rabbhaban

এমপি বাবুতে ছাড় শামীম ওসমানে কড়াকড়ি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার
এমপি বাবুতে ছাড় শামীম ওসমানে কড়াকড়ি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর হঠাৎ করেই নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসন কঠোর হয়ে পড়েন। চাঁদাবাজি, ভূমিদুস্য, মাদক ব্যবসা ও ফুটপাত দখলমুক্তকরণ সহ বিভিন্ন ইস্যুতে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দিয়ে মাঠে নামেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ।

তবে সাম্প্রতিক কিছু কার্যক্রমে এই কড়াকড়ি শুধুমাত্র নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সমর্থিত নেতকাকর্মীদের ক্ষেত্রেই লক্ষ্য করা গেছে।

জানা যায়, একটি অনুষ্ঠানে পুলিশের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে গত ২৯ মার্চ সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সমর্থিত নেতা হিসেবে পরিচিত মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজামের বিরুদ্ধে জিডি করেন ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের। এরপর গত ১ এপ্রিল রাতে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পাগলায় মেরি এন্ডারসনে মদ ও বিয়ার উদ্ধারের ঘটনায় ক্রীড়া সংগঠক তানভীর আহমেদ টিটুকে জড়ানো হয়েছে।

এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারী মসজিদ কমিটি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ১৮ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান মুন্না এবং বর্তমান কাউন্সিলর কবির হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে কামরুল হাসান মুন্না শামীম ওসমানের ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

এসকল ঘটনায় ক্রমশই উত্তাপ ছড়ায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলয়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে। শামীম ওসমান বিভিন্ন সভা সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের দিকে ইঙ্গিত করে বক্তব্য দেন। শামীম ওসমান আল্টিমেটামও দিয়েছিলেন।

তবে এসকল ঘটনা ছাপিয়ে যায় গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে। ওই অনুষ্ঠানে শামীম ওসমান ও পুলিশ সুপার হারুণ অর রশিদ এক টেবিলে খাওয়া ধাওয়া করেন। ফলে শামীম ওসমানের বলয়ের নেতাকর্মীরা ধরে নিয়েছিলেন পুলিশ সুপার মনে হয় নমনীয় হয়ে আসছেন।

কিন্তু একটি চাঁদাবাজি মামলায় ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবুকে গ্রেফতারকে কেন্দ্র করে ফের নারায়ণগঞ্জের পরিস্থিতি ভিন্ন দিকে মোড় নেয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। কারণ আব্দুল করিম বাবু নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের অনুগত কর্মী হিসেবে পরিচিত। তবে শামীম ওসমান বলয়ের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসন অ্যাকশন ভূমিকায় থাকলেও অন্যদের ক্ষেত্রে ভিন্ন পরিবেশ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

জানা যায়, গত ২৯ মার্চ একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা নিয়ে আড়াইহাজার থানায় ঢুকে পুলিশকে শাসায় স্থানীয় ছাত্রলীগের কর্মীরা। যারা নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর সমর্থিত হিসেবে পরিচিত। এই ঘটনায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে জেলা পুলিশ প্রশাসন কোন এ্যাকশন না গিয়ে বরং এএসআই শরিফকে রাতেই ক্লোজড করে দেয়।

গত ১ এপ্রিল রাতে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পাগলায় মেরি এন্ডারসনে বিপুল পরিমান মদ ও বিয়ার উদ্ধারের ঘটনার পর গ্রেফতারকৃতরা পুলিশের কাছে স্বীকার করেন, এ ব্যবসায় শামীম ওসমানের শ্যালক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ টিটু জড়িত। এরই মধ্যে ফতুল্লার কুতুবপুর ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মীর হোসেন মীরুর বিরুদ্ধে মামলা হয়। মীরু মূলত শামীম ওসমানের রাজনীতি করে। পাগলায় প্যারাগন মাল্টিপারপাস প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান ও কর্মকর্তাদের মারধরের অভিযোগে গ্রেপ্তার হন পাগলা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখি সমিতির সভাপতি শাহ আলম টেনু।

সর্বশেষ গত ১৭ এপ্রিল বুধবার দুপুরে আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে আসামী ছিনিয়ে নিতে পুলিশের উপর হামলা করে স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় তাদের মারধরে পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়। পুলিশ জানায়, মাদক সেবন ও ইভটিজারের অপরাধে উপজেলার রামচন্দ্রদী গ্রামের জামালউদ্দিনের ছেলে দিদার ইসলামকে গোপালদী বাজার থেকে আটক করা হয়েছিল। তার  আটকের খবর জানতে পেরে গোপালদী পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সুজয় সাহা সহ আরো কয়েকজন দিদারকে ছাড়িয়ে আনতে তদন্ত কেন্দ্রে যান। এই সময় পুলিশ তাকে ছাড়তে অস্বীকৃতি জানালে সুজয় পুলিশকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এটিএসআই মামুন তার প্রতিবাদ করলে সুজয় ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর শুরু করেন। সুজয় মোবাইলে তার সহযোগীদের তদন্ত কেন্দ্রে এনে পুলিশের উপর হমলা চালাতে থাকে। এই ঘটনায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হলেও সর্বশেষ তাদেরকে ছেড়ে দিতে হয়।

এর আগে গত ২৪ ডিসেম্বর বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত জাতীয় পার্টি নেতা আল জয়নালের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানার একজন এএসআইকে গুলি করে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। সেই সাথে জয়নালের বিরুদ্ধে নাশকতা মামলায় পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু এই জয়নালের বিরুদ্ধেও কোন অ্যাকশনে যায়নি পুলিশ প্রশাসন। তাকে আটক করা হলেও পরদিন ছেড়ে দেয়া হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর