rabbhaban

প্যারাডাইস ক্যাবলস চেয়ারম্যানের সাথে শ্রমিকদের ব্যর্থ আলোচনা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৫১ পিএম, ০৮ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার
প্যারাডাইস ক্যাবলস চেয়ারম্যানের সাথে শ্রমিকদের ব্যর্থ আলোচনা

৯ মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে টানা ৬ দিনের আন্দোলনের পর আন্দোলনরত শ্রমিকদের সাথে আলোচনায় বসেছিল প্যারাডাইস ক্যাবলস্ লিঃ এর চেয়ারম্যান মোশারফ। তবে দীর্ঘ এই আন্দোলনের পর আলোচনায় বসেও কোনো সুরাহা হয়নি। ফলে আবারো আন্দোলনে নেমেছে প্রতিষ্ঠানটির শ্রমিকেরা।

৮ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল ৯টায় পুনরায় প্রতিষ্ঠানটির সামনে সমবেত হয়ে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন আন্দোলনরত শ্রমিক নেতারা। এসময় আগামী ১০ অক্টোবর জাতীয় পেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ করে শ্রম মহাপরিদর্শকের কার্যলয় ঘেরাওয়ের মধ্যে দিয়ে আন্দোলন কঠিনভাবে পরিচালিত করার ঘোষণা দেন তাঁরা।

আন্দোলনরত শ্রমিক নেতাদের মাধ্যমে জানা যায়, গত ৭ অক্টোবর রাত ৯টায় ঢাকা গুলশান ক্লাবে শ্রমিক পক্ষে শ্রমিকনেতা মন্টু ঘোষ, জাহাঙ্গীর আলম গোলক, শ্রমিক মো. দেরোয়ার, মো. ইউসুফ, রুবেল, রাসেল, কাইয়ুম, মো. ডালিম সহ মালিক পক্ষে  চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন ও তাঁর সহধর্মীনি ও প্রতিষ্ঠানের সেক্রেটারি মোস্তফা কামালের উপস্থিতিতে আলোচনায় বসে দুই পক্ষ। দীর্ঘ আলোচনায় সমঝোতায় পৌছতে ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসেন শ্রমিক পক্ষ। সমাধান না পেয়ে আবারো আন্দোলনে নামেন প্রতিষ্ঠানটির শ্রমিকরা।

এ প্রসঙ্গে শ্রমিক নেতা ইকবাল হোসেন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘সোমবার রাতে গুলশান ক্লাবে শ্রমিকদের প্রতিনিধিদের সাথে বসেছিল প্যারাডাইস ক্যাবলস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোশারফ। ওই সময় তিনি আবার সময় দাবি করে বলেন চিকিৎসার জন্য আমাকে আমেরিকায় যেতে হবে। আমার হাতে এখন টাকা নেই। আমেরিকা থেকে ফিরে এসে লোন নিয়ে আপনাদের টাকা পরিশোধ করব।’

তিনি আরো বলেন, আলোচনায় তিনি নির্দিষ্ট কোনো তারিখ দেন নাই। শুধু বলেন এক সপ্তাহ পর এক সপ্তাহ পর। অথচ টাকা দেন না। শ্রমিকদেরকে প্রতিষ্ঠানে রাখবে নাকি ছাঁটাই করবে সেই বিষয়েও কিছু বলে না। এইভাবে তো চলতে পারে না। ৯ মাস ধরে শ্রমিকরা বেতন পায় না। বেতন ছাড়া শ্রমিকরা কিভাবে চলবে? তাদের সন্তানেরা না খেয়ে আছে তাই ধৈর্য ধরার প্রশ্নই উঠে না। মালিক আরোও সময় চায় কিন্তু শ্রমিকরা না খেয়ে আছে। আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকেছে। ফলে আন্দোলনই একমাত্র পথ ।

শ্রমিকদের মাধ্যমে জানা যায়, প্যারাডাইস ক্যাবলস লিঃ এ কর্মরত শ্রমিকের সংখ্যা ৪১৫জন। যাদের সবাই দীর্ঘদিন ধরে এই প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছে। সবার ৭-৯ মাসের বকেয়া বেতন আটকে আছে।

শ্রমিকদের সাথে কথা হলে তাঁরা নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, গত কোরবানির ঈদের পূর্বে প্যারাডাইস ক্যাবলসের শ্রমিকদের সাথে প্যারাডাইস টাওয়ারে বসেন প্যারাডাইস ক্যাবলস লিঃ এর বর্তমান চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন। সেখানে চুক্তি হয় যে প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরত সকল শ্রমিকের ২মাসের বকেয়া বেতন ঈদের পূর্বেই পরিশোধ করা হবে। সেই চুক্তি অনুযায়ী আমরা যুক্তিপত্রে সই করি। কিন্তু ঈদের পূর্বে ৮ আগস্ট মোট শ্রমিকের মধ্যে ২৬০জনকে ২মাসের করে বেতন দেয়। বাকি ১৫৫জন শ্রমিকের কোনো বেতন দেওয়া হয় নাই।

ঈদের পরে আমরা আবার মালিকের কাছে গিয়ে বলি যে চুক্তি অনুযায়ি সবার ২মাসের বেতন দেওয়ার কথা। কিন্তু তিনি ১৫৫জন শ্রমিকের বেতন কেন দিলেন না। তখন তিনি বললেন যে এই শ্রমিকগুলাকে নাকি তিনি ছাঁটাই করেছেন। কিন্তু ছাটাই করলেওতো পাওনা পরিশোধ করতে হবে। তখন তিনি বলে যে এই শ্রমিকেরা তাঁর প্রতিষ্ঠানের না। এরা সবাই নাকি বাইরে কাজ করে। কিন্তু আমরা ঈদের ছুটির আগেও যে এখানে কাজ করেছি তার কার্ড দেখাই। পরে তিনি বলে যে এত শ্রমিকের বেতন দেওয়া সম্ভব না। আমাকে একটু সময় দেন আমি সবার বেতন দিয়ে দিব।

এর পর গত ২৪ সেপ্টেম্বর যে ২৬০জন শ্রমিককে বেতন দেওয়া হয়েছিল তাদের মধ্যে ১৯ জনকে আবার ১মাসের করে বেতন দেওয়া হয়। অন্য শ্রমিকরা কোনো বেতন পায় নাই। এই ভাবেই আমাদেরকে ঘুরানো হচ্ছে। আমরা আর তার কথায় ভরসা পাচ্ছি না। আমাদের ভয় হচ্ছে যদি সে আমেরিকা যায় আহলে আর দেশে আসবে না। তাই প্রশাসনের কাছে দাবি যাদে দেশ ছাড়ার আগেই আমাদের প্রাপ্ত বেতনের ব্যবস্থা করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর