rabbhaban

বন্দরে বালু ব্যবসায়ীকে হত্যা, বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:১৭ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার
বন্দরে বালু ব্যবসায়ীকে হত্যা, বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে খোকন (৩৫) নামে বালু ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার কুড়িপাড়া এলাকা থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

খোকন কুড়িপাড়া এলাকার সালাউদ্দিন সালু মাদবরের ছেলে। এ ঘটনায় হত্যাকারী সন্দেহে আল আমিন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা হাতুড়ি ও ছিনিয়ে নেয়া মোবাইল সেট এবং নগদ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত খোকন মিয়া দুইদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নিপা আক্তার বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১টায় বন্দর থানায় নিখোঁজের জিডি করেছেন। জিডিতে উল্লেখ করা হয়, ১৮ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৯টায় পাওনাদারকে টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য কুড়িপাড়া এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীর ড্রেজার থেকে ৭০ হাজার টাকা আনতে বাসা থেকে বের হয়। রাতে ড্রেজার থেকে ৭০ হাজার টাকা নিয়ে বের হওয়ার পরই নিখোঁজ হয় খোকন।

বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আল আমিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে প্রতীয়মান যে টাকা দেনা পাওনার জন্য বালু ব্যবসায়ীকে খোকনকে খুন করে আল আমিন। সে হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে বলে স্বীকার করে।  নিহতের মাথা সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতে চিহ্ন আছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা যাচ্ছে, বাঁশ কিংবা কাঠ দিয়ে মারধর করার পর শ্বাসরোধে হত্যা করে। লাশ গুম করার প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে লাশ শীতলক্ষ্যা নদীতে ফেলে দেয়া হয়। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

আল আমিনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জানায়, ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিতে সে সহ আরো একজন মিলে খোকনকে ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ওই ঘরে নিয়ে আটকে রাখে। সেখানে মারধর করার পর খোকন মারা যায়। পরে লাশ বস্তায় ভরে ঘরে পিছনে খালে ফেলে দেয়। আর আল আমিনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী খোকনের ছিনিয়ে নেওয়া ৭০ হাজার টাকার মধ্যে ৩০ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর