আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা আলোচিত


বন্দর করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার
আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা আলোচিত

বন্দরে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আক্তার হোসেন কর্তৃক শ্রমিক নির্যাতনের ঘটনায় প্রকাশিত সংবাদে বন্দরে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। শ্রমিক নির্যাতন-ই নয় আওয়ামীলীগ নেতা আক্তার হোসেনের বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতি ফুঁসে উঠেছে খোদ নিজ দলের নেতাকর্মীরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কলাগাছিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা বদমেজাজী আক্তার হোসেনের বহিস্কারের দাবি জানিয়েছে জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের কাছে। সেইসাথে নির্যাতিত শ্রমিক কামরুজ্জামানের পরিবার আওয়ামীলীগনেতা আক্তার হোসেনের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে প্রশাসনের কাছে।

বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছে, শ্রমিক নির্যাতনের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপরাধী যে দলের হোক আমরা তাকে কোন প্রকার ছাড় দিবনা। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যহত রেখেছে। আমরা তাকে দ্রুত গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছি।

উল্লেখ্য, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আক্তার হোসেনের মালিকানাধীন একটি তারাকাটা ফ্যাক্টরীতে কাজ নেয় কান্দিপাড়া এলাকার রহিম উদ্দিন মিয়ার ছেলে কামরুজ্জামান (৩২)। এর ধারাবাহিকতায় গত ২০ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০টায় তারকাটা ফ্যাক্টরীর ৩টি মেশিন নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে তারাকাটা উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে তারাকাটা ফ্যাক্টরী মালিক ও বদমেজাজী আওয়ামী লীগনেতা আক্তার হোসেন উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানে এসে কামরুজ্জামানকে অকথ্য ভাষা গালাগালি করে। পরে এক পর্যায়ে শ্রমিক কামরুজ্জামানকে ফ্যাক্টরীর ভিতরে বেদম পিটিয়ে অচেতন করে ফেলে। পরে অন্যান্য শ্রমিকরা মুমুর্ষ অবস্থায় উক্ত শ্রমিককে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা স্যার সলিমুল্লা হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় নির্যাতিত শ্রমিকের বড় ভাই স্থানীয় ভাবে বিচার চেয়ে ব্যার্থ হয়। পরে তিনি এ ঘটনায় গত বুধবার রাতে বদমেজাজী আওয়ামীলীগ নেতা আক্তার হোসেন (বিএ) বিরুদ্ধে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর থেকে পাষান্ড আওয়ামীলীগ নেতা পলাতক রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর