rabbhaban

বাঁচতে চায় হাফিজুল


প্রেস বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
বাঁচতে চায় হাফিজুল

অর্থাভাবে নিভে যাচ্ছে হাফিজুল ইসলামের জীবনপ্রদীপ। দুই সন্তানের বাবা হাফিজুলের দুটি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। আড়াইমাসের মধ্যে কিডনি প্রতিস্থাপন করা না গেলে চিরতরে হারিয়ে যেতে পারেন তিনি। তবে তাঁর এ বিপদে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ছোট বোন শামীমা আক্তার। একটি কিডনি দিতে চেয়েছেন তিনি। তবে তা প্রতিস্থাপনসহ চিকিৎসা ব্যয় বাবদ ৩০ লাখ টাকা প্রয়োজন।

হাফিজুল বর্তমানে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক সুলায়মান কবীরের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

ছয় বছর ধরে কিডনিজনিত সমস্যার কারণে এরই মধ্যে অনেক খরচ হয়ে গেছে হাফিজুলের পরিবারের। তাঁর বাবাও ভুগছেন বিভিন্ন রোগে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম তাঁর বড় ভাই আসাদুজ্জামান। হাফিজুলের চিকিৎসায় তাঁর একার পক্ষে এ ব্যয়ভার বহন করা কঠিন হয়ে পড়েছে। আর এ জন্য হাফিজুলের চিকিৎসা খরচ মেটাতে সমাজের হৃদয়বান ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন হাফিজুল ও তাঁর পরিবার।

হাফিজুল যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়া, অর্থাৎ পুরোনো বেনাপোল বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা। তিনি যশোর জিলা স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র।

হাফিজুল ইসলামের চিকিৎসায় কেউ সহায়তা করতে চাইলে : বিকাশ নম্বর : ০১৮৮০৭০৭৯০৯ (পার্সোনাল)। হাফিজুলের মোবাইল নম্বর : ০১৭১৩৯৯২৫৭৮ (কেউ যোগাযোগ করতে চাইলে)।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর