সাংবাদিকের উপর চটলেন সেলিম ওসমান


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১২:১৭ এএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার
সাংবাদিকের উপর চটলেন সেলিম ওসমান ফাইল ফটো

পোস্টারে ছবি প্রসঙ্গে জানতে চাওয়ায় সাংবাদিকের উপর টড়চটেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান। রবিবার ২৩ ডিসেম্বর দুপুরে আমলাপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হোন নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের বর্তমান এই সংসদ সদস্য। ওই সময়ে পোস্টারে ছবি ইস্যুতে প্রশ্ন করতেই পাল্টা জবাবে চটে যান এমপি। তিনি ওই সময়ে প্রশ্ন করার যোগ্যতা সাংবাদিক রাখেন না বলেও জানান।

এ সময় সাংবাদিকদের মধ্য থেকে তাকে প্রশ্ন করা হয় ? বিভিন্ন এলাকায় আপনার নির্বাচনী পোস্টারে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ছবি দেখা যাচ্ছে। এই প্রসঙ্গে আপনি কিছু বলতে চান কী না?

জবাবে সেলিম ওসমান বলেন, ‘আই এম নট এ পলিটিশিয়ান (আমি রাজনৈতিক নই)। আই এম এ এডভাইজার (আমি একজন উপদেষ্টা)। আই এম প্রেসিডেন্ট অব দ্যা বিকেএমইএ (আমি বিকেএমইএ`র সভাপতি)। আই এম ডাইরেক্টর অব দ্য ফেডারেশন (আমি ফেডারেশন পরিচালক)। নাও অলসো দ্য পার্লামেন্ট মেম্বার (এবং এখন একজন সংসদ সদস্য)।’

প্রশ্ন করা হয়-কিন্তু আপনি জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী। সেক্ষেত্রে আওয়ামীলীগ সভানেত্রীর ছবি আপনি পোস্টারে ব্যাবহার করতে পারেন কী না।

জবাবে সেলিম ওসমান বলেন, ‘আমি জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন নিয়েছি সেটা আমার অন্যায় নয়। আর তিনি মহাজোটের নেত্রী।’

এক পর্যায়ে একজন তরুণ সাংবাদিককে সেলিম ওসমান বলেন, ‘আপনার বয়স হয়নি। প্রশ্ন করলে বুঝ করে করেন। এখনো প্রাপ্ত বয়স হয়নি আপনার। মহাজোটের সভানেত্রী। লাঙলের নেত্রী। আপনি জানেন না। আপনি বই পড়েন না কেনো।’

এ পর্যন্ত আলাপচারিতার পর সেখান থেকে প্রস্থান করেন তিনি।

এদিকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা নিয়ে ইতোপূর্বেই ১৯ ডিসেম্বর নিবন্ধিত ৩৯ টি রাজনৈতিক দলের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। যেখানে নির্বাচন কমিশন থেকে স্পষ্ট করেই বলা হয়েছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর প্রার্থীরা পোস্টার ও ব্যানারে নিজ দলের বর্তমান প্রধানের ছবি ছাড়া অন্য কারও ছবি ব্যবহার করতে পারবেন না।

ইসির চিঠিতে ‘গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ, ১৯৭২’ (আরপিও) এবং ‘জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর সংশ্লিষ্ট ধারাগুলো উল্লেখ করা হয়েছে।

ইসির উপ-সচিব আবদুল হালিম খান স্বাক্ষরিত চিঠিতে উল্লেখ করা হয় আচরণ বিধিমালা ৭(৩)(৪) ধারা উল্লেখ করে বলা ৭(৩) ধারায় বলা হয়েছে পোস্টার বা ব্যানারে প্রার্থী তার প্রতীক ও নিজের ছবি ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তির ছবি বা প্রতীক ছাপতে পারবে না।

আর ৭ (৪) ধারায় বলা হয়েছে, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কোনো নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের মনোনীত হলে তিনি কেবল তার বর্তমান দলীয় প্রধানের ছবি পোস্টারে ছাপাতে পারবেন।

আরও আরপিওর ২০(১) ধারা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, জোটভুক্ত কোনো নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থী জোটভুক্ত অন্য কোনো দলের প্রতীক ব্যবহার করলেও আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী নির্বাচনী প্রচারে ব্যবহৃত পোস্টারে নিজ দলের বর্তমান প্রধানের ছবি ছাড়া অন্য কারও ছবি ব্যবহার করতে পারবে না।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর