রূপগঞ্জে যুবককে গলাকেটে হত্যা


রূপগঞ্জ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ৩০ মে ২০২০, শনিবার
রূপগঞ্জে যুবককে গলাকেটে হত্যা

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে দ্বন্ধের জের ধরে রাজন নামের এক যুবককে গলা কেটে দেওয়ার ১৬দিন পর মারা গেছেন। ২৯ মে শুক্রবার রাতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ১৬ দিন পর রাজনের মৃত্যু হয়। নিহত রাজন সোনারগাঁও উপজেলার আমগাঁও এলাকার তোফাজ্জল মিয়ার ছেলে।

নিহতের মামা আলতাফ কাজী জানায়, রূপগঞ্জ উপজেলার কাজীপাড়া এলাকায় রাজনের মামার বাড়ি। রাজন সেখানেই থাকতেন। রাজন রূপসী এলাকায় একটি সমবায় সমিতি পরিচালনা করতো। এ কারণে রূপসীর বিভিন্ন এলাকায় তার কিছু সমিতির গ্রাহক ছিল। কলাবাগান এলাকার একটি সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্র পেশা গোপন করে তার কাছ ঋণ নেয় বলে জানা যায়। এ ঋণের টাকা পরিশোধ করা নিয়ে মাদক ব্যবসায়ী চক্রটির সঙ্গে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

গত ১৩ মে সন্ধ্যায় ইফতারের পর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাজন ডেকে নিয়ে ওই মাদক ব্যবসায়ী চক্রটি তাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা চালায়। পরে স্থানীয়রা শব্দ শুনতে পেয়ে রাজনকে গুরুতর অবস্থায় প্রথমে স্থানীয় লাইফ এইড হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান। রাজনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসকরা সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠান। গত শুক্রবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরিবারের লোকজন দাবি করছেন মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বিরোধের জের ধরে রাজনকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা তোফাজ্জল মিয়া বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দেন।

স্থানীয়রা জানান, রূপসী কলাবাগান এলাকাটি নির্জন ও সুনশান হওয়া এটি মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবীদের আখড়ায় পরিনত হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের দৌড়াত্ব কমাতে স্থানীয় লোকজন পুলিশ ও জনপ্রতিনিধিদের জানালো কোন প্রতিকার পাননি। এ কারণে দিনদিন মাদক ব্যবসায়ীদের দৌড়াত্ম্য আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, এ ধরনের ঘটনার কথা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত মোতাবেক অপরাধীদের খুজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর