rabbhaban

কমিটি দিতে বললেও দেই নাই : তৈমূর


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০৪ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার
কমিটি দিতে বললেও দেই নাই : তৈমূর

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকার জেলা বিএনপির পূর্নাঙ্গ কমিটি প্রকাশের বিষয়ে বলেছেন, আমরা দেখতে চাই এই কমিটি কতটা কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। আমরা অতীতেও এই কমিটির কার্যক্রম দেখেছি যা গণমাধ্যম থেকে শুরু করে সকলেই অবগত। নতুন করে কমিটি পূর্ণ হওয়ায় কমিটির কর্মকান্ড পর্যবেক্ষন করবো।

আদালত প্রাঙ্গণে নিউজ নারায়ণগঞ্জের প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তিনি জেলা বিএনপির কমিটি প্রসঙ্গে এসব কথা বলেন। ২০৫ সদস্যের এই কমিটি গঠন নিয়ে তার ব্যাক্তিগত কোন আক্ষেপ নেই বলেও জানান।

তিনি বলেন, আমাকেও কেন্দ্র থেকে বলা হয়েছিলো কমিটি প্রেরণ করতে। কিন্তু আমি তা করিনি, আমাকে কমিটি দিতে বলা হলে আমি জেলা বিএনপিতে আমূল পরিবর্তন আনবো। কিন্তু সকলের কমিটি গ্রহণ করে সবার মন রক্ষার কমিটি দেয়ায় আমি বিশ্বাসী নই। আর সে কারণেই আমাকে কমিটি পাঠাতে বললেও আমি পাঠাইনি।

বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির চলমান প্রক্রিয়া পরিবর্তনের লক্ষ্যে তার নিজস্ব ফর্মূলাও তুলে ধরেন। বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ বিএনপিতে গতি ফেরাতে হলে ৩টি লিস্ট করে কেন্দ্রে প্রেরণ করতে হবে। লিস্টের প্রথম সারিতে থাকবে সরকারের আমলে নির্যাতন, কারাভোগকৃত এবং নির্বাচনের সময় সক্রিয় নেতাকর্মীরা। লিস্টের ২য় সারিতে থাকবে নির্বাচনের সময় নিষ্ক্রিয় এবং কর্মসূচীতে কম সক্রিয় এমন নেতাকর্মীদের নাম। আর লিস্টের ৩য় সারিতে থাকবে আওয়ামীলীগ জাতীয় পার্টির সাথে আঁতাতকারী ও দলের ক্ষতি ডেকে আনা ব্যাক্তিদের নাম। আর এই প্রক্রিয়ায় কোন স্বজন প্রীতি থাকবে না। জেলা মহানগর থেকে শুরু করে সর্বত্র এই প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব দেয়া হলে মুহুর্তের ভেতরে গতিশীলতা ফিরে আসবে দলে।’

জেলা বিএনপি কমিটির অবর্তমানে দলীয় কর্মসূচী পালনের ক্ষেত্রে ব্যাক্তি তৈমূর আলম খন্দকারের ভূমিকা কি হবে জানতে চাইলে বলেন, আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে আন্দোলন করে যাব। ২৬ মার্চ কমিটি মিছিল শুরু করে গলি থেকে। আর আমি শহরের শেষ মাথা থেকে। বিএনপির রাজনীতি করতে কমিটি লাগে না, লাগে দলের প্রতি দায়িত্ব আর ভালোবাসা। দলের সকল কর্মসূচীতে আমার সক্রিয় অবস্থান ছিল এবং থাকবে। নারায়ণগঞ্জে কোন পদ না থাকা স্বত্বেও আমি এখন ডাক দিলে আমার হাজার হাজার নেতাকর্মী জড়ো হয়। সুতরাং কর্মসূচী পালনের জন্য আমার পিছপা হবার কিছু নেই। কেন্দ্র আমাকেও দেখবে জেলা কমিটিকেও দেখবে। কে কতটুকু দলের জন্য কাজ করে তা মাঠেই প্রমান হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর