কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে সুশৃঙ্খল রাখার আহবান আইভীর


সিটি করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার
কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে সুশৃঙ্খল রাখার আহবান আইভীর

নারায়ণগঞ্জের সিটি করপোরেশনের বন্দর এলাকার বাসিন্দাদের যাতায়াতের জন্য শহরের রাস্তা পরিষ্কার করে দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এছাড়াও নগরবাসীর চলাচলের জন্য ফুটপাত আবারও ফাঁকা করে দেন তিনি।

১০ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০টায় শহরের বাস টার্মিনাল এলাকার যানবাহনের দখলদারিত্ব সরেজমিনে পরিদর্শন করেন মেয়র আইভী ওই ব্যবস্থা করেন। এ নিয়ে তিনি বাস চালকদেরও সুশৃঙ্খলভাবে বাস রাখার জন্যও আহবান জানান।

জানা গেছে, শহরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নারায়ণগঞ্জ সেন্ট্রাল খেয়াঘাট। এ ঘাট দিয়ে প্রতিদিন গড়ে কয়েক হাজার মানুষ শীতলক্ষ্যা নদী পারাপার হয়। তবে সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে বের হয়ে আসতেই বাধা মুখে পরতে হয় যাত্রীদের। মূলত বাস টার্মিনালের সামনে যত্রতত্র ও এলোপাথাড়ি ভাবে ফেলে রেখে যানজট সৃষ্টি করে রাখা হয়। ফলে বন্দর আসা যাওয়া করা যাত্রীদের পরতে হয় ভোগান্তিতে। এর মধ্যে সব থেকে বেশি দুর্ভোগ পোহায় রোগীরা। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর পরিবহন কর্মকর্তাদের আহবান জানান। পরবর্তীতে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও বাস চালক, হেলপার ও মালিক সবাই অমান্য করে যত্রতত্র ভাবে গাড়ি রেখে ভোগান্তি সৃষ্টি করেন। এ ভোগান্তি যখন তীব্র আকারে রূপ নিতে শুরু করেছে তখনই আবারও পদক্ষেপ নিয়েছেন মেয়র আইভী।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী পরিবহন কর্মকর্তাদের বলেন, নগর ও বন্দরবাসীর সুবিধার্থে সারিবদ্ধভাবে বাসগুলো রাখবেন এবং যাত্রী উঠানামা করবেন। মানুষের সুবিধার জন্য ফুটপাত ছেড়ে দিবেন। পরে তিনি সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলীদের দিয়ে রাস্তার মধ্যে রিকশা যাতায়াতের জন্য একটি লেন তৈরি করে দেন।

স্থানীয় কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস বলেন, রাস্তা অনেক বড় হলেও বাস চালকেরা এলোপাথাড়ি ভাবে বাস রেখে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি সৃষ্টি করছে। তাদের যত্রতত্র বাস রাখার কারণে সাধারণ যাত্রীরা লঞ্চ টার্মিনালে কিংবা সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে আসা যাওয়া করতে পারে না। এ নিয়ে তাদের অনেক বার বলা হয়েছে কিন্তু তারা শোনচ্ছিল না। ফলে মেয়র নিজে থেকে যাত্রীদের জন্য একটি রিকশার লেন তৈরি করে দিয়েছেন। যেখান দিয়ে শুধু রিকশা যাওয়া আসা করবে। এ রাস্তা সব সময় ফাঁকা রাখতে হবে কোন ভাবেই বাস রেখে যানজট সৃষ্টি করতে পারবে না।

তিনি আরো বলেন, রিকশা ও বাস যাতায়াত করলেও মানুষের জন্য এর পাশের ফুটপাত দীর্ঘদিন ধরে বাস কাউন্টার ও বিভিন্ন দোকান দিয়ে দখল করে রাখা হয়েছিল। মেয়র সেই সব দোকান সরিয়ে নিতে আজকে সময় দিয়ে এসেছেন। তারা নিজ থেকে সরিয়ে না নিলে উচ্ছেদ করা হবে। আর ফুটপাত দিয়ে মানুষ চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
-->
newsnarayanganj24_address
মহানগর এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর