rabbhaban

নেতৃত্বের বিষোদাগার করলেও সরব বিপ্লবী মাসুকুল রাজীব!


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:১৬ পিএম, ২৬ মে ২০১৯, রবিবার
নেতৃত্বের বিষোদাগার করলেও সরব বিপ্লবী মাসুকুল রাজীব!

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি হবার পর থেকেই জেলার সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদের নানা অনিয়ম ও সংগঠনের নিয়ম বহির্ভূত কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করেছেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব। শুধু তাই নয় সংগঠনের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করায় দলীয় সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের অনেক কর্মসূচীও বর্জন করেছেন রাজীব।

তবে গত ২৫ মে দলের সভাপতি আহূত জেলা বিএনপির ইফতার মহফিলে যোগ দিয়েছেন তিনি আর তাতে দলের তৃণমূল নেতাকর্মীদের মনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

শুধু কর্মসূচীতে যোগদান নয় সেখানে জেলার সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামানের সাথে একান্ত আলাপচারিতার ছবিও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। অনেকেই সেখানে লিখেন যিনি এতদিন তাদের বিরুদ্ধে তাদের অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলতেন তিনিই সংগঠনের সাথে সহযোদ্ধাদের রেখে একাকি ইফতার মহফিলে চলে গেলেন। তার সাথে থাকা তৃণমূলের অনেক নেতাকর্মীই এতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উষ্মা প্রকাশ করেছেন।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন নিয়েও কঠোর সমালোচনা করেছিলেন রাজীব। প্রশ্ন তুলেছিলেন কমিটির বৈধতা নিয়েও।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামানের প্রথম থেকেই তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে দলীয় বৈঠক, দলীয় কর্মসূচী রাজপথে পালন না করা, নেতাকর্মীদের সাথে বৈঠক না করা, জেলা বিএনপির কমিটি নিয়ে কারো সাথে আলোচনা না করা এমনকি দলের কমিটির নেতাকর্মীদের নিয়ে একসাথে না বসার প্রতিবাদে একের পর এক বক্তব্য ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সোচ্চার ছিলেন এই রাজীব। তার এসব বক্তব্যের কারণে বেশ আলোচিত ও তৃণমূলের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পান তিনি। তবে তার বক্তব্যের ঠিক বিপরীত আচরণ করে কাজী মনিরুজ্জামানের ইফতার অনুষ্ঠানে তার হাজিরা হওয়াকে অনেকেই ভালো চোখে দেখেননি।

এ ধরনের কর্মকান্ডে তার উপর বিরূপ প্রতিক্রিয়াও করেছেন অনেকে। তবে পরবর্তীতে আর তিনি দলীয় তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মনভাবের বাইরে যাবেন না বলেই মনে করছেন সকলে। আর তাই সকলের প্রত্যাশা তৃণমূলের নেতাকর্মীদের পাশেই থাকবেন রাজীব।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর