প্যানেল মেয়রের দায়িত্ব নেই কিছুই


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ০৩ অক্টোবর ২০১৭, মঙ্গলবার
প্যানেল মেয়রের দায়িত্ব নেই কিছুই

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র নির্বাচন নিয়ে কোটি টাকার লেনদেনের খবর এখন টক অব দ্যা নারায়ণগঞ্জ। প্যানেল মেয়র নির্বাচন নিয়ে হয়েছে নানা খেলা। ঘটেছে রাজনৈতিক সমীকরণ। কিন্তু যে পদ নিয়ে এত ঘটনা সেই পদের দায়িত্ব কতটুকু। সেটা নিয়েই চলছে এখন আলোচনা।

জানা গেছে, মেয়র অনুপস্থিতি কিংবা অসুস্থতাহেতু বা অন্য কোন কারণে মেয়র দায়িত্ব পালনে অসমর্থ হইলে তিনি পুনরায় স্বীয় দায়িত্ব পালনে সমর্থ না হওয়া পর্যন্ত এই আইনের ধারা ২০ অনুযায়ী জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে মেয়রের প্যানেলের কোন সদস্য মেয়রের সকল দায়িত্ব পালন করিবেন।

(২) পদত্যাগ, অপসারণ অথবা মৃত্যুজনিত কারণে মেয়রের পদ শূন্য হইলে শূন্য পদে নব নির্বাচিত মেয়র কার্যভার গ্রহণ না করা পর্যন্ত জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে মেয়রের প্যানেলের কোন সদস্য মেয়রের সকল দায়িত্ব পালন করিবেন।

প্রসঙ্গ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র পদে জয়ী হয়েছেন আফরোজা হাসান বিভা, মতিউর রহমান মতি ও মিনোয়ারা বেগম মিনু। বুধবার ২৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে সিটি করপোরেশনের নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে সিটি করপোরেশনের মাসিক সভা শেষে ওই ভোট সম্পন্ন হয়।

প্যানেল মেয়র-১ পদে জয়ী হবার পর প্রতিক্রিয়ায় আফরোজা হাসান বিভা নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমি সকল কাউন্সিলরদের কাছে কৃতজ্ঞ, যারা আমাকে ভোট দিয়েছেন তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞ। আমি সকলের জন্য যেন কাজ করতে পারি সেজন্য দোয়াপ্রার্থী এবং আমি আমার শেষ দিন পর্যন্ত সকলের জন্য কাজ করে যেতে চাই।

প্যানেল মেয়র-২ পদে জয়ী মতিউর রহমান মতি নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমার উপর যে দায়িত্বই অর্পিত হবে সে দায়িত্বই আমি সঠিকভাবে পালনের জন্য সর্বাত্তক চেষ্টা করবো। নির্বাচনে বাকী যারা জয়ী হয়েছেন তাদের প্রতিও শুভেচ্ছা রইলো। যারা এখানে অংশগ্রহণ করেছে সকলেই যোগ্য, আমি সবাইকে নিয়েই একসাথে কাজ করতে চাই।

মিনোয়ারা বেগম মিনু নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমাকে যারা ভোট দিয়েছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। এ ছাড়াও আমি সকলের প্রতিই কৃতজ্ঞ। বিগত সময়ের চেয়ে আরো বেশী উদ্যমী হয়ে আমি সকলের সাথে মিলে কাজ করতে চাই, সবাইকে নিয়েই সামনের দিকে এগুতে চাই।

প্যানেল মেয়র -১ পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। তাঁরা হলেন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর আফরোজা হাসান বিভা, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল করিম বাবু। ভোটে বিভা ১৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী বাবু পেয়েছেন ১৩ ও খোরশেদ পেয়েছেন ৫ ভোট। একটি ভোট বাতিল হয়।

প্যানেল মেয়র-২ পদে ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে প্যানেল মেয়র-৩ পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। তারা হলেন মিনোয়ারা বেগম মিনু, শারমিন হাবিব বিন্নী ও আয়েশা আক্তার দিনা। কাউন্সিলরদের ভোটে মিনু ও বিন্নী ১৩টি করে ভোট পান। একটি ভোট বাতিল হয়। আর দিনা পান ৮ভোট। পরে আইভী ভোট দিলে ১৪ ভোটে জয়ী হন মিনু।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
-->
newsnarayanganj24_address
রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর