rabbhaban

আড়াইহাজারে ১০ দিনে ৩ খুন, ১ ডাকাতি


আড়াইহাজার করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৬:৫৮ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার
আড়াইহাজারে ১০ দিনে ৩ খুন, ১ ডাকাতি

নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলার গত ১০ দিনে ৩ খুন ও ১ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় পৃথক মামলা হলেও কোন আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ৮ অক্টোবর থেকে ১৮ অক্টোবর (শুক্রবার) পর্যন্ত এই সকল ঘটনাগুলো ঘটে। এ ব্যাপারে পৃথক মামলা হলেও পুলিশের খাতায় কোন আসামী গ্রেফতারের তালিকায় নেই।

জানা গেছে, ৮ অক্টোবর দিনগত রাত আড়াইটায় উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের রাধানগর এলাকায় ডাকাতির সংঘটিত হয়েছে। রাধানগর বাজারের চারটি দোকান থেকে ৭০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

স্বর্ণের দোকানদার উজ্জল জানান, রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যাই। গভীর রাতে মার্কেটের নৈশপ্রহরী আব্দুল ও হাশেমের হাত পা বেধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৩০/৩৫ জনের একটি ডাকাতদল মার্কেটের তিনটি স্বর্ণের দোকান ও একটি মোবাইলের দোকানের তালা ভেঙ্গে ডাকাতি করে। এসময় ডাকাতদল তার স্বর্ণের দোকান হতে ৭০ ভরি স্বর্ণালংকার, ৪০ কেজি রুপা ও নগদ ৭ লাখ টাকা লুটে নিয়ে যায়।

একই দিনে আড়াইহাজার উপজেলার পুরিন্দায় পারভেজ ওরফে মজিবুর রহমান (১৮) নামের মোটর মিস্ত্রিকে জবাই করে হত্যা করেছে দৃবৃর্ত্তরা। নিহত পারভেজ ওরফে মজিবুর ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জের বৈড়াদীর মাইজবাগ এলাকার তারা মিয়ার ছেলে। সে আড়াইহাজার উপজেলার পুরিন্দার সাতগ্রামের জুয়েলের মোটর গ্যারেজে কাজ করতো।

মটর গ্যারেজের মালিক জুয়েল জানান, তার দোকানে পারভেজ ও সুমন নামের দুইজন কাজ করে। রাতের বেলা তারা দুইজন দোকানে ঘুমায়। রাতে তাদের দুইজনকে দোকানে রেখে বাড়িতে চলে যায়। পরদিন সকাল দোকানে এসে দেখি দোকান তালা বন্ধ। পরে তাদের দুইজনের মোবাইলে ফোন করে মোবাইল বন্ধ পেয়ে বাড়ি থেকে দোকানের চাবি এনে দোকান খুলে দোকানের ভিতরে দেখি পারভেজের লাশ মাটিতে পড়ে রয়েছে।

১৩ অক্টোবর উপজেলার কড়ইতলা গ্রামে কুলসুম বেগম (২২) নামে গৃহবধূকে পিটিয়ে মারা যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কুলসুম বেগম উপজেলার মানিকপুর এলাকার হক মিয়ার মেয়ে। আর পলাতক স্বামী শাহ আলম (২৫) উপজেলার কড়ইতলা এলাকার জলিল মিয়ার ছেলে। তাদের সংসারে জহিদ হোসেন নামে ৫ মাসের ছেলে সন্তান রয়েছে।

নিহতের বড় বোন মিনারা বেগম অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে শাহআলম স্থানীয় একটি মেয়ের সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এতে বাধা দিয়ে আসছিল স্ত্রী কুলসুম বেগম।

এছাড়া উপজেলার উত্তর কলাগাছিয়া গ্রামে পাষন্ড স্বামী তার স্ত্রী দুই সন্তানের জননী ছালেহা বেগমকে (৩০) জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। ৯ অক্টোবর সকালে পুলিশ নিহতের নিজ ঘর থেকে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের বাবা হাসান আলী জানান, ১৫ বছর আগে মাধবদী থানার খাদিমার চর গ্রামের মৃত আঃ খালেকের ছেলে মোবারক হোসেনের সঙ্গে তার মেয়ে ছালেহার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মোবারক হোসেন তার স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ীতেই থাকতো। ইতোমধ্যে তাদের একটি কন্য ও একটি পুত্র সন্তান হয়েছে। কন্যা সুমাইয়া (১০) ও পুত্র মেহেদী হাসান (৯)। ঘটনার দিন রাতে স্বামী স্ত্রী এক সঙ্গে ঘুমাতে যান। মধ্য রাতে মোবারক তার স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনার স্বাক্ষী নিহতের ছেলে মেহেদী হাসান নিজেও। ঘটনার পর ছেলের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন জড়ো হয়ে ছালেহাকে জবাই করা ও মৃত অবস্থায় ঘরে পড়ে থাকতে দেখে এবং পুলিশে সংবাদ দেয়। তাছাড়া ও ৩ অক্টোবর জাঙ্গালিয়া ও বৃহস্পতিবার রাতে কালাবাড়ী এলাকায় রাস্তায় ছিনতাই হয়।

আড়াইহাজার থানার ওসি মো: নজরুল ইসলাম জানান, ডাকাতির ঘটনায় সন্দেহ জনক ভাবে একজনকে আটক করা হয়েছে। আর হত্যাকান্ডের ব্যাপারে অনেক দূর এগিয়ে গেছি। আশা করি দ্রুত গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর