rabbhaban

হামলার পরে আতঙ্ক ইসদাইরে


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৫৪ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার
হামলার পরে আতঙ্ক ইসদাইরে

নারায়ণগঞ্জ শহরের ইসদাইর ও এর আশপাশ এলাকাতে একদল সশস্ত্র বাহিনীর হামলার পরে সেখানে এখনো আতঙ্ক বিরাজ করছে। শনিবার রাতে হামলার পর রোববার ২৫ আগস্ট সকাল থেকেও স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক ছিল।

স্থানীয়রা জানান, এ এলাকাতে প্রায়শই এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে। কিন্তু এলাকার লোকজন ওইসব সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের ভয়ে কথা বলতে পারে না।

এদিকে শনিবার রাতের ঘটনায় রোববার রাত অবধি কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি। ওসি আসলাম হোসেন জানান, এ ব্যাপারে কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি। তবে আমরা খবর শুনেছি। আমাদের টিম কাজ করছে। অরাজকতাকারীদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে। কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয়রা জানায়, সম্প্রতি একটি মোবাইল চুরির ঘটনা নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে ফতুল্লার পূর্ব ইসদাইর এলাকার কমল, পায়েল, রুবেল, সাব্বির, রাকিব আকাশ ও গ্রুপের সঙ্গে পশ্চিম ইসদাইর কাপুড়াপট্রি এলাকার রকি ও বাদল গ্রুপের। এনিয়ে শনিবার রাত ৯ টায় পূর্ব ইসদাইরের কমল গ্রুপের প্রায় ৪০-৫০জনের একটি দল ২০-২৫ টি রামদা নিয়ে পশ্চিম ইসদাইর কাপুড়াপট্রি এলাকায় প্রবেশ করে।

ওই সময় তারা নির্বিচারে সাধারণ মানুষের বাড়িঘর ভাঙচুর করে বাড়িঘরের জানালার কাঁচ, দরজা ও স্থানীয় দোকানে শাটার কুপিয়ে রেখে যায়। এক পর্যায়ে তারা স্থানীয় মুদী দোকানী পলাশের দোকানে থাকা মালপত্র নিয়ে লুট করে নিয়ে যায়।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় বাড়িওয়ালা কৃষ্ণা, সাজেন, রমজান, সমবায় কাশেম, নজরুল, অপু  ইমতিয়াজ ও আলী মিয়ার বাড়িসহ প্রায় অর্ধশত বাড়িঘওে ব্যাপক ভাংচুর করে তান্ডব চালানো হয়েছে। প্রত্যেকটি বাড়ির জানালার কাঁচ ও দরজা ভেঙ্গে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা।

এ বিষয়ে স্থানীয় বটতলা এলাকার বাসিন্দা নূরুল ইসলাম জানান, প্রায় অর্ধশত যুবকের মধ্যে সবার হাতে ধারালো রামদা ছিল। তারা নির্বিচারে হামলা করে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। কিন্তু কেন করেছে সাধারণ মানুষ কিছুই জানে না।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর