কারা আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন জানি : রশিদ


বন্দর করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:২৫ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার
কারা আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন জানি : রশিদ

বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম এ রশীদ বলেছেন, জনগনের কাজ করেন জনগন আপনাকে নেতা বানাবে। কোন নেতাকে তেল মালিশ করে নেতা হওয়ার চেষ্টা করবেন না। সংবর্ধনা আমরা সেদিন নিব যে দিন আমরা আপনাদের জন্য ভালো কাজ করতে পারব। দলের ভিতরে যারা পদ পদবি আশায় আছেন। আমি আপনাদের বলব আপনারা ভালো কাজ করুন। ভালো কাজ করলে নেতারা আপনাকে ডেকে নিয়ে পদ দিবে। জনগনই আপনাকে নেতা বানাবে। কারা আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন আমি সবাইকে চিনি ও জানি।

১৩ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকেল ৪ টায় হাজী আব্দুল মালেক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বন্দর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কর্তৃক আয়োজিত সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

এম এ রশীদ আরো বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ভিতরে মুক্তিযোদ্ধের চেতনা ছিল না। আমার নেত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মাধ্যমে ডিজিটাল সোনার বাংলা গড়ে তুলেছে। সারা বিশে^ বাংলাদেশ এখন রোল মডেল।

বন্দর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো শহিদুল্লাহর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন পনিরের সঞ্চালনায় সংবর্ধণা অনুষ্ঠনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবু হাসনাত মোঃ শহিদ বাদল।

উপস্থিত ছিলেন বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান, বন্দর ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড সভাপতি মোঃ শাহাবুদ্দিন, বন্দর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আলী হোসেন, ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা আজহারুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিরুজ্জামান, সাধারন সম্পাদক একেএম ইব্রাহিম কাশেম, যুবলীগ নেতা শাহাদাত হোসেন, বন্দও ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি মো জনী, সাধারন সম্পাদক শামীম, ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোক্তার হোসেন, সাধারন সম্পাদক ফজল হক, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি জুয়েল, সাধারন সম্পাদক মনির হোসেন, সহ সভাপতি আলমগীর হোসেন মাছুম ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক শাহীন, যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর