paradise

যা বললেন জজ ডিসি এসপি ও জুয়েল


সিটি করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৫৯ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রবিবার
যা বললেন জজ ডিসি এসপি ও জুয়েল

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা যারা সমিতির নির্বাচিত সদস্য তারা হচ্ছেন বারের নেতা। আপনাদের নেতাসুলভ আচরণ অন্যান্যরা পর্যবেক্ষন করেন। আপনারা আপনাদের সময়কালে এমন কিছু করে যাবেন যা দীর্ঘদিন আইনজীবীরা আপনাদের স্মরণ করে রাখে। আপনাদের নতুন ভবন পুননির্মাণের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই ও এর কার্যক্রম সফল হোক এই কামনা করছি।

২৩ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গনে জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটির অভিষেক ও নতুন ডিজিটাল বার ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

জেলা পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান পিপিএম বলেন, ‘আমরা জেলা জজ, জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে কার্যক্রম পরিচালনা করছি। নারায়ণগঞ্জে পরিচালিত প্রশাসনিক কাঠামো দেশের অন্যান্য যে কোন জেলার তুলনায় মডেল জেলা বলা যায়।’

মাদক নির্মূল প্রসঙ্গে বলেন, জেলার প্রতিটি থানায় মাদক ব্যবসায়ীদের ছবি সহ তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৫জন আটক ও হয়েছে। আজকে সকালেও ছবি দেখে মাদক ব্যবসায়ীকে ধরিয়ে দেয়ায় আমরা ১০ হাজার টাকা পুরষ্কার প্রদান করেছি। এভাবে আমরা মাদক ব্যবসায়ীদের নির্মূলের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।

জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেন, আমি গর্বিত ও আনন্দিত যে আমার সামনেই আমার ব্রাহ্মবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার কসবা থেকে নির্বাচিত এমপি যিনি বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী পদমর্যাদায় রয়েছেন। তিনি আমার এলাকার এমপি। তার সাথে একই মঞ্চে আছি এটাই অনেক প্রাপ্তির বিষয়। আমি বিশ্বাস করি মন্ত্রী মহোদয় একটু সুদৃষ্টি দিলেই জেলার আইনজীবীদের দাবি দাওয়া সমাধান করা সম্ভব।

আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল আইনমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেছেন, আপনি ২০১৬ সালে এসে দেখেছিলেন মাত্র ২ হাজার স্কয়ার ফিট জায়গায় সাড়ে ১২শ আইনজীবী তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এর পাশাপাশি ৪১২ জন মুহুরী ও শিক্ষানবিস রয়েছে আরো ৪৬০ জন যারা আগামী দুই বছরের ভেতরেই বারের সদস্য হবে। ১৪২ জন নারী আইনজীবীরা আড়াইশ স্কয়ার ফিট কমন রুমে অমানবিক ভাবে কার্যক্রম পরিচালিত করছেন। আমরা আদালতের আনাচে কানাচে টেবিল নিয়ে ওকালতি করছি। বৃষ্টি এলে কখনো ফাইল ভিজে অথবা হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকি।

তিনি দুই কোর্ট একত্রিত করার প্রসঙ্গ মনে করিয়ে বলেন, আপনি নীতিগত সিদ্ধান্ত দিয়ে ছিলেন আমাদের। আমরা সেই আশায় বুক বেঁধে আছি অতি সত্ত্বর সেই প্রস্তাবনা পাশ হবে। এছাড়া জেলা জজ সহ সকল জজ গন যেই সরকারী কোয়াটারে থাকেন তাতে দেখা যায় বৃষ্টি হলেই নিচে পানি জমে যায়। অস্বাস্থকর পরিবেশে থাকেন তারা। লজ্জায় হয়ত কিছু বলেন না তারা কিন্তু আমরা বুঝতে পারি।

জুয়েল বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ এত বড় জেলা হওয়া সত্ত্বেও আমাদের আদালত বি গ্রেডের। আমাদের পরিবেশ কোর্ট, মেরিন কোর্ট, লেবার কোর্ট, বিদ্যুৎ কোর্ট নেই যার কারণে ভুক্তভোগী হচ্ছে লাখো মানুষ। ঢাকার এত কাছে থেকেও আমরা এই সুবিধা পাচ্ছি না।’

সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সভাপতিত্ব ও সেক্রেটারী মোহসীন মিয়ার সঞ্চালনায় ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাখেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জের সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী, জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালহে শেখ মুহাম্মদ জহিরুল হক, যুগ্ম সচিব (প্রশাসন-১) বিকাশ কুমার সাহা, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, জেলা পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
rabbhaban
আজকের সবখবর