rabbhaban

আড়াইহাজারে এসি ল্যান্ডের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ


আড়াইহাজার করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার
আড়াইহাজারে এসি ল্যান্ডের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ

আড়াইহাজার উপজেলার সহকারী কমিশার ভূমি শেখ জাহিদ হাসান প্রিন্সের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সহকারী কমিশনার ভূমি শেখ জাহিদ হাসান প্রিন্স এক প্রতিবাদ লিপিতে জানান, বিগত ০২-০১-২০১৯ খ্রিঃ তারিখে বিবিধ মোকাদ্দমা ৪০৮/২০১৮ এর রায় সহকারী কমিশনার (ভূমি), আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ প্রদান করেন।

কিন্তু উক্ত বিবিধ মোকাদ্দমা ৪০৮/২০১৮ এর বিবাদী কাজী সাজাহান, পিতা- মৃত আঃ মালেক,সাং-কান্দাইল, উপজেলা, নরসিংদী সদর, জেলা ঃ নরসিংদী। উক্ত মামলার রায় প্রদানের পরও বিগত ০৬-০৩-২০১৯ খ্রিঃ তারিখে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আড়াইহাজার এর স্বাক্ষর ও সীল স্ক্যান করে ভুয়া হাজিরা প্রদান করেছেন।

যেটি পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে, মিস মোকাদ্দমাটির নাম্বার ৪৩৮/২০১৮ এবং তিনি সেখানে নিজের নাম উল্লেখ করেছেন কাজী শাজান। বিগত ২৬-০২-২০১৯ খ্রিঃ তারিখে একইভাবে স্বাক্ষর ও সীল স্ক্যান করে তিনি ভুয়া হাজিরা প্রদান করেছেন মামলার রায় প্রদানের পর। পরবর্তীতে আবার সহকারী কামশনার (ভূমি) এর স্বাক্ষর ও সীল স্ক্যান করে ২২-০১-২০১৯খ্রিঃ তারিখে ভুয়া হাজিরা প্রদান করেছেন। যেখানে ২২-০১-২০১৯ খ্রিঃ তারিখের স্থলে ২২-০১-১৯ ব্যবহার করেছেন যা নি:সন্দেহে জাল বলে প্রতিয়মান হয়।

পুনরায় কাজী শাহজাহান ০২-০১-২০১৯খ্রিঃ তারিখে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর স্বাক্ষর ও সীল জাল করে ভূয়া হাজিরা প্রদান করেছেন এবং তার নিচে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর স্বাক্ষর এর নিচে তারিখ প্রদর্শন করা হয়ছে ১২/০১/২০১৯ খ্রিঃ যা জাল বলে প্রতীয়মান হয় এবং বিবিধ মোকাদ্দমা ৪০৮/২০১৮ এর নথি পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, বিবাদী কাজী শাজাহান ওইদিন অনুপস্থিত ছিলেন। শুধু তাই নয় কাজী শাজাহান গত ০৬/১১/২০১৮ খ্রিঃ তারিখে হাজিরা প্রদান করেছেন যেখানে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর স্বাক্ষর রয়েছে মোঃ রেজওয়ান-উল-ইসলাম এর, অথচ মোঃ রেজওয়ান-উল-ইসলাম বিগত ০১-১১-২০১৮ খ্রিঃ তারিখে এ কর্মস্থল থেকে বদলি নারায়ণগঞ্জ সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে চলে যান। সুতারাং এখানে এই স্বাক্ষরটি সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয় কে প্রতারনা, মানহানি করা এবং উক্ত জাল স¦াক্ষরগুলোকে খাঁটি হিসেবে ব্যবহার করে কাজী সাজাহান তার অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করেছেন। সার্বিকভাবে এই অপকর্মে শুরু থেকেই ইন্দন যোগিয়েছে এবং জালিয়াতিতে অংশগ্রহন করেছেন ইসমাইল ভুইয়া সাকের নামের এক ব্যাক্তি। সে আলোচ্য মিস মোকাদ্দমা ৪০৮/২০১৮ কোন ক্ষমতাপত্র ছাড়াই বিবাদীর পক্ষে ভুয়া স্বাক্ষর করেছে। সার্বিকভাবে এহেন কর্মকান্ডে উপজেলা ভূমি অফিস, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সুনাম নষ্ট করার জন্য এই জালিয়াতেরা তাদের হেয় অভিপ্রায় চরিতার্থ করার জন্য এবং অবৈধ সুবিধা নেওয়ার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ের মামলার নথি জাল দলিল কে খাঁটি হিসাবে ব্যাবহার করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, নারাযনগঞ্জ থেকে অবৈধ সুবিদা নেওয়ার পায়তারা করছিলেন যেটি ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়। এই ঘটনায় অভিযুক্তরা সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করেছেন । আমি তার প্রতিবাদ জানাই।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর