rabbhaban

নারায়ণগঞ্জে ৬ দিনে ৩ খুন


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ২৮ আগস্ট ২০১৯, বুধবার
নারায়ণগঞ্জে ৬ দিনে ৩ খুন

নারায়ণগঞ্জে খুনের মত হত্যাযজ্ঞ কর্মকান্ড থেমে নেই। নৃশংসভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে নানা হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটছে। সেসব ঘটনায় ফলে মায়েরা কেঁদে বুক ভাসাচ্ছে। আর খুনিদের কেউ কেউ ধরা পড়লেও অনেকে আইনের ফাঁকা দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছে। এভাবেই খুনের মত পৈশাচিক ঘটনা একের পর এক ঘটে চলেছে।

২৩ আগস্ট থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া হত্যকা-ের ঘটনার সচিত্র তুলে ধরা হল। এ সপ্তাতে তিনটিই খুনের ঘটনা ঘটেছে।

২৩ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ শহরের তাতীপাড়ায় সোলেমান হোসেন অপু (২৮) নামের যুবক খুন হয়েছে। অজ্ঞাত পরিচয় দুর্বৃত্তরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। নিহত অপু বাবুরাইল এলাকার আজিজ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া রমজান মিয়ার ছেলে।

পরিবারের লোকজন জানান, অপু বাবুরাইল এলাকার কাশেম ডেকোরেটরের বৈদ্যুতিক মিস্ত্রি। শুক্রবার রাতে বাসা থেকে বের হয়ে তাতীপাড়া এলাকায় যায় অপু। ওই সময়ে অজ্ঞাত লোকজন তাকে ছুরিকাঘাত করে। পরে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় ১০০ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে মৃত্যু ঘটে।

২৩ আগস্ট রূপগঞ্জে জিসান হোসেন (১৬) নামের নবম শ্রেণীর ছাত্রকে পিটিয়ে ও আচড়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। হত্যার ঘটনার পর থেকেই খুনিদের ভয়ে নিহত জিসানের পরিবারের লোকজনসহ আত্মীয় স্বজন এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। হত্যাকান্ডের ঘটনায় পুরো এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

২২ আগস্ট দুপুরে গোলাকান্দাইল এলাকায় সন্ত্রাসীরা জিসান হোসেনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হলে শুক্রবার ২৩ আগস্ট সকালে ঢাকা মেডিকেল  কলেজ হাসপাতালে মারা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সুত্র জানায়, গত ১৫দিন আগে গোলাকান্দাইল মধ্যেপাড়া এলাকার ছাত্রলীগের নামধারী নেতা সৌরভের ছোট ভাই সিয়াম সহ তার লোকজন অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নাগেরবাগ বউবাজার এলাকার মাসুদ রানাকে পিটিয়ে আহত করে। ওই সময় নাগেরবাগ বউবাজার এলাকার লোকজনও পাল্টা সিয়ামের দুই জনকে পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার সকালে নাগেরবাগ বউবাজার এলাকার হৃদয় হাসান শুভ স্কুল ছাত্র জিসান হোসেনকে নিয়ে গোলাকান্দাইল মধ্যেপাড়া এলাকায় ক্রিকেট খেলা দেখতে যায়। নাগেরবাগ বউবাজার এলাকার হওয়ায় গোলাকান্দাইল মধ্যপাড়া এলাকার সৌরভ সহ তার বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী হৃদয় হাসান শুভ ও জিসান হোসেনকে উঠিয়ে রড ও কাঠ দিয়ে পিটিয়ে শরীর থেতলে দেয়। পরে সেখান থেকে তুলে এনে সৌরভের অফিস কক্ষে দুই দফা পেটানো হয়। এক পর্যায়ে প্রকাশ্যে দিবালোকে জিসানকে প্রায় ১০ ফুট উচুঁ থেকে মাটিতে বেশ কয়েকবার আঁচড়ে ফেলা হয়। পরে মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার পরের দিন শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জিসান মারা যায়।

২৩ আগস্ট দাবিকৃত চাদাঁ না পেয়ে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে আহত করার আট মাস পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মাহবুবুর রহমান (৩২) নামে এক যুবক শুক্রবার সকালে ঢাকার একটি হাসপতালে মারা গেছেন।

উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নের লেদামদী গ্রামের বাসিন্দা ও নিহত মাহবুবুর রহমানের স্ত্রী শারমিন আক্তার জানান, চাকরির পাশাপাশি তার স্বামী স্থানীয় ব্যবসা করতেন। গত ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর তার স্বামীর কাছে দাবিকৃত চাদাঁ না পেয়ে পাশ্ববর্তী টেমদী গ্রামের বাসিন্দা রুবেল মিয়া, দেলোয়ার হোসেন, আমির হোসেন, মোমেন মিয়া, কবির হোসেন, রবিন মিয়া, আবু হানিফ, ও আল আমিন মিয়া সহ ১০/১২ জনের একদল বাহিনী রামদা, টেটা ও রড দিয়ে তার স্বামী মাহবুবুর রহমানকে এলো পাথারিভাবে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে তার স্বামীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কয়েকটি বেসরকারী হাসপাতালে দীর্ঘ আট মাস চিকিৎসা পর শুক্রবার সকালে ঢাকার একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিসিইউতে) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।  

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
সংগঠন সংবাদ এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর