rabbhaban

প্যারাডাইজ ক্যাসেল সম্পর্কে বিভ্রান্তিমূলক সংবাদের ব্যাখ্যা


প্রেস বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত: ০৯:১২ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
প্যারাডাইজ ক্যাসেল সম্পর্কে বিভ্রান্তিমূলক সংবাদের ব্যাখ্যা

সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় কিছু পত্রিকায় চাষাঢ়া বালুর মাঠ এলাকায় অবস্থিত প্যারাডাইজ ক্যাসেল সম্পর্কে প্রকাশিত সংবাদে কিছু বিভ্রান্তিমূলক তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে যা আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

রাজউকের অনুমোদন নিয়ে ১৪তলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। পারিবারিকভাবে বন্টননামার মাধ্যমে যথাক্রমে- মোশাররফ হোসেন, মোবারক হোসেন, মজিবুর রহমান ও মনিয়ার হোসেন এর নামে ফ্লোরগুলো বন্টন করা হয়েছে। আমাদের ৪ ভাইয়ের মধ্যে মোবারক হোসেনের নামে ৮তলা, ৯তলা এবং ১০তলার মালিকানা রয়েছে। অন্যান্য ফ্লোরগুলো আমাদের তিন ভাইয়ের মালিকানায় রয়েছে। যা বিভিন্ন স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের নিকট ভাড়া দেওয়া আছে। মোবারক হোসেন তার নিজস্ব তিনটি ফ্লোর কোন প্রতিষ্ঠানের নিকট ভাড়া দিয়েছে তা আমাদের জানা নেই। তবে প্যারাডাইজ ক্যাসেলের বিষয়ে সংবাদ পরিবেশনের পর আমরা ৮, ৯ ও ১০ তলার ফ্লোরে ভাড়া দেয়ার বিষয়ে জনাব মোবারক হোসেনের কাছে জানতে চেয়েছি। প্রকাশিত সংবাদের সত্যতা অনুযায়ী এ ধরনের কোনো প্রকার অসামাজিক ও অনৈতিক কাজের প্রতিষ্ঠানের কাছে যাতে প্যারাডাইজ ক্যাসেল ভবনে ভাড়া না দেয়া হয় সেজন্য মোবারক হোসেন এবং তার ম্যানেজার শাহাদাত হোসেনকে সতর্ক করা হয়েছে। উপরোক্ত সংবাদে আমাদের তিন ভাইকে সম্পৃক্ত করে যে সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে এ ব্যাপারে আমরা তিন ভাই কোনোভাবেই সম্পৃক্ত নই। প্যারাডাইজ গ্রুপ দেশের মধ্যে একটি সুপ্রতিষ্ঠিত এবং স্বনামধন্য শিল্প গ্রুপ। এ প্রতিষ্ঠান দেশের সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি। এর সুনাম ক্ষুন্ন হোক এমন ধরনের কাজ থেকে আমরা সবসময় বিরত রয়েছি। এজন্য যে কোন সংবাদ প্রকাশের সময় আমাদের প্রতিষ্ঠান এবং তিন ভাইয়ের নাম প্রকাশ না করার জন্য সকলকে অনুরোধ জানাচ্ছি। জনাব মোবারক হোসেন তার নিজ দায়িত্বে ভাড়া দিয়েছেন। কোনো অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ হলে এর দায়-দায়িত্ব তাকে বহন করতে হবে।

বিনীত
মোশাররফ হোসেন
মজিবুর রহমান
মনিয়ার হোসেন

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
সংগঠন সংবাদ এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর