rabbhaban

প্রেমের ফাঁদে ও বিয়ের প্রলোভনে বাড়ছে ধর্ষণ


সিটি করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:৩৩ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার
প্রেমের ফাঁদে ও বিয়ের প্রলোভনে বাড়ছে ধর্ষণ

প্রেমের ফাঁদে ও বিয়ের প্রলোভনে বাড়ছে ধর্ষণের ঘটনা। এরুপ বিভিন্ন পন্থায় বাড়ছে ধর্ষণে ঘটনা। এর কোনটি আইনি বিচারের আওয়াভুক্ত হলেও চক্ষু লজ্জার ভয়ে অনেক ঘটনা আড়ালে থেকে যাচ্ছে। তবে ধরা পড়া অপরাধীরাও আইনের ফাঁক দিয়ে ছাড়া পেয়ে যাচ্ছে। এতে করে অপরাধীরা ফের নতুন কোন ফাঁদ সৃষ্টিতে অনুপ্রাণিত হয়। ন্যায় বিচারের অভাবে ধর্ষণের মত ন্যাক্কারজনক অপরাধের চিত্র বেড়েই চলেছে।

১ থেকে ৯ সেপ্টেম্বর জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া ঘর্ষণের নানা ঘটনার চিত্র তুলে ধরা হল।

২ সেপ্টেম্বর ছাপা কারখানার এক শ্রমিককে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘ এক বছর যাবত ধর্ষণ করে আসছিল তারই সহকর্মী পুলক (২২) নামে যুবক। বতর্মানে ওই নারী শ্রমিক অন্তঃসত্ত্বা। কারখানার মালিক ও পুলিশের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে সে। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পূর্বপাশে রিভারভিউ ৫ম তলার একটি ছাপাখানায় ওই ঘটনা ঘটে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) এমরান হোসেন ওই নারীর বরাত দিয়ে জানান, মেয়েটির বাবা মা কেউ নেই। বেঁচে থাকার তাগিদে গ্রাম থেকে শহরে আসে। পরে থানার পাশে রিভারভিউর ৫ম তলায় একটি ছাপা কারখানায় কাজে লাগে। কিছু দিন পর থেকে একই প্রতিষ্ঠানে কাজ করে পুলক নামে এক যুবক। সে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে দীর্ঘ এক বছর যাবত ধর্ষণ করে আসছে। এখন মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা। এখন পুলক তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করছে।

এএসআই এমরান আরো জানান, মেয়েটি অভিযোগ দেয়ার পর প্রতিষ্ঠানের মালিককে ডাকানো হয়েছে। তারা দুই দিনের সময় নিয়েছে। বিষয়টি তারা সামাজিকভাবে শেষ করে দিবে আশ্বাস দিয়েছেন।

প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার রাসেল জানান, আমারা থানা থেকে দুইদিনের সময় এনেছি। এখন পুলকের পরিবারে সাথে আলাপ আলোচনা করে সুষ্ঠু সমাধান করার চেষ্টা করবো। সামাজিক ভাবে সমাধান না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

১ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় মুসলিম তরুনী প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও দুই মাসের অন্তঃসত্বার অভিযোগে শিব শংকর দাস নামে এক সনাতন ধর্মের যুবকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানায় ওই তরুণী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ এ মামলায় শিব শংকর দাসকে (২২) গ্রেফতার করেছে। শিব শংকর ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ ঢালীপাড়া এলাকার ব্যাংক কর্মকর্তা গোবিন্দ চন্দ্র দাসের ছেলে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের বলেন, শিব শংকর মোবাইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করার আশ্বাসে তরুণীকে তার নিজ বাসায় ও বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে গিয়ে একাধীকবার ধর্ষণ করে। পরে ওই তরুনী শিব শংকর অন্য ধর্মের জানতে পেরে তাকে মুসলিম হয়ে বিয়ে করার জন্য তাগিদ দেয়। এতে শিব শংকরও তাকে আশ্বস্ত করে ২৫ আগষ্ট ফের তরুনীর জামতলা এলাকার বাসায় গিয়ে ধর্ষণ করে। সম্প্রতি ওই তরুনী দুই মাসের অন্তঃসত্বার বিষয়টি বুঝতে পেরে পারিবারিক ভাবে এর সমাধানের চেষ্টা করে। এতে ব্যর্থ হয়ে থানায় মামলা করেছে। পুলিশ শিব শংকরকে গ্রেফতার করে কোর্টে পাঠিয়েছে।

৫ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ফয়সাল নামে বখাটের বিরুদ্ধে। সন্ধ্যায় বরাব রসুলপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বখাটে ফয়সাল কাজীপাড়া আলমাছ মিয়ার ছেলে।

শিক্ষার্থীর মায়ের মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, শিক্ষার্থীর পিতা গার্মেন্ট ও ডাইং কারখানাতে কাজ করেন। প্রতিদিনের মত বুধবার সকালে তারা কাজে চলে যান। বুধবার সন্ধ্যায় ওই শিক্ষার্থী তার সহপাঠী শিমলা আক্তারে বাড়িতে যাওয়ার পথে বরাব রসুলপুর পৌছালে বখাটে ফয়সাল তাকে জোরপূর্বক রনি ডাইংয়ের দক্ষিন পাশে ফাকা জায়গায় নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। শিক্ষার্থীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে। এসময়  স্থানীয় লোকজন বখাটে ফয়সালকে আটক করে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘ধর্ষণের মত অপরাধের চিত্র অহরহ দেখা যাচ্ছে। তবে প্রেম ফাঁদে ও বিয়ের প্রলোভনে এসব ধর্ষণের ঘটনা বাড়ছে। এক্ষেত্রে ধর্ষক অপরাধী হলেও ধর্ষিতার অসচেতনা অনেকাংশে দায়ী। কেননা, প্রেম কিংবা বিয়ের সম্পর্ক সফলতা পেলে ধর্ষণের এসব ঘটনা হয়তো কখনো প্রকাশ পেতনা। সেক্ষেত্রে এরুপ সম্পর্ক গড়ে তোলার আগে যথেষ্ঠ পরিমাণ সচেতন থাকা প্রয়োজন। তাহলে ধর্ষণের ঘটনা অনেকাংশে কমে আসবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
rabbhaban
আজকের সবখবর