rabbhaban

আদালতে বিএনপির দুই মনোনয়ন প্রত্যাশীর ফটোসেশনকে ঘিরে কৌতুহল


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৪৮ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার
আদালতে বিএনপির দুই মনোনয়ন প্রত্যাশীর ফটোসেশনকে ঘিরে কৌতুহল

দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে। আর এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মাাঝে বইছে উচ্ছ্বাস। দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহে পড়ে যায় হিড়িক। তারই ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসন থেকে বিএনপি দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ২০ জন।

এদের মধ্যে আলোচিত দুই মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেন আজাহারুল ইসলাম মান্নান ও এটিএম কামাল। আজহারুল ইসলাম মান্নান জেলা বিএনপির সহ সভাপতি, সোনারগাঁ থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং এটিএম কামাল নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দাপিত্ব পালন করছেন। এরা দুইজনেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে বিএনপির মনোনয়ন পত্যাশী। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নের দৌড়ে মান্নানের সম্ভাবনা রয়েছে প্রবল।

এই দুই মনোনয়ন প্রত্যাশী ২০ নভেম্বর মঙলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ আদালতাপাড়ায় এসেছিলেন নাশকতা মামলায় হাজিরা দিতে। হাজিরা দিতে দেখা হয়ে যায় একে অপরের সাথে। মনোনয়ন সংগ্রহের দিক দিয়ে তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও বাস্তবে তারা একে অপরের সাথে সোহাদ্যপূর্ণ আচরণ দেখিয়েছেন। রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয়ে খুবই ঘনিষ্টভাবে কথা বলেছেন দীর্ঘক্ষণ। তাদের সম্পর্ক দেখে কেউই মনে করবে না তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। বরং তাদের একসঙ্গে ফটোসেশনে কৌতুহল ছিল সাধারণ মানুষের মাঝেও।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। তিনি (আজহারুল ইসলাম মান্নান) বলেছেন, মনোনয়ন ফরম তো অনেকেই সংগ্রহ করেছেন, যাদেরকে আন্দোলন সংগ্রামে দেখা যায় নি, তারাও সংগ্রহ করেছেন। তবে দল ত্যাগী নেতাদেরকেই মূল্যায়ণ করবে। দল যাকেই মনোনয়ন দেয় আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো। দল ও দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে আমাদের সকলকেই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

যদিও এ বিষয়ে আজহারুল ইসলাম মান্নানের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনে বিএনপির বাকী মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও জেলা বিএনপির সদস্য সাবেক মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম, সোনারগাঁ থানা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর, কেন্দ্রীয় নেতা অলিউর রহমান আপেল, সোনারগাঁও বিএনপির সহ সভাপতি রিয়াজ উদ্দীন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী নজরুল ইসলাম টিটু, কাঁচপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাজী সেলিম হক, ছাত্রদলের সাবেক নেতা আজিজুল হক আজিজ, নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান স্বপন, জামপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আল মুজাহিদ মল্লিক, ছাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান মাছুম, বারদী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আলী আসগর, পিরোজপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সিরাজুল হক ভূঁইয়া, শম্ভুপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর, সোঁনারগা থানা শ্রমিকদলের সভাপতি মজিবর রহমান, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজিব, সোনারগাঁও থানা বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান ও নারায়ণগঞ্জ জেলা যবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম চয়ন।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর