ্ছে। এছাড়া যানজট ও জটলা সৃষ্টির প্রধান কারণ হচ্ছে উল্টো পথে যান চলাচল। কিন্তু তাতেও পুলিশ প্রশাসনের কারো টনক নড়ছেনা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
-->
newsnarayanganj24_address
ফিচার এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর